Advertisement
০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

টাকা না-দিলে জেল, হুঁশিয়ারি সহারা-কর্তাকে

সহারা কর্ণধার সুব্রত রায়ের প্যারোলে মুক্ত থাকার মেয়াদ ১৯ জুন পর্যন্ত বাড়াল সুপ্রিম কোর্ট। তবে একই সঙ্গে আদালতের হুঁশিয়ারি, ১৫ জুনের মধ্যে ১,৫০০ কোটি টাকা জমা দিতে না-পারলে সুব্রতবাবুকে আবার ফিরতে হবে জেলের কুঠুরিতে।

হাজিরা: সুপ্রিম কোর্টে সুব্রত রায়। বৃহস্পতিবার। পিটিআই

হাজিরা: সুপ্রিম কোর্টে সুব্রত রায়। বৃহস্পতিবার। পিটিআই

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৮ এপ্রিল ২০১৭ ০৩:০৮
Share: Save:

সহারা কর্ণধার সুব্রত রায়ের প্যারোলে মুক্ত থাকার মেয়াদ ১৯ জুন পর্যন্ত বাড়াল সুপ্রিম কোর্ট। তবে একই সঙ্গে আদালতের হুঁশিয়ারি, ১৫ জুনের মধ্যে ১,৫০০ কোটি টাকা জমা দিতে না-পারলে সুব্রতবাবুকে আবার ফিরতে হবে জেলের কুঠুরিতে।

Advertisement

বৃহস্পতিবার ছিল সেবি-সহারা মামলার শুনানি। বাজার থেকে তোলা টাকা লগ্নিকারীদের না-ফেরানোর অভিযোগে যে-মামলা চলছে দীর্ঘ দিন। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে এ দিনের শুনানিতে আদালতে হাজির হন সুব্রতবাবু। সেখানেই শীর্ষ আদালত জানায়, এ বার থেকে আদালত অনুমোদিত দিন-ক্ষণ মেনে মাঝে মাঝেই বকেয়া টাকা মেটাতে হবে তাঁকে। নির্দেশ মানতে না-পারলে ফের ঢুকতে হবে জেলে।

বিচারপতি দীপক মিশ্রের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চের কাছে সহারা-কর্তা অবশ্য প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, ১৫ জুনের মধ্যে সেবি-সহারা অ্যাকাউন্টে ১,৫০০ কোটি জমা দেবেন তিনি। আর ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে মেটাবেন আরও ৫৫২.২২ কোটি টাকা। দাখিল করবেন হলফনামাও।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ৪ মার্চ থেকে তিহাড় জেলে বন্দি সহারা কর্তা ২০১৬ সালের ৬ মে মায়ের শেষকৃত্যে যোগ দিতে চার সপ্তাহের জন্য প্যারোলে মুক্তি পান। তার পর থেকে বিভিন্ন শুনানিতে তার মেয়াদ বাড়িয়েছে আদালত। যা নিয়ে কিছু দিন আগে সহারা মামলায় বিচারের ভার পাওয়া নতুন বেঞ্চ উষ্মা প্রকাশ করে। তাদের মতে, মায়ের শেষ কাজ সম্পন্ন করামাত্রই তাঁকে জেলে ফেরানো উচিত ছিল। টাকা মেটানোয় অহেতুক বেশি সময় দিয়ে সুব্রতবাবুকে আসকারা দেওয়া হয়েছে বলেও ক্ষোভ প্রকাশ করে বেঞ্চ।

Advertisement

এ দিকে, সহারা মামলায় আদালত অবমাননার দায়ে চেন্নাইয়ের সাংবাদিক প্রকাশ স্বামীকে এক বছরের জন্য তিহাড় জেলে পাঠাল সুপ্রিম কোর্ট। নিউ ইয়র্কে সহারার হোটেল প্লাজা কেনার আগ্রহ দেখিয়েছিল সেখানকারই এমজি ক্যাপিটাল হোল্ডিংস। সেই সদিচ্ছার প্রমাণ হিসেবে ১০ কোটি টাকা জমা দিতে বলে শীর্ষ আদালত। ৬৪ বছরের স্বামীই সংস্থাটির তরফে হলফনামা দাখিল করে টাকা জমার প্রতিশ্রুতি দেন। শেষ পর্যন্ত তা রাখতে ব্যর্থ হওয়াতেই এ দিন তাঁকে হাজতবাসের নির্দেশ শুনিয়েছে আদালত।

সুপ্রিম কোর্ট বলেছে, ১৯ জুনের শুনানিতেও সুব্রতবাবুকে ব্যক্তিগত ভাবে হাজির থাকতে হবে। টাকা জমা না-দেওয়ায় আগের শুনানিতেই বম্বে হাইকোর্টের সরকারি লিকুইডেটরকে সহারার ৩৪ হাজার কোটির সম্পত্তি, অ্যাম্বি ভ্যালি নিলামে বিক্রির নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। এ দিন ওই নিলামের শর্ত তৈরির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেটিও অনুমোদনের জন্য পেশ করতে হবে ১৯ জুন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.