মেখলিগঞ্জ থেকে জেলা শহর কোচবিহার, ময়নাগুড়ি, জলপাইগুড়ি ও শিলিগুড়ি যাওয়ার মূল ভরসাই বেসরকারি বাস। তাই সরকারি বাসের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরেই সরব হয়েছিলেন বাসিন্দারা। অবশেষে বুধবার এক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে দু’টি সরকারি বাসের উদ্বোধন করলেন চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান পরেশচন্দ্র অধিকারী। ছিলেন মেখলিগঞ্জের মহকুমাশাসক দিব্যনারায়ণ চট্টোপাধ্যায়, উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার চিফ ইঞ্জিনিয়ার সুবীর দেব রায়, মেখলিগঞ্জ পুরসভার বিদায়ী পুরপ্রধান মিঠু সিংহ সরকার প্রমুখ। এ দিন যে দু’টি বাস চালু হয়, তার একটি কোচবিহার থেকে মেখলিগঞ্জের মধ্যে এবং একটি মেখলিগঞ্জ থেকে শিলিগুড়ি হয়ে ইসলামপুর যাতায়াত করবে।

রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার আধিকারিকেরা জানান, মেখলিগঞ্জ থেকে সকাল সাড়ে ছ’টায় ছেড়ে ময়নাগুড়ি ও জলপাইগুড়ি বাইপাস দিয়ে শিলিগুড়ি হয়ে ইসলামপুর যাবে একটি বাস। আবার দুপুর দুটোয় ইসলামপুর থেকে তা শিলিগুড়ি আসবে। শিলিগুড়ি থেকে বিকেল সাড়ে চারটেয় জলপাইগুড়ি ময়নাগুড়ি হয়ে মেখলিগঞ্জে আসবে। অন্য বাসটি সকাল সাড়ে ৬ টায় কোচবিহার থেকে ছেড়ে পৌনে দশটায় মেখলিগঞ্জে পৌঁছবে। আবার সকাল সাড়ে দশটায় মেখলিগঞ্জ থেকে ছেড়ে মাথাভাঙা যাবে। দুপুর দেড়টায় মাথাভাঙা থেকে ছেড়ে বাসটি মেখলিগঞ্জে পৌঁছবে। পরবর্তীতে বিকেল ৪টেয় বাসটি মেখলিগঞ্জ থেকে কোচবিহার যাবে।

বাস দু’টির উদ্বোধন করে পরেশবাবু বলেন, ‘‘মেখলিগঞ্জের মানুষ সরকারি বাসের দাবি জানাচ্ছিলেন। বিষয়টি নিয়ে তিনি পরিবহণ মন্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। মন্ত্রী বাস দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিলেন। দু’টি বাস দেওয়ায় সেগুলি বুধবার থেকে চালু হল। আগামীতে যাতে আরও কিছু বাস পাওয়া যায় সেই চেষ্টা চালানো হচ্ছে।