• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এ বার অস্ট্রেলিয়ার মাটিতেও উব্‌রকে টক্কর দেবে ওলা

ola
অস্ট্রেলিয়ায় ট্যাক্সি পরিষেবা শুরু করবে ওলা। ছবি: সংগৃহীত।

দেশের পর এ বার আন্তর্জাতিক রাস্তাতেও উব্‌রকে কড়া টক্কর দিতে নামছে ওলা।

২০১১-তে ভারতে অ্যাপ নির্ভর ট্যাক্সি পরিষেবা চালুর পর বিদেশের বাজার দখল করতে নামছে ওলা। মঙ্গলবার একটি বিবৃতিতে সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, আপাতত সিডনি, মেলবোর্ন, পারথ— অস্ট্রেলিয়ার এই তিনটি শহরে ট্যাক্সি পরিষেবা শুরু করবে তারা। সে জন্য এ দিন থেকে ওই শহরগুলির বেসরকারি গাড়ি মালিকদের সঙ্গে কথাবার্তা শুরু করেছে বেঙ্গালুরুর সংস্থাটি। চলতি বছরেই এই পরিষেবা চালু করা হবে বলে জানানো হয়েছে।  তবে ঠিক কবে থেকে এই পরিষেবা শুরু হবে তা এখনি জানানো হয়নি।

ওলা-র সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও ভাবিশ অগ্রবাল একটি বিবৃতিতে বলেন, “অস্ট্রেলিয়ায় ওলা-র যাত্রা শুরু করা নিয়ে আমরা খুবই উদ্দীপ্ত।” ভাবিশের মতে, অ্যাপ নির্ভর ট্যাক্সি পরিষেবার বাজারে বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়।

আরও পড়ুন
বাজেটে বাড়তে পারে আয়কর ছাড়ের ঊর্ধ্বসীমা

ওলা –র দাবি, এই মুহূর্তে দেশের ১১০টি শহরে তাদের পরিষেবা চালু রয়েছে। সংস্থার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, অস্ট্রেলিয়ার বাজার দখলের জন্য আর্থিক ভাবেও প্রস্তুতি সেরে ফেলেছেন তাঁরা। গত অক্টোবরেই টেনসেন্ট এবং সফ্‌টব্যাঙ্ক থেকে ১১০ কোটি ডলার নিজেদের ঝুলিতে পুরেছে তারা।

আরও পড়ুন
বাজেট নিয়ে আশা-আশঙ্কার দোলায় বাজার

 

ওলা-র আগেই অবশ্য অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে পা রেখেছে উব্‌র। ২০১২-র অক্টোবরে সংস্থার পরিষেবা চালু হয় সেখানে। উব্‌রের পাশাপাশি ওলা-র সঙ্গে প্রতিযোগিতায় রয়েছে সে দেশের গোক্যাচ, ট্যাক্সিফাই-এর মতো সংস্থাগুলি। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, সে দেশের মাটিতে সুবিধা পাবে ওলা। কেন? গবেষণা  ও পরামর্শদাতা সংস্থা ভ্যালোরাইজার কলসালট্যান্টস-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা জসপাল সিংহের মতে, “অস্ট্রেলিয়ার বেশির ভাগ ট্যাক্সিচালকই ভারতীয়। যা ওলার-র পক্ষে সুখের কথা। কারণ, ওই দেশীয় চালকদের হাত ধরেই অস্ট্রেলিয়ার বাজার ধরতে চাইবে ওলা।”

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন