দাড়িভিটের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ জখম বিপ্লব সরকারকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ইসলামপুর থেকে শিলিগুড়ির একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। বিপ্লবের পরিবারের দাবি, ‘‘সরকারি হাসপাতালে ভরসা রাখতে পারছি না। তাই বাধ্য হয়ে আমরা শিলিগুড়িতে  বেসরকারি নাসিং হোমে ভর্তি করাই।’’

গত বৃহস্পতিবার দাড়িভিট হাইস্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র বিপ্লব সরকার গুলিবিদ্ধ হয়। তার পায়ে গুলি লাগে। অন্য দিকে, জখম কৃপানাথ সরকার এখনও হাসপাতালে ভর্তি। তাঁর মাথায় জখম রয়েছে।

গুলিবিদ্ধ রাজেশ সরকারকে চিকিৎসার জন্য ইসলামপুর নিয়ে যাওয়ার পথে গোলাপাড়ায় দুষ্কৃতীদের হামলায় জখম হন কৃপানাথ। তিনিও এখনও চিকিৎসাধীন।

হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ওই স্কুলের শিক্ষক আসাবুল হক। এ দিন জখমদের খোঁজখবর নিতে যান বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী এবং শিলিগুড়ির মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। শনিবার রাতে জখমদের দেখা করেন শিলিগুড়ি-মাটিগাড়ার বিধায়ক শঙ্কর মালাকার। গুলিবিদ্ধ বিপ্লবের এক আত্মীয় বলেন, ‘‘বিপ্লবের পায়ে প্লাস্টিক সার্জারি করাতে হবে। কী করে চিকিৎসা করবেন তা ভেবে কূলকিনারা করতে পাচ্ছেন না বাড়ির লোকজন।’’ বিপ্লবের বাবা গোবিন্দ সরকার  চাষ করে সংসার চালান। এ দিন তার বাবা জানান, ছেলের কী ভাবে চিকিৎসা করবেন তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন তিনি।