নাবালিকাকে ধর্ষণের দায়ে কারাদণ্ডের নির্দেশ হল এক ব্যক্তির। বৃহস্পতিবার বাঁকুড়ার বিশেষ পসকো আদালতে অতিরিক্ত জেলা দায়রা বিচারক (২) অরুণকিরণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের এজলাসে ওই রায় হয়েছে। সরকার পক্ষের আইনজীবী অমিয় চক্রবর্তী জানান, নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে শালতোড়ার অড়হড়িয়া এলাকার কার্তিক মণ্ডলকে ১০ বছর কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানার নির্দেশ হয়েছে। নির্যাতিতা নাবালিকাকে সরকারের তরফে সাড়ে চার লক্ষ টাকা দেওয়ার নির্দেশও বিচারক দিয়েছেন। অমিয়বাবু জানান, ২০১৭ সালের ২৯ অগস্ট সাত বছরের এক নাবালিকাকে কলাই দেওয়ার নাম করে ফাঁকা জায়গায় নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে কার্তিকের বিরুদ্ধে। ওই নাবালিকা বাড়িতে সব খুলে বলে। ঘটনার পরের দিনই পরিবারের তরফে শালতোড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। নাবালিকার ডাক্তারি পরীক্ষায় অভিযোগ প্রমাণিত হয়। তদন্তে নেমে ২০১৭ সালের ২২ সেপ্টেম্বর ঘটনার চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ। বিচার চলাকালীন জামিন পাননি অভিযুক্ত ব্যক্তি। বুধবার কার্তিককে দোষী সাব্যস্ত করে এ দিন সাজা ঘোষণা করা হয়।