×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১২ জুন ২০২১ ই-পেপার

লকডাউনে ভিন্ রাজ্যে আটকে দিনের পর দিন, বাড়ি ফিরতে ব্যাকুল শ্রমিক, পর্যটক

১১ মে ২০২০ ১৮:২৭
—ফাইল ছবি

—ফাইল ছবি

১) গুজরাতে আটকে, খাওয়ার জল পর্যন্ত পাচ্ছি না, আমাদের উদ্ধার করুন

আমরা মোট ১৭ জন গুজরাতে আটকে পড়েছি। আমরা সবার প্রথমে ভালোভাবে বাড়ি ফিরতে চাই। আমাদের বাড়ি ফেরার জন্য কিছু ব্যবস্থা করুন তাড়াতাড়ি। এখানে খেতে পাচ্ছি না। আমাদের কাছে টাকা পয়সাও শেষ। কোনও রকমে জল খেয়ে দিন কাটাচ্ছি। তা-ও সময় মতো জলও পাচ্ছি না। রাজ্য সরকারের কাছে অনুরোধ আমদের তাড়াতাড়ি বাড়ি ফেরার ব্যবস্থা করুন। নইলে আমরা এখানে না খেতে পেয়ে মরে যাবো। আমরা হোটেলে কাজ করতাম। এখন আমাদের কাজ নেই। খুব অসহায় ভাবে দিন কাটাচ্ছি। কেউ দেখার নেই।

আমাদের বর্তমান ঠিকানা
লোধিকা, রাজকোট, গুজরাট, পিন 360005
ড্রাইভ ইন সিনেমা কলাওয়াদ রোড অবাধ গেট
ফোন নম্বর- ৮৩২০৮৫৪৮৮৫
ইমেল-
pintudhal444@gmail.com

Advertisement


২) উত্তরাখণ্ডে এসে আটকে পড়েছি ১২৪ জন, আমাদের উদ্ধার করুন

আমরা প্রায় ১২৪ জন উত্তরাখণ্ডে আটকে পড়েছি।। আমাদের সঙ্গে অনেক বয়স্ক মানুষ আছে,ন। তাঁদের অবস্থা আস্তে আস্তে খারাপ হতে শুরু করেছে। আমাদের প্রায় সব টাকা শেষ। এখানকার প্রশাসন সাহায্য করছে। রেশনও দিচ্ছে। কিন্তু সেই খাবার খেতে আমরা অভ্যস্ত নই। তাই পেটের অসুখে ভুগছি। আমরা পশ্চিমবঙ্গের প্রশাসনের সঙ্গে কোনও যোগাযোগ করতে পারছি না।। আমাদের মাথা আর কাজ করছে না। জানি না আদৌ বাড়ি ফিরতে পারব কিনা! দয়া করে প্রশাসনের কাছে আমাদের অবস্থা জানান। তাতে যদি আমাদের ফেরানোর ব্যবস্থা হয়, তা হলে খুব উপকার হয়।

মোবাইল নম্বর- ৭৬৮৫৯৫১৫৩১ ও ৭৯৮০৭৭৫৪৪৫
ইমেল-
bhaskar.71.malakar@gmail.com


৩) লকডাউনে কোপ তাঁত শিল্পে, সাহায্য চায় সমবায় সমিতি

বোলপুর ব্লকে তাঁত শিল্পের সঙ্গে যুক্ত গরিব মহিলাদের কাজ বন্ধ। সংসার চালানো খুবই কষ্টকর হচ্ছে। করোনা মানুষকে ধনেপ্রাণে মারবে মনে হচ্ছে। বিভিন্ন পেশাজীবীরা আজ বেকার। তাঁদের মধ্যে তাঁত শিল্পের সঙ্গে যুক্ত গরিব মহিলাদের কাজ বন্ধ। বোলপুর ব্লকের ৩০০ জন তাঁত শিল্পী আজ বেকার। ছোটশিমুলিয়া টেগোর তন্তুবায় সমবায় সমিতি লিমিটেডের সঙ্গে যুক্ত সকলেই গরিব। বিক্রি বন্ধ। সরকারি সাহায্য দরকার। প্রতিষ্ঠানকে বাঁচানোর জন্য সরকারের সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা চাই।

দীপক কোনার
ছোটশিমুলিয়া টেগোর তন্তুবায় সমবায় সমিতি লিমিটেড
ইমেল-
tagorebolpur@gmail.com

৪) বেঙ্গালুরুতে আটকে রয়েছি, আমাদের উদ্ধার করুন

আমি হলদিয়ার সূতাহাটার বাসিন্দা। আমি বেঙ্গালুরুতে মা ও স্ত্রীকে নিয়ে চিকিৎসার জন্য এসেছিলাম। এখানে দীর্ঘ দিন ধরে আঠকে পড়েছি। বর্তমানে আমার হাতে টাকাপয়সা নেই। সরকারকে অনুরোধ করছি, ট্রেন বা বাসের মাধ্যমে আমাদের যেন উদ্ধার করা হয়।

উত্তম গুহ
ফোন নম্বর- ৯৬৩৫৮৫০১৬২ ও ৯০০২৩০০৮৬৪
ইমেল-
uttamghosh121185@gmail.com


৫) একটাই প্রার্থনা, আমাকে দ্রুত বাড়ি ফেরান

আমি নুরুল ইসলাম, উত্তর ২৪ পরগনা জেলার মাটিয়ার বাসিন্দা। গত ২৭ এপ্রিল চিঠি পাঠিয়েছিলাম। ফের লিখছি। কারণ এখনও পর্যন্ত বাড়ি ফেরার কোনও ব্যবস্থা দেখতে পাচ্ছি না। লকডাউনের কারণে হোটেলবন্দি। আমার টাকাপয়সা সব শেষ। আমি আমার বাড়ির অভিভাবক। দীর্ঘদিন বাড়ির বাইরে থাকার জেরে বাড়ির অবস্থাও খারাপ। আমি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছি। জানি না, আগামী দিনে আমার জন্য কী অপেক্ষা করছে। আমি আর পারছি না। আপনাদের কাছে একটাই প্রার্থনা, আমাকে দ্রুত বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করুন।

নুরুল ইসলাম
ফোন নম্বর- ৯৭৩২৬২০৫৯০
ইমেল-
mgsis13@gmail.com

৬) ইটালিতে হোটেলবন্দি, সরকার কি আমাদের ভুলে গেল!

আমরা শতাধিক ভারতীয় ইটালিতে হোটেলে হোটেলবন্দি। গত ৪৫ দিন ধরে এখানে রয়েছি। আমরা একটি জাহাজে কাজ করি। কিন্তু কেউ আমাদের নিয়ে কোনও কথাই বলছে না। ভারতীয় দূতাবাস আমাদের বিষয়ে জানে। কিন্তু ভারত সরকারের তরফে কোনও বার্তাই আসেনি। সরকার কি কোনও নির্দিষ্ট দিন জানাতে পারে?

সুজিত কুমার বিশ্বাস
ধানতলা, নদিয়া
ফোন নম্বর- ৭০৭৪২৪৯৩২৪
ইমেল-
sujitbiswas75@gmail.com

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

Advertisement