সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বাড়িতে স্ত্রী একা, টাকা শেষ, খাবার বাড়ন্ত, বাংলায় ফেরান

এই লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের থেকে তাঁদের অবস্থার কথা, তাঁদের চারপাশের অবস্থার কথা জানতে চাইছি আমরা। সেই সূত্রেই নানান ধরনের সমস্যা পাঠকরা লিখে জানাচ্ছেন। পাঠাচ্ছেন অন্যান্য খবরাখবরও। সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন, এবং অবশ্যই আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা ম‌‌নোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি।

labours
আটকে পড়া লোকজন ফিরতে চাইছেন বাড়িতে। প্রতীকী চিত্র।

চিঠি-:  ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে এসে হায়দরাবাদে আটকে, বাড়ি ফেরান

ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে হায়দরাবাদের মেহেন্দিপত্তনম এসেছিলাম। লকডাউনে আটকে পড়েছি। আমার সঙ্গে আমার আরও দশ বন্ধু রয়েছে. আমরা প্রত্যেকেই পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা। হাতে কোনও টাকাপয়সাও নেই। খাবারও প্রায় শেষ। আমাদের ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করুন বা খাবারদাবার দিয়ে সাহায্য করুন।

সালিম বাদশা, মোবাইল ৬৩০৪২৪১০২৮

ইমেল: iamsalimbadsha@gmail.com

চিঠি-: মহারাষ্ট্রে কাজ করতে এসে আটকে পড়েছে, কোনও সাহায্য পাচ্ছি না

আমরা পরিযায়ী শ্রমিক। মহারাষ্ট্রের মুম্বইয়ের গুরুগ্রাম সন্তোষনগর এলাকায় আমরা ৮০ জন আটকে আছি। তার মধ্যে ৩৫ জন বাঙালি। এখানে  কোনও রকম সাহায্য পাচ্ছি না। আমরা খুবই অসুবিধাজনক  অবস্থায় আছি। দয়া করে আমাদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করুক সরকার।

ইমেল: krishnot922@gmail.com

চিঠি-: কাজের প্রয়োজনে ওডিশায় আটকে পড়েছি, যে কোনও ভাবে হাওড়া ফিরতে চাই

আমি অসিতবরণ রায়। পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা। লকডাউনর জেরে ওডিশায় আটকে আছি। এই রাজ্যের কেউ বাইরে আটকে থাকলে তিনি সরকারি পোর্টাল covid19.odisha. gov.in-এ নাম নথিভুক্ত করলে তাঁকে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। আমাদের রাজ্যের তরফে কি এমন কোনও পোর্টাল আছে? তা হলে তা আমাকে অনুগ্রহ করে জানান বা অন্য কোনও ভাবে আমাকে হাওড়া পর্যন্ত ফেরার ব্যবস্থা করে দিন।

অসিতবরণ রায়, মোবাইল-৮৫৮২৯৭৭৩০৩

ইমেল- asitray798@gmail.com

চিঠি-: ভেলোরে এসে আটকে পড়েছি, বাড়ি ফিরতে সাহায্য করুন

স্ত্রীর ক্যানসারের চিকিৎসা করাতে ভেলোরে এসেছিলাম। লকডাউনে আমরা আটকে পড়েছি। কবে বাড়ি ফিরব জানি না। বাড়ি ফিরতে সাহায্য করুন।

 তপন বেরা, মোবাইল-৯৩৩১৮৯৪৬৪

ইমেল- tusharbera500@gmail.com

চিঠি-: ১৫০ জন ছাত্রছাত্রী নার্সিং পড়তে এসে বেঙ্গালুরুতে আটকে পড়েছি, অসহায় লাগছে

আমরা বেঙ্গালুরুর সেন্ট তেরেসা গ্রুপ অব ইনস্টিটিউশন (১৫ ক্রশ, আর কে হেগদে নগর, বেঙ্গালুরু ৫৬০০৭৭)-এর নার্সিং ছাত্র-ছাত্রী। এই পরিস্থিতিতে আমরা পশ্চিমবঙ্গের মোট ১৫০ জন ছাত্রছাত্রী আটকে আছি কলেজে.র হোস্টেলে। মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আমাদের বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কোনও একটা ব্যবস্থা করতে অনুরোধ করছি। কর্নাটক সরকারের সঙ্গে কথা বলেও যদি আমাদের হিতার্থে কোনও একটা উপায় বার করে দেন তা হলে আমরা আপনার কাছে চিরকৃতজ্ঞ থাকব।

পবিত্র মণ্ডল (৮৭৭৭২৬৩৭৬৫)

শান্তি (৭৬৭৯০৪২১১৭)

প্রবীন গায়েন (৯৭৩৫১০২৯৯৭)

 ইমেল- pabitramondal104@gmail.com

চিঠি-: লকডাউনে ওডিশায় আটকে পড়েছি,  টাকাপয়সা, খাবার সবই তলানিতে এসে ঠেকেছে

আমি মহেশ্বরবাটি, পোলবার বাসিন্দা। ১ মার্চ কাজের প্রয়োজনে ওডিশার আঙ্গুলে এসেছিলাম। এক মাসের মধ্যে বাড়ি ফেরার কথা ছিল। কিন্তু লকডাউনে আটকে পড়েছি। আমার টাকাপয়সা, খাবার সবই তলানিতে এসে ঠেকেছে। বাড়িতে কেবল আমার স্ত্রী আছেন। তিনিও ওখানে অসহায়। যে ভাবেই হোক বাড়ি ফিরতে চাই। দয়া করে কেউ সাহায্য করুন।

মিন্টু দণ্ডপাঠক 

ইমেল- mdandapathak@gmail.com

চিঠি-: চেন্নাইয়ে আটকে, খেতে পাচ্ছি না, বাঁচান

চেন্নাইয়ের তাম্বারম জেলার নেদুনগুনদ্রামে  আমরা প্রায় ৫০ জন শ্রমিক আটকে রয়েছি। খাবার জুটছে না। খুব অসহায় লাগছে। দয়া করে  আমাদের বাড়ি নিয়ে যাওয়ার ব্যাবস্থা করুন।

ঠিকানা-নেদুনগুনদ্রাম গ্রাম, থানা- চেনগালপাত্তুর, পিন-৬০০০৪৮

ইমেল- asarulhoque327@gmail.com

চিঠি-: সাত হাজার বাঙালি আটকে ভেলোরে, বিশেষ ট্রেন-বাসের ব্যবস্থা করে বাড়ি ফেরান

আমি প্রশান্ত কুমার মণ্ডল। হুগলির বলাগড় পালপাড়ার বাসিন্দা। গত ১৯ মার্চ আমরা সপরিবার চিকিৎসার কারণে ভেলোরে এসেছিলাম। এখন এখানকার বাবু রাও স্ট্রিটের শ্রীবিষ্ণু লজে আচকে রয়েছি। আমাদের সঙ্গে একটি ৮ বছরের শিশু ও এক জন মহিলাও রয়েছেন। শুধু আমরা একা নই, এখানে প্রায় সাত হাজার বাঙালি চিকিৎসা করিয়েও ঘরে ফিরতে পারছেন না। সকলেই আটকে পড়েছেন। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কাছে অনুরোধ, বিশেষ কিছু বাস বা ট্রেনের ব্যবস্থা করে আমাদের ঘরে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করুন।

প্রশান্ত কুমার মণ্ডল, মোবাইল- ৯০৫১৪৭০১৬০ 

ইমেল- pkmondal2019@gmail.com

চিঠি-: বাঁকুড়ায় বাড়ি, চেন্নাইয়ে কাজ করতে এসে আটকে পড়েছি

লকডাউনের জন্য ৬০ জন চেন্নাইয়ে আটকে পড়েছি। আমাদের বাড়ি বাঁকুড়া। যে ভাবেই হোক তাড়াতাড়ি বাড়ি ফিরতে চাই। আমাদের দয়া করে জানাবেন, কার সঙ্গে যোগাযোগ করলে আমরা বাড়ি ফিরতে পারি।

তাপস কুমার বাড়ুই , মোবাইল- ৮৬৭৮৯২৩৩৪৯ 

ইমেল- baruitapas1@gmail.com

চিঠি-১০: টাকা শেষ, বেতন অনিশ্চিত, বাড়ি ফিরতে চাই

আমি হরিয়ানাতে একটা বেসরকারি কোম্পানিতে চাকরি করছিলাম। এখন লকডাউনে কাজ বন্ধ। টাকাও ফুরিয়ে আসছে। জানি না আর কত দিন চলবে। এ মাসের বেতন পাব কি না তারও ছিক নেই। খুব দুশ্চিন্তায় দিন কাটছে। আমার বাড়ি পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলায়। যে ভাবেই হোক বাড়ি ফিরতে চাই।

তুহিন মন্ডল, মোবাইল- ৭০০১৩৮০৮৫৬/৯৯৩২১৩৮৪৬২

ইমেল- tuhin6058@gmail.com

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণছবিভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকাকোন দিনকোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন