Advertisement
১৬ জুন ২০২৪
Paper Leak Security System

প্রশ্নপত্রের গতিবিধির উপর নজর রাখতে অ্যাপ ভিত্তিক ট্রাকিং কলেজ সার্ভিস কমিশনের

১৭ ডিসেম্বর রবিবার রাজ্যে সহকারী অধ্যাপক নিয়োগের ২৫তম সেট পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। সকাল ১০ টা থেকে শুরু হবে পরীক্ষা। প্রথম পত্রের পরীক্ষা সকাল ১১.৩০ পর্যন্ত চলবে। দুপুর দুটো থেকে দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা শুরু হবে।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২১ নভেম্বর ২০২৩ ১২:০৫
Share: Save:

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা মানুষের জীবনের একটা প্রধান অঙ্গ হয়ে উঠেছে। অনলাইন শপিং হোক বা অনলাইনে খাবার বুকিং সমস্ত কিছুই বিশেষ অ্যাপের মাধ্যমে বুকিং এবং গতিবিধির উপর নিয়ন্ত্রণ করা হয়। একই ভাবে স্টেট এলিজিবিলিটি টেস্ট (সেট) প্রশ্নপত্রের নিরাপত্তা ও গতিবিধির উপর নজরদারি চালাবে অ্যাপ ভিত্তিক কিউ আর কোড জিপিএস ট্রাকিং-এর মাধ্যমে কলেজ সার্ভিস কমিশন ।

কলেজ সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান দীপক কর বলেন, “২৫ তম সেট পরীক্ষা আয়োজন করতে চলেছি আমরা। আগে কখনো কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার করে আমরা পরীক্ষা ব্যবস্থাকে ত্রুটিপূর্ণ করতে চাই, তাই এই ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।”

১৭ ডিসেম্বর রবিবার রাজ্যে সহকারী অধ্যাপক নিয়োগের ২৫তম সেট পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। সকাল ১০ টা থেকে শুরু হবে পরীক্ষা। প্রথম পত্রের পরীক্ষা সকাল ১১.৩০ পর্যন্ত চলবে। দুপুর দুটো থেকে দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা শুরু হবে। ২৩ জেলায় ১১০টি পরীক্ষা কেন্দ্রে এই পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ৮০ হাজার।

যে কোনও বড় পরীক্ষার সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ অংশ হচ্ছে প্রশ্নপত্রের নিরাপত্তা, মূল বিতরণ কেন্দ্র থেকে প্রশ্নপত্র পৌঁছয় পরীক্ষা কেন্দ্রগুলির কাস্টোডিয়ান-এর কাছে। সেখান থেকে প্রশ্নপত্র পৌঁছে দেওয়া হয় পুলিশি নজরদারির মাধ্যমে পরীক্ষা কেন্দ্রগুলিতে। কলেজ সার্ভিস কমিশন এ বার আধুনিক অ্যাপ ভিত্তিক প্রযুক্তির ব্যবহার করে কেন্দ্রীয় ভাবে জিপিএস ট্র্যাকিং-এর মাধ্যমে নজরদারি চালাবেন, যাতে প্রশ্নপত্র কোন ভাবে পরীক্ষার্থীদের হাতে পৌছানোর আগেই বাইরে না বেরিয়ে যায়। এই বিশেষ অ্যাপের ব্যবহার এবং ‘কিউ আর কোড’ স্ক্যানিংয়ের নিয়ন্ত্রণের দায়িত্বে থাকবেন কমিশনের দ্বারা নিযুক্ত বিশেষ ব্যক্তিরা।

প্রতিটি কেন্দ্রে কমিশনের প্রতিনিধি হিসাবে দু’জন করে অভজ়ার্ভার থাকবেন। তাঁরা হবেন কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ, শিক্ষক এবং শিক্ষাকর্মীরা। পরীক্ষা নিয়ামকের দায়িত্বে থাকবেন কলেজের অধ্যক্ষ পদে থাকা ব্যক্তিরা। ২৩ জেলায় ২৫ জন অফিসার থাকবেন তাঁরা হবেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, রেজিস্ট্রার এবং ‌ডিন।

পরীক্ষা ব্যবস্থা পরিচালনায় যাতে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য সতর্ক কলেজ সার্ভিস কমিশন। এলাকা ভিত্তিক নিরাপত্তার ব্যবস্থার পাশাপাশি, পুলিশ এবং জেলা প্রশাসনের সঙ্গেও কমিশন বৈঠক করে নিরাপত্তা ব্যবস্থার কথা বলেছে। দিন ১৫ আগে সমস্ত আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠক সম্পন্ন করেছে কলেজ সার্ভিস কমিশন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

SET
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE