Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Bengal Polls: নন্দীগ্রামের মাটিকে প্রণাম করার জন্যই এখানে ভোটে দাঁড়িয়েছি, বললেন মমতা

নিজস্ব সংবাদদাতা
নন্দীগ্রাম ২৮ মার্চ ২০২১ ১৭:৩৫


—ফাইল চিত্র।

ভোটের চার দিন আগে নন্দীগ্রামে জনসভা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। দ্বিতীয় দফায় সেখানে শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে মুখোমুখি লড়াই তাঁর। তার আগে রবিবার দোলের দিন জমি আন্দোলনের ভূমিতে পা রাখলেন তৃণমূল নেত্রী।

নন্দীগ্রামে আসার আগে পাশের চণ্ডীপুরে অভিনেতা সোহম চক্রবর্তীর সমর্থনে জনসভা করেন মমতা। সেখান থেকে এসে পৌঁছন নন্দীগ্রামে। বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ রেয়াপাড়া শিবমন্দিরে দোলমেলায় উপস্থিত হন মমতা। প্রসঙ্গত, ভোটের জন্য সেখানে ঘরভাড়া নেওয়া রয়েছে নন্দীগ্রাম কেন্দ্রের প্রার্থী মমতার।

মমতা জানিয়েছেন, ভোট করিয়ে তবেই কলকাতা ফিরবেন তিনি।

Advertisement

এর আগে, গত ১০ মার্চ এই নন্দীগ্রামেই আহত হন মমতা। সে যাত্রায় প্রচার স্থগিত রেখে কলকাতা ফিরে যেতে হয় তাঁকে। তার পর ১৮ দিনের মাথায় ফের নন্দীগ্রামে তিনি।


এক নজরে মমতার বক্তব্য:


• ৫.৩২: আজ যেমন দোল খেলছেন, ১ এপ্রিল ওদের বোকা বানিয়ে ২ এপ্রিল আমরা দোল খেলব। সবুজ আবির নিয়ে দোল খেলব।
• ৫.৩০: টাকা আপনাদের, তা কী ভাবে খরচ করবেন, তা আপনারা ঠিক করবেন। তবে ভোটের বাক্সে একটাও বিজেপি-কে দেবেন না। বহিরাগতদের দূর করে দিন। বিজেপি-কে বিদায় করে দিন।
• ৫.২৮: আমরা খাদ্যসাথী, সবুজ সাথী করে দিয়েছি। আগামী দিনে আমাদের সরকার হলে বাড়ি বাড়ি রেশন পৌঁছে দেব। কৃষকবন্ধুদের ৫ হাজার বেড়ে ১০ হাজার হবে। ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনার কথা চিন্তা করতে হবে না। ১০ লক্ষ করে ক্রেডিট কার্ড পাবে তারা। স্বাস্থ্যসাথী ৫ লক্ষ টাকার, প্রতি বছর পাবে।
• ৫.২৭: আমি এমন কোনও কথা বলব না, যাতে লক্ষ্মণের সীমারেখা লঙ্ঘন করে যায়।
• ৫.২৫: আমরা বহিরাগতদের বাংলা দখল করতে দেব না।
• ৫.২৫: ১ এপ্রিল খেলা হবে। বাক্স খুললেই দেখা যাবে, খেলা হবে।
• ৫.২৪: বিহার, উত্তরপ্রদেশ থেকে গুন্ডা নিয়ে এসেছে নন্দীগ্রামে।
• ৫.২১: আমি কেন নন্দীগ্রামে দাঁড়িয়েছি, তা বলছি। নন্দীগ্রামের আন্দোলনে মানুষের যে অবদান তা রক্ষা করার জন্যই আপনাদের অনুমতি নিয়ে এখানে দাঁড়িয়েছি। আমাকে বহিরাগত বলছে, আমার কি ভোটে দাঁড়ানোর জায়গার অভাব রয়েছে?
• ৫.২০: সিপিএমের যারা হার্মাদ, তারা আজ অন্য দলে গিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে।
• ৫.১৬: আপনাদের মনে আছে, নন্দীগ্রামের সে দিনগুলোর কথা। মনে রাখবেন, আমি জানি কী ভাবে ১০ জনের হদিশ পাওয়া যায়নি। একটা আন্দোলন করতে করতে কত জন মারা গিয়েছেন। ১৪ জনের পর কত জন মারা গিয়েছেন।
• ৫.১২: আমি জলঢোড়া ভেবে কেউটে পুষেছি। তৃণমূলের জন্মের সময় এঁরা ছিল না। বাবা-ছেলে কেউ ছিল না।
• ৫.১১: নন্দীগ্রামে মানে একটা সংগ্রাম।
• ৫.১০: ধর্ম সকলের আপনার। আমরা সব ধর্মের পাশেই রয়েছি।

আরও পড়ুন

Advertisement