×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৮ মে ২০২১ ই-পেপার

Bengal Polls 2021: নিজের ছায়াকেও অবিশ্বাস মমতার: মানিক

অমিত মণ্ডল
গয়েশপুর ১১ এপ্রিল ২০২১ ০৬:৩১
বক্তা মানিক সরকার। শনিবার গয়েশপুরে।

বক্তা মানিক সরকার। শনিবার গয়েশপুরে।
নিজস্ব চিত্র।

খেলা হবে স্লোগানের জালে আটকে যাওয়া চলবে না। দশ বছরে মানুষের পিঠ তো দেওয়ালে আটকে গিয়েছে। এ বার সামনের দিকে এগোতে হবে। গয়েশপুরে হরিণঘাটা কেন্দ্রে সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী সবুজ দাসের সমর্থনে সভা করতে এসে এ ভাবেই রাজ্যের শাসক দলকে বিঁধলেন ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার।

শনিবার সন্ধ্যায় গয়েশপুর বেদিভবনের বন্ধুমহল মাঠে প্রার্থী সবুজ দাসের সমর্থনে সমাবেশ করে সংযুক্ত মোর্চা। সেই সভায় উপস্থিত ছিলেন ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও পলিটব্যুরোর সদস্য মানিক সরকার। সভায় তৃণমূলকে নিশানা করে তিনি বলেন, ‘‘দশ বছর ধরে তৃণমূল মানুষের সঙ্গে গদ্দারি করেছে। এখন দলের নেতারাই মাননীয়ার সঙ্গে গদ্দারি করছেন। মুখ্যমন্ত্রী এখন নিজের ছায়াকেও বিশ্বাস করেন না।’’

পাশাপাশি বিজেপিকেও আক্রমণ শানিয়ে তিনি বলেন, ‘‘প্রতি বছর দুই কোটি চাকরির আশ্বাস দিয়েছিলেন। সেই চাকরি কোথায় গেল?’’ পেট্রল-ডিজেলের দাম বাড়া নিয়ে তিনি বিজেপিকে কাঠগড়ায় তোলেন। তিনি জানান, রাজ্যে প্রধানমন্ত্রী এসে বলছেন আসল পরিবর্তন হবে। ভারতীয় জনতা পার্টির সরকার দেশের অবস্থা যা করেছে, নতুন করে পশ্চিমবঙ্গে কী পরিবর্তন করবে সেটা সাধারণ মানুষকে প্রশ্ন করতে বলেন। তাঁর দাবি, বিজেপি বা তৃণমূল সবই এক। তারা একে অপরকে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে সাহায্য করছে।

Advertisement

তিনি বলেন, ‘‘চাকরি নেই। দুর্নীতিতে ভরে গিয়েছে রাজ্য। যোগ্য ছেলেমেয়েরা আজ চাকরি না পেয়ে রাস্তায় নামছেন। তাঁদেরকে জলকামান, পুলিশ দিয়ে আক্রমণ করা হচ্ছে। রাজ্যে তৃণমূল যে রাজনৈতিক পরিস্থিতি তৈরি করেছে, তার থেকে বাঁচতে হবে।’’ সাধারণ মানুষের কাছে তাঁর আবেদন, ‘‘এই নির্বাচনে ভাবনা চিন্তা করেই যেন ভোট দেন। সেই সঙ্গে আবেদন করেন তরুণ প্রার্থী সবুজ দাসকে ভোট দেওয়ার জন্য।’’ প্রার্থী সবুজ দাসও মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন, ‘‘মানুষ দশ বছর ভুল করেছে। আবার নতুন করে পাঁচ বছর ভুল করবেন না।’’ সাধারণ মানুষের কাছে তাঁর আবেদন, ‘‘নির্বাচনে জিতলে আমার কাছে কোনও রঙ প্রাধান্য পাবে না। সবার জন্যই তিনি কাজ করবেন।’’ মোর্চা সূত্রে খবর, এ দিনের সমাবেশ ‘প্রতিরোধ’ নামে একটি নাটক দিয়ে শুরু হয়। তারপর বক্তারা নিজেদের বক্তব্য রাখেন।

Advertisement