×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ মে ২০২১ ই-পেপার

Bengal Polls: প্রচারে তোপ: ১ তারিখে বিজেপি-কে এপ্রিল ফুল করে দিন, বড়জোড়ায় বললেন মমতা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২২ মার্চ ২০২১ ১৪:৫৭


ছবি: পিটিআই।

একই দিনে ৩ সভা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সোমবার বাঁকুড়ার কোতলপুর এবং ইন্দাসের পর বড়জোড়ায় তৃতীয় সভায় ভোটপ্রচারে মমতা।

Advertisement

এক নজরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য:

• বোনেরা দিচ্ছে উলুধ্বনি, ভাইয়েরা দিচ্ছে তালি। আসুন আমরা বাংলা থেকে বিজেপি-কে করি খালি। খেলা হবে।
• পিএমকেয়ার্সের টাকা কোথায়? নরেন্দ্র মোদী জবাব দাও। রেল কেন বিক্রি করা হচ্ছে? নরেন্দ্র মোদী জবাব দাও। বিএসএনএল কেন বিক্রি হচ্ছে? নরেন্দ্র মোদী জবাব দাও। ১ এপ্রিল বিজেপি-কে এপ্রিল ফুল করে দিন। বিজেপি-কে টা-টা বাই-বাই করে দিন।
• আগের বার ভোট নিয়ে পালিয়ে গেল। এ বার আসানসোলের এমপি টালিগঞ্জে লড়তে গেল। আগের বার জেতার পর কোনও কাজ করেছে।
• আমরা ৫ লক্ষ বেকারের চাকরি দেব। আমরা দারিদ্র অনেক কমিয়ে দিয়েছি। এই কাজ করতে আপনাদের দোয়া-আশীর্বাদ সব প্রয়োজন।
• বিজেপি গড়বে বাংলা? দেশটাকে বিক্রি করে দিয়েছে নরেন্দ্র মোদী। এখন নিজের নামে স্টেডিয়াম করছে। কোনও দিন দেশের নামও বদলে দেবে।
• আমরা সব বাচ্চাদের বইয়ের ব্যাগ দিই। স্বাস্থ্য থেকে শিক্ষা, সব দিই। শুধু একটা দরখাস্ত করতে হবে। ২ মাস করে ‘দুয়ারে সরকার’ হবে।
• আমাদের ছেলেমেয়েরা নাসা থেকে ভাষা জয় করেছে। পড়ুয়াদের জন্য ১০ লক্ষ টাকা করে ক্রেডিট কার্ড করে দেব।
• হাসপাতাল, মেডিক্যাল কলেজ করা হবে। আরও শিক্ষক নিয়োগ করা হবে।
• আমি চাই না, কেউ ১৮ বছর বয়সে বিধবা হয়ে যাক। তবে ১৮ বছর বয়স থেকে সব বিধবারা পেনশন পাবেন।
• কৃষকেরা মে মাস থেকে ৫ হাজার টাকার বদলে ১০ হাজার টাকা করে পাবেন।
• মে মাস থেকে আমরা দুয়ারে দুয়ারে রেশন পৌঁছে দিয়ে আসব।
• নরেন্দ্র মোদী সরকার অ্যাকাউন্টে ১৫ লক্ষ টাকা দিয়েছে?
• আমাদের দাবি, নরেন্দ্র মোদী সরকার বিনা পয়সায় গ্যাস দাও। আমাদের রান্না করে খেতে দাও।
• আমার একটা পা ভাল আছে। আর একটা পা খারাপ। মা-বোনেদের দু’টো করে ভাল পা দিয়েই লড়ব। নির্বাচনে জিততে না পারলে বহিরাগত গুন্ডারা সব লুঠ করে নেবে। সব বিক্রি করে দেবে। খাবেন কী?
• আমাকে আগেও অনেক বার মেরেছে। আমার পায়ে চোট লাগবে, আমি ভাবতে পারিনি।
• যতক্ষণ আছি, মানুষের কাজ করে যাব। আমাকে বলতে হয় না, মানুষের সাহায্য করি।
আমি যেন কখনও মানুষের থেকে নিজেকে সরিয়ে না নিই। মানুষের দুঃখকে নিজের মনে করি।
• এটা দিল্লির নির্বাচন নয়। এটা বাংলার নির্বাচন। বাংলার কৃষকের ভবিষ্যতের লড়াই। বাংলার শিল্পের ভবিষ্যতের লড়াই।

Advertisement