×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ মে ২০২১ ই-পেপার

Bengal Polls: বাংলায় কী পরিবর্তন করেছেন মমতা? পিংলার জনসভা থেকে প্রশ্ন স্মৃতির

নিজস্ব সংবাদদাতা
পিংলা ২২ মার্চ ২০২১ ১৭:২৯
পিংলার জনসভায় ওই কেন্দ্রের দলীয় প্রার্থী অন্তরা ভট্টাচার্যের সঙ্গে স্মৃতি ইরানি।

পিংলার জনসভায় ওই কেন্দ্রের দলীয় প্রার্থী অন্তরা ভট্টাচার্যের সঙ্গে স্মৃতি ইরানি।
ছবি: পিটিআই।

ক্ষমতায় আসার আগে বাংলায় পরিবর্তনের প্রতিশ্রুতি দিলেও, বাস্তবে তা রূপায়িত হয়নি। উল্টে ‘ঘরের লোকের’ থেকে 'চুরি' করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সোমবার পশ্চিম মেদিনীপুরে ভোটপ্রচারে এসে এমনটাই দাবি করলেন কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেটমন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সুরেই স্মৃতির আরও দাবি, বাংলায় 'আসল পরিবর্তন' করতে পারে বিজেপি-ই। তাই দিদিকে হঠিয়ে বাংলা 'বাঁচানো'র আহ্বান জানালেন তিনি।

সোমবার দুপুরে পিংলার বিজেপি প্রার্থী অন্তরা ভট্টাচার্যের সমর্থনে জনসভা করেন স্মৃতি। বাড় গোকুলপুর এলাকায় স্মৃতির সভায় অন্তরা ছাড়াও ছিলেন বিজেপি-র ঘাটাল সাংগঠনিক জেলার সভাপতি তন্ময় দাস। নিজের ভাষণে মমতার নাম না করে আক্রমণ করেন স্মৃতি। তৃণমূলের আমলে ত্রাণের টাকা নিয়ে দুর্নীতি করা হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি। স্মৃতির দাবি, ‘‘বাড়ির মেয়ে বাড়ির মানুষের চাল-ত্রিপল চুরি করেছে।’’ সেই সঙ্গে তাঁর প্রশ্ন, ‘‘১০ বছর আগে ক্ষমতায় আসার আগে দিদি বলেছিলেন পরিবর্তন করবে, কিন্তু কী পরিবর্তন করেছেন?’’

নীলবাড়ি দখলের লড়াইয়ে গেরুয়া শিবিরের তরফে ভোটপ্রচারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ-সহ একাধিক বিজেপি নেতা বাংলায় এসেছেন। গত সপ্তাহে এ রাজ্যে এসেছিলেন কেন্দ্রীয় বস্ত্র এবং নারী ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রী স্মৃতি। ১৪ মার্চ, রবিবার পুরুলিয়া এবং মেদিনীপুরে জনসভা করেন তিনি। তার পর থেকে প্রচারের কাজে রাজ্যে একাধিক জায়গায় গিয়েছেন। রবিবার বিষ্ণুপুর এবং পাথরপ্রতিমা বিধানসভা কেন্দ্রে জনসভা করেন স্মৃতি। সোমবার আসেন পিংলায়। এই জনসভায় গেরুয়া শিবিরের নির্বাচনী ইস্তাহারের প্রতিশ্রুতি ফের এক বার মনে করিয়ে দেন তিনি। সেই সঙ্গে তৃণমূলকে ক্ষমতাচ্যুত করে বিজেপি-র সরকার গড়ে বাংলা 'বাঁচানো'র ডাক দেন স্মৃতি। তাঁর কথায়, ‘‘আমরা বলছি পরিবর্তনের কথা। দিদি বলছে খেলা হবে। বাড়ির মেয়ে কি বাড়ির লোকের সঙ্গে খেলা করে? তুমি খেলা করছো বাংলার সঙ্গে, গরিবের সঙ্গে। তাই বলছি, দিদিকে হটাও, বাংলা বাঁচাও। বিজেপি-কে অনো।’’

Advertisement

তৃণমূল সরকার বাংলার কৃষকদের বঞ্চিত করেছে বলেও সোমবার অভিযোগ করেছেন স্মৃতি। কৃষকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘‘দিদি আপনাদের বঞ্চিত করেছে। কেন্দ্রের পাঠানো টাকা আপনাদের কাছে পৌঁছতে দেয়নি।’’ তাঁর অনুরোধ, ‘‘বাংলায় বিজেপি সরকার প্রতিষ্ঠিত করুন। সরকার প্রতিষ্ঠার একদিন পরেই আপনাদের ব্যাঙ্কে ১৮ হাজার টাকা পেয়ে যাবেন। গত ৩ বছরের টাকা একসঙ্গে পাবেন। যে টাকা নিতে বঞ্চিত করেছে দিদি, তা পেয়ে যাবেন।’’

Advertisement