Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২০ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

মেলার বাঁশি থেকে শুরু, আজও সুরেলা চর্চায় রয়েছেন গৌরব, প্রমাণ ভিডিয়োয়

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১১ এপ্রিল ২০২১ ২২:১৮
অভিনেতা গৌরব রায় চৌধুরী

অভিনেতা গৌরব রায় চৌধুরী

গৌরবের বাবা তখনও বেঁচে। তারকেশ্বরের মেলায় গিয়েছিলেন দু'জনে মিলে। সেখানেই বিক্রি হচ্ছিল বাঁশি। সেখান থেকেই কিনেছিলেন প্রথম বার। কিন্তু সেই বাঁশি বাজিয়ে মন ভরেনি। তার পরে লালবাজারে ঘুরে ঘুরে ভাল দেখে বাঁশি জোগাড় করে এনেছিলেন। ফের ভরসা ইউটিউব। শুরুতে তারও প্রয়োজন পড়েনি। মাউথ অর্গ্যান বাজাতেন বলে বাঁশি বাজাতে পারতেন অল্প স্বল্প। কিন্তু পরবর্তী কালে নিজেকে সেখানেই থামিয়ে রাখেননি। ইউটিউবে বিভিন্ন ভিডিয়ো দেখে দেখে চর্চায় ছিলেন ‘ওগো নিরুপমা’র আবির।

রবিবার তাঁর ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেন অভিনেতা গৌরব রায় চৌধুরী। বাঁশি বাজাচ্ছেন তিনি। সুরে রয়েছে রবীন্দ্রনাথের গান ‘আমার পরাণ যাহা চায়’। টেলি অভিনেতার এই গুণে মুগ্ধ নেটাগরিকরা।

Advertisement

তার পরেই গৌরবের সঙ্গে যোগাযোগ করল আনন্দবাজার ডিজিটাল। গৌরবের মুখেই তাঁর পরিবারের সঙ্গীতপ্রেমের গল্প শোনা গেল। তাঁর মা এবং মাসিরা গানের চর্চায় ছিলেন। বাড়িতে ছোট থেকেই গানবাজনা করার চল দেখেছেন গৌরব। মায়ের সঙ্গে বসে হারমোনিয়াম বাজাতেন তিনিও। ভালবাসাটা ছিলই। তবে মাঝে তৃতীয় ব্যক্তির মতো খেলা-প্রেমের আবির্ভাব, আর বিরতি।


টেবিল টেনিসে জেলা স্তরে ভাল ফলাফল করা সেই খুদে গৌরব পরবর্তী কালে ফের সুরের কাছে ফেরত যায়। আজ অভিনয় জীবনে সেই ধনগুলি কিছুই ফেলা যায়নি। বরং অতিরিক্ত মেধার পরিচয় দিয়েছে। যখনই সময় পান, বাঁশি নিয়ে বসেন গৌরব। অভিনেতার কথায়, ‘‘রিল ভিডিয়ো জিনিসটা আবিষ্কার হওয়ার পরে দেখলাম, ভাল কাজে ব্যবহার করাই যায়। আমার অনুরাগীদের আমার বাজানো সুর ভাল লাগে। তাই তাঁদের জন্য গান বাজনায় আরও উৎসাহ পেয়েছি। ভিডিয়ো করে পোস্ট করি মাঝে মাঝে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement