×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৯ মে ২০২১ ই-পেপার

এক ঢাল চুল কেমোর জন্য আজ আর নেই ঐন্দ্রিলার, সাহস জোগাতে চুলে কাঁচি সব্যসাচীর

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৯ মার্চ ২০২১ ১৬:৪৪
ঐন্দ্রিলা শর্মা এবং সব্যসাচী চৌধুরী।

ঐন্দ্রিলা শর্মা এবং সব্যসাচী চৌধুরী।

এক ঢাল চুল ছিল ঐন্দ্রিলা শর্মার। সেই চুল এখন আর নেই। ক্যানসারের চিকিৎসা করাচ্ছিলেন ঐন্দ্রিলা। এ বার অভিনেত্রীর পাশে থাকতে নিজের চুলও ছোট করে ফেললেন ঘনিষ্ঠ বন্ধু সব্যসাচী চৌধুরী। নেটমাধ্যমে দিলেন দু’জনের ছবি। ৫ মাস আগে পরের। লিখলেন, ‘৫ মাস আগে আর পরে মানুষের জীবন কতটা বদলে যেতে পারে’।

কী দেখা যাচ্ছে ছবিতে? পাশাপাশি দুটো ছবি। বাঁদিকে ৫ মাস আগে দু’জনে মাথাভর্তি চুল নিয়ে, ডানদিকে এখনকার ছবি। সেখানে ঐন্দ্রিলা ন্যাড়া আর সব্যসাচীর ছোট করে কাটা চুল। কিন্তু সব্যসাচীও চুল ছোট করে কাটালেন কেন? নেটাগরিকদের মত, ঐন্দ্রিলাকে ভরসা দিতেই।

২০১৬-য় প্রথম ক্যানসার ধরা পড়ে ঐন্দ্রিলার। এর পরে ফের এরই রোগে আক্রান্ত হন তিনি। প্রথম আক্রান্ত হয়েছিল শিরদাঁড়া। এ বার ফুসফুস। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তিনি ভর্তি হয়েছিলেন দিল্লির এক হাসপাতালে।

Advertisement

ফের ক্যানসার ফিরে এসেছে শোনার পরেই ভেঙে পড়েছিলেন ঐন্দ্রিলা। চিকিৎসা করাবেন না আর, এমনও জেদ ধরেছিলেন। তখনই তাঁকে বোঝাতে দিল্লি উড়ে যান সব্যসাচী। সেই দিন থেকে তিনি ঐন্দ্রিলার ছায়াসঙ্গী। কাছের, দূরের সবার সমর্থন পেয়ে ফের লড়াইয়ে ফিরেছেন অভিনেত্রী। আনন্দবাজার ডিজিটালের কাছে সেই সময় অকপটে জানিয়েছিলেন, ‘‘মানুষের যখন দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যায়, এ ভাবেই লড়াইয়ে ফেরে সে। আমারও সেই অবস্থা। জানি, ফিরতেই হবে। এবং ফিরতে পারবও।’’

ঐন্দ্রিলার লড়াই শুরু ৮ মার্চ নারী দিবসের দিনে। কেমোথেরাপির প্রথম ডোজ নেওয়ার পরে ওই দিন থেকে তিনি শ্যুট শুরু করেন সান বাংলায় ‘জিয়ন কাঠি’র। তখনই সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ‘‘কেমো নিয়ে আগের থেকে ভাল আছি। আর থেমে থাকতে রাজি নই।’’

Advertisement