আগামী গ্রীষ্মেই নাকি ছাদনাতলায় রণবীর-আলিয়া। শোনা যাচ্ছে, শুভবিবাহের লেহঙ্গাও অর্ডার দিয়ে দিয়েছেন আলিয়া ভট্ট। দীপিকা-প্রিয়ঙ্কা-অনুষ্কাকে সাজানো সব্যসাচী মুখোপাধ্যায়ের হাতেই সাজবেন আলিয়া। বিভিন্ন ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয়েছে,  ডিজাইনার সব্যসাচীর কাছেই পৌঁছে গিয়েছে মহেশকন্যার আব্দার। বিয়েতে চাই, জমকালো লেহঙ্গা। 

ডিজাইনার সব্যসাচীর পোশাকের প্রতি আলিয়ার দুর্বলতা নতুন নয়। এর আগে বিশেষ অনুষ্ঠান, পার্টি, ছবির শুভমুক্তি-সহ বিভিন্ন জায়গায় আলিয়াকে দেখা গিয়েছে সব্যসাচীর ডিজাইন করা লেহঙ্গা বা ফিউশন পোশাকে। তাই তিনিও ‘সব্যসাচী-ব্রাইড’ হতে চাইবেন, এতে আর আশ্চর্য কী !

আলিয়া আর রণবীর অনেক দিন ধরেই ডেট করছেন। দু’জনে কেউ প্রকাশ্যে স্বীকার করেননি সম্পর্কের কথা। তবে এ কথা বলতে দ্বিধা করেননি যে তাঁরা একে অন্যের কাছে ‘স্পেশাল’।

আরও পড়ুন: নিক ছাড়া আর কাদের সঙ্গে ইয়ট পার্টিতে মাতলেন প্রিয়ঙ্কা?

আরও পড়ুন : একুশে যোগ দেওয়ার ফোন এসেছিল, ধরিনি: রুদ্রনীল

 

দীপিকা-ক্যাটরিনার সঙ্গে দীর্ঘ প্রণয় ভেঙে যাওয়ার পরে আলিয়ার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন রণবীর। তাঁদের বিয়ে নাকি আটকে আছে রণবীরের বাবা ঋষি কপূরের চিকিৎসার জন্য। ক্যানসারের চিকিৎসার জন্য প্রবীণ অভিনেতা ঋষি এখন বিদেশে। তিনি সুস্থ হয়ে ফিরলে আগামী এপ্রিলে রণবীরের বিয়ের ফুল ফুটবে। বলিউডে গুঞ্জন এমনই।

সব্যসাচীর সূঁচ সুতো এর আগে অনেক তারকা কনের পোশাক বুনেছে। গত নভেম্বরে তাঁর তৈরি লেহঙ্গা পরে রণবীরকে সিন্ধি মতে বিয়ে করেছিলেন দীপিকা। স‌োশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ডিং হয়েছিল দীপিকার ‘সৌভাগ্যবতী ভবঃ’ ওড়না। তাঁর কোঙ্কণি বিয়ের জন্য সব্যসাচী অন্য একটি শাড়িকে নতুন করে সাজিয়েছিলেন।

তার কয়েকদিন পরেই বিয়ে করেছিলেন প্রিয়ঙ্কা চোপড়া। সব্যসাচী তাঁর জন্য বানিয়েছিলেন লাল টুকটুকে লেহঙ্গা। তাতে সোনালি জরিতে বোনা ছিল স্বামী নিক জোনাসের নাম। হিন্দিতে লেখা ছিল ‘নিকোলাস’।

তার আগে অনুষ্কার বিয়ের পোশাক তো নেটিজেনদের আলোচনার শীর্ষে উঠেছিল। প্যাস্টেল গোলাপি লেহঙ্গা জুড়ে ছিল মানানসই সুতোর কাজ। অনুষ্কার স্নিগ্ধ অথচ জমকালো সাজ নেটিজেনদের চোখে ‘অন্যরকম’ তকমা পেয়েছিল।