• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘রবি নিজেই নিয়মিত গাঁজা খেত’, বলিউড মাদক কাণ্ডে বিজেপি সাংসদকে তোপ অনুরাগের

anurag kashyap
অভিনেতা এবং বিজেপি সাংসদ রবি কিষাণকে এক হাত নিলেন পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ।

বলিউডের মাদকযোগে এ বার অভিনেতা এবং বিজেপি সাংসদ রবি কিষাণকে এক হাত নিলেন পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ। বলিউডে মাদকের যথেচ্ছ ব্যবহার নিয়ে লোকসভায় সরব হওয়া রবিকে অনুরাগ পাল্টা বললেন, একটা সময় রবি নিজেই নিয়মিত গাঁজা সেবন করতেন।

রবির মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে এক সাক্ষাৎকারে অনুরাগ বলেন, “আমার শেষ ছবি মুক্কাবাজে অভিনয় করেছেন রবি কিষণ। ‘জয় শিব শঙ্কর’, ‘জয় বাম ভোলে’ বলে দিন শুরু হতো ওঁর। আর সে সময়েই গাঁজা খেতেন রবি। নিয়মিত খেতেন। সারা দুনিয়া তাঁর এই অভ্যাসের কথা জানেন। ইন্ডাস্ট্রিতে এমন একজনও নেই, যার অজানা যে রবি গাঁজা খান না। হতে পারে এখন তিনি ছেড়ে দিয়েছেন। এখন উনি মন্ত্রী। হতে পারে নিজেকে ‘শুদ্ধ’ করেছেন তিনি।"

এই সপ্তাহের শুরুর দিকে লোকসভায় রবি বলেছিলেন, বলিউডে মাদকের যথেচ্ছ ব্যবহার হয়। এনসিবি-র প্রশংসা করে তিনি সরকারের কাছে মাদককাণ্ডে জড়িতদের খুঁজে বের করার অনুরোধও করেন। এখানেই থেমে যাননি অভিনেতা। দাবি করেন, ভারতের যুবসমাজকে ধ্বংস করার জন্য চিন এবং পাকিস্তানই নাকি এই নেশা ছড়িয়ে দিচ্ছে তাঁদের মধ্যে। এর পর জল অনেক দূর গড়ায়। রবির মন্তব্যের প্রতিবাদ করেন সমাজবাদী পার্টির সাংসদ অভিনেত্রী জয়া বচ্চন। রবির বিরুদ্ধেও তাঁর প্রধান অভিযোগ ছিল, কয়েক জনের জন্য বলিউডকেই বদনাম করছেন সাংসদ-অভিনেতা। সাবধানী রবি পাল্টা বলেন, “আমি আশা করেছিলাম জয়াজি আমার সঙ্গে একমত হবেন। এত বড় ইন্ডাস্ট্রিতেই নিশ্চয়ই প্রত্যেকে মাদকাসক্ত নন। তবে যাঁরা এই কাজ করছেন, তাঁরা ইন্ডাস্ট্রিকে ধ্বংসের পথে নিয়ে যাচ্ছেন।”

আরও পড়ুন- রিয়া-সারা নয়, সুশান্ত সময় কাটাতে চেয়েছিলেন এই বলি নায়িকার সঙ্গে, ফাঁস হাতেলেখা কাগজ

তবে রবি-জয়ার তরজা শুধুমাত্র তাঁদের মধ্যেই থেমে থাকেনি। রবির সমর্থনে এগিয়ে এসে সুদূর হিমাচল থেকেই কঙ্গনা রানাউত টুইটবাণে বিদ্ধ করেন জয়াকে। প্রশ্ন করেন, “আমার জায়গায় আপনার মেয়ে শ্বেতাকে যদি বলিউডে হেনস্থা হতে হত, মাদক নিতে বাধ্য করা হত, শারীরিক নির্যাতন করা হত, তা হলেও কি আপনি একই ভাবে বলিউডকে সমর্থন করতেন?” জয়ার স্বপক্ষে এগিয়ে আসেন সোনম, তাপসী, ঊর্মিলারা। কঙ্গনাও থেমে থাকেননি। তাঁর একের পর এক টুইটে যখন বাজার গরম ঠিক সেই সময়েই তিনি এক সাক্ষাৎকারে প্রাক্তন কংগ্রেস নেত্রী ঊর্মিলা সম্পর্কে বলেন, “ঊর্মিলা সফট পর্ণ অভিনেত্রী”। এর পরেই ঊর্মিলার পক্ষে গর্জে ওঠে বলিউডের একাংশ। টুইট, পাল্টা টুইট, কাদা ছোড়াছুঁড়ি, সব মিলিয়ে অশান্ত হয়ে ওঠে ইন্ডাস্ট্রি। বিজেপি সাংসদ রবি কিষাণের মন্তব্যের বিরুদ্ধে সমাজবাদী পার্টি সাংসদ জয়ার তোপ, বিজেপি ঘনিষ্ঠ কঙ্গনার জয়াকে উদ্দেশ্য করে টুইটবাণ এবং প্রাক্তন কংগ্রেস নেত্রী ঊর্মিলা মাতণ্ডকরের জয়ার পাশে দাঁড়িয়ে কঙ্গনার বিরাগভাজন হওয়া... প্রশ্ন উঠতে থাকে সবটাই কি পরিকল্পনামাফিক ‘রাজনীতি’?

আরও পড়ুন- ‘যুদ্ধ শেষ করব আমিই’, কঙ্গনার হুঁশিয়ারি, পাল্টা মুখ খুললেন ঊর্মিলাও

এত সবের মধ্যেই আজ রবি কিষাণ সম্পর্কে অনুরাগের এই বক্তব্য। যদিও অনুরাগ বলেন, “আমি রবিকে জাজ করছি না। আমার ব্যক্তিগত ভাবে গাঁজাকে মাদক বলে মনে হয় না। কিন্তু আমার বক্তব্য হল ও তো নিজেও গাঁজা নিত বা নেয়। আর সে জন্য ও কাজকেও কোনওদিন অবহেলা করেনি। গাঁজা রবিকে দৈত্যে পরিণত করেনি। তাই হঠাৎ করেই বলিউড সম্পর্কে এ সব বলা উচিৎ না”।

বলিউড মাদক বিতর্কে দিন কয়েক আগে ট্রোলড হয়েছিলেন অনুরাগ নিজেও। শোনা গিয়েছিল তিনি নিয়মিত চরস নেন। তাঁর জন্মদিনে টুইটারে ট্রেন্ড হচ্ছিল #হ্যাপি বার্থডে চরসী। যদিও অনুরাগ এ দিন বলেন, তিনি জীবনে কোনও দিন গাঁজা খাননি। তিনি সিগারেট খান রোল করে। আর সে জন্যই অর্ধেক লোকের ধারনা তিনি 'সিগারেট পেপারে' মুড়ে গাঁজা নিচ্ছেন। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন