Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Serial: ভাঙল আড়াই বছরের প্রেম, নিরুপমা ও ভূপালের মাঝে তৃতীয় পুরুষ হিসেবে গৌরবের আগমন?

শিল্পীরা তাঁদের প্রেম ও বিচ্ছেদ নিয়ে কে কী বললেন? গৌরবের ভূমিকাই বা কী?

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৫ জুন ২০২১ ১৬:২৫
Save
Something isn't right! Please refresh.
ত্রিকোণ প্রেমে অর্কজা-গৌরব-বিশ্বাবসু?

ত্রিকোণ প্রেমে অর্কজা-গৌরব-বিশ্বাবসু?

Popup Close

বন্ধুত্ব ৭ বছরের। প্রেম আড়াই বছরের। খ্যাতিলাভের পরে নেটমাধ্যমে কখনওই সে ভাবে নিজেদের প্রেম উদযাপনের সুযোগ পাননি তাঁরা। যখন সুযোগ এল, সম্পর্ক গেল ভেঙে। দু’জনেই টেলিপাড়ার পরিচিত মুখ। এক জন ‘ওগো নিরুপমা’ ধারাবাহিকের নায়িকা অর্কজা আচার্য। আর এক জন ‘করুণাময়ী রাণী রাসমণি’ ও ‘মিঠাই’-এর অভিনেতা বিশ্বাবসু বিশ্বাস। যথাক্রমে এই দুই ধারাবাহিকে ‘ভূপাল’ এবং ‘সন্দীপ’-এর চরিত্রে অভিনয় করেন অভিনেতা। নিরুপমা ও ভূপাল অথবা সন্দীপের প্রেম গাঁথায় ইতি পড়েছে বলে গুঞ্জন টেলিপাড়ায়।

আনন্দবাজার ডিজিটাল অর্কজা ও বিশ্বাবসুর সঙ্গে যোগাযোগ করলে তাঁরা কেউই বিচ্ছেদ নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি নন। অর্কজা জানালেন, তাঁরা এখনও বন্ধু। ভবিষ্যতে কাজ করতে হলেও তাঁর কোনও অসুবিধা নেই। সম্পর্ক নিয়ে তিনি এখন কিছু ভাবতেই রাজি নন। অর্কজার ভাষায়, ‘‘লকডাউন, ধারাবাহিকের ভবিষ্যৎ নিয়েই খুব চিন্তায় আছি। এটা আমার প্রথম ধারাবাহিক। তাই এর বাইরে আপাতত অন্য কোনও বিষয় নিয়ে মাথা ঘামাতে চাই না।’’ একই ভাবে বিশ্বাবসুও প্রেম অথবা বিচ্ছেদ নিয়ে কথা বলতে চান না। তবে তাঁর কথায়, ‘‘অর্কজা আমার বহু দিনের বন্ধু ও সহকর্মী। ভবিষ্যতে একসঙ্গে কাজ করার পরিকল্পনাও রয়েছে।’’

Advertisement
অর্কজা ও বিশ্বাবসু

অর্কজা ও বিশ্বাবসু


ভূপাল অর্থাৎ বিশ্বাবসুর নেটমাধ্যম জুড়ে দু’জনের একসঙ্গে পাহাড়ে বেড়ানোর অথবা ‘ডেট’-এ যাওয়ার ছবি ভর্তি ছিল এক সময়ে। তাঁর ফ্যানপেজেও যুগলের ছবি নজরে আসত। কিন্তু অর্কজা ‘নিরুপমা’ হিসেবে পর্দায় পা রাখার পরেই সেই সব ছবি উধাও হয়ে যায়। নেটমাধ্যম থেকে অর্কজার বিভিন্ন প্রোফাইলও উড়ে যায়। তার ৬ মাস পরে জানা যায় স্টার জলসার সঙ্গে চুক্তির কারণে নিজের সাধারণ ছবি সামনে আনায় নিষেধাজ্ঞা ছিল। কিন্তু ফিরে আসার পর থেকে অর্কজার কোনও ছবিতে বিশ্বাবসুকে দেখা যাচ্ছিল না। অন্য দিকে বিশ্বাবসুর কোনও প্রোফাইলে অর্কজার ছবি দেখা যায়নি। তখন থেকেই স্টুডিয়ো-পাড়ায় তাঁদের বিচ্ছেদের কথা শোনা যায়। এমনকি দেবলীনা কুমার এবং গৌরব চট্টোপাধ্যায়ের বিয়েতেও তাঁরা একসঙ্গে গিয়েছিলেন। তার পর থেকে যুগলকে একসঙ্গে দেখতে পাওয়া যায়নি কোনও অনুষ্ঠানে।

এরই মাঝে কাটা ঘায়ে নুনের ছিটের ভূমিকা পালন করেছে জি বাংলার ‘দিদি নম্বর ওয়ান’। লকডাউনে শ্যুটের ব্যাঙ্কিং না থাকার ফলে শুক্রবার যে পর্ব সম্প্রচারিত হয়েছে, তা আসলে মাস কয়েক আগের পর্ব। সেখানে অতিথি হিসেবে বিশ্বাবসু অংশগ্রহণ করেছিলেন। নিজের প্রেম জীবন সম্পর্কেও তিনি জানিয়েছিলেন গর্বের সঙ্গে। নাম না করে যাঁর কথা বলেছিলেন, তা অর্কজা। কিন্তু তখন অর্কজার সঙ্গে চ্যানেলের চুক্তির কারণে তাঁর নাম ফাঁস করতে পারেননি তিনি। কিন্তু পুরনো সেই পর্ব যখন সম্প্রচারিত হল, তখন গল্পের মোড় গিয়েছে ঘুরে। বিশ্বাবসু এবং অর্কজার প্রেমে ইতি পড়েছে। সেই সম্পর্ক আর নেই।

গৌরব ও শ্রীমা

গৌরব ও শ্রীমা


তাঁদের সম্পর্ক ছিন্ন হওয়ার পরেও কয়েক মাস কেটে গিয়েছে। কিন্তু সম্প্রতি অর্কজার সঙ্গে তাঁর নায়ক অর্থাৎ ‘ওগো নিরুপমা’ ধারাবাহিকের আবির ওরফে গৌরব রায়চৌধুরীর ‘বিশেষ বন্ধুত্ব’ নিয়ে জল্পনা চলছে। যদিও এই তথ্যকে ‘রটনা’ বলে উড়িয়ে দিয়েছেন অর্কজা। অভিনেত্রী বললেন, ‘‘আমরা একসঙ্গে কাজ করি। এক প্রকার যোগাযোগ রয়েছেই আমাদের। সুন্দর বন্ধুত্বও রয়েছে। কিন্তু এর বাইরে কে কী বলছে, তা নিয়ে ভাবতে চাই না এখন।’’

শুক্রবারই গৌরবের প্রাক্তন প্রেমিকা শ্রীমা ভট্টাচার্য আনন্দবাজার ডিজিটালকে বলেছেন, ‘‘গত অক্টোবর থেকে গৌরবের সঙ্গে কোনও যোগাযোগ নেই আমার।’’ তিনিও গৌরবকে নিয়ে এর থেকে বেশি কোনও কথা বলতে চান না। তবে কি পর্দার নায়ক-নায়িকার মধ্যে গড়ে উঠছে নতুন কোনও সম্পর্ক? অন্য দিকে বিশ্বাবসুও এখন অর্কজার জীবনে কেবলই এক জন সহকর্মী ও বন্ধু হিসেবেই জায়গা করে নিয়েছেন।



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement