×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১২ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

আইসক্রিম খেতে গিয়ে দেড় ঘণ্টা শ্যুটিং করেননি মধুমিতা!

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২১ ডিসেম্বর ২০২০ ২০:০৯
ত্রয়ীর দাবি, ২৫ ডিসেম্বর সত্যিই চিনির মতো মিষ্টি উপহার পেতে চলেছেন দর্শক।

ত্রয়ীর দাবি, ২৫ ডিসেম্বর সত্যিই চিনির মতো মিষ্টি উপহার পেতে চলেছেন দর্শক।

আইসক্রিম খাওয়ারই শট ছিল। মা, বয়ফ্রেন্ডকে নিয়ে চিনি আইসক্রিম খাবে। তার তোড়জোড় চলছে। হঠাৎ ‘চিনি’ ওরফে মধুমিতা সরকার খেয়াল করলেন, তাঁর কস্টিউমে বড় গলদ!

কী করবেন? ঠিক করলেন নিজেই গিয়ে সমস্যা মিটিয়ে আসবেন। পরিচালক মৈনাক ভৌমিককেই শুধু জানিয়েছিলেন, একটু সমস্যা হয়েছে। তিনি সেটা সামলাতেই বেরোচ্ছেন। বাকিরা কিচ্ছু জানেন না। ফলে, মধুমিতা বাইরে যাওয়ার জন্য পা বাড়াতেই স্পটের এক জন জানতে চাইলেন, ‘‘কোথায় যাচ্ছ?’’

মাথায় ঘুরছে আইসক্রিম খাওয়ার দৃশ্য। মধুমিতাও ঝট করে বলে দিয়েছেন, ‘‘আইসক্রিম খেতে যাচ্ছি।’’ ৪৫ মিনিট পরে সেটে ঢুকে তাঁর চোখ কপালে! শ্যুটিং স্পটে শোরগোল, মধুমিতার এত ট্যানট্রাম! আইসক্রিম খেতে গিয়ে দেড় ঘণ্টা শ্যুট করলেন না?

Advertisement

এসভিএফ প্রযোজিত মৈনাক ভৌমিকের ‘চিনি’ মুক্তি পাচ্ছে বড় দিনে। সেই ছবির অভিনেতা অপরাজিতা আঢ্য, সৌরভ দাস আর মধুমিতা সরকার সোমবার সন্ধেয় লাইভ আড্ডায় এসেছিলেন। সেখানেই তাঁরা ফাঁস করলেন ছবির সামনে-পিছনের অনেক গপ্পো।

আরও পড়ুন: ‘তদন্ত এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কি আমাকে মরতে হবে?’, ফের বিস্ফোরক পায়েল ঘোষ

যেমন? অপরাজিতা জানালেন, তিনি সম্ভবত সবার নাকে স্যানিটাইজার ঢালতে বাকি রেখেছিলেন। সারা ক্ষণ সবাইকে স্যানিটাইজার দিয়ে প্রায় স্নান করিয়েছেন। ইউনিটের লোকেরা একটা সময়ের পর অধৈর্য হয়ে তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা করেছেন, ‘‘কিছু হবে না অপাদি। তুমি নিশ্চিন্তে কাজ কর।’’

আড্ডায় তাই ‘মিষ্টি’র আক্ষেপ, ‘‘এত করেই বা কী হল! সেই আমার-ই করোনা হল।’’

সৌরভ জানালেন, মধুমিতার আরও একটি বিষয় নিয়ে সবাই ভীষণ বিভ্রান্ত, ‘‘কী করে ওই মেয়ে এত রোগা?’’ অভিনেতা পিঙ্কি বন্দ্যোপাধ্যায়ও নাকি জানতে চেয়েছিলেন সৌরভের কাছে। শেষে এক দিন লাঞ্চের সময় খাবার অর্ডার দিতে গিয়ে অভিনেতা জানতে পারেন, মধুমিতা সারা দিন ভাত খান না! বেশির ভাগ সময় ছাতুর সরবত খেয়েই পেট ভরান।

আরও পড়ুন: অমিত শাহ ট্যুরিস্ট, মন্তব্য নুসরতের, ট্যুইটারে লিখলেন বিজেপির দ্বারা হবে না!

পরিচালকের সৌজন্যে এই প্রথম স্ক্রিন শেয়ার করলেন অপরাজিতা-সৌরভ-মধুমিতা। তিন জনই এই বিষয়ে একমত, ‘‘এই প্রথম এক সঙ্গে কাজ করলেও দুর্দান্ত রসায়ন তৈরি হয়ে গিয়েছিল চিত্রনাট্যের খাতিরে। কারণ, নিজের জীবনে বা সবার বাড়িতে রোজ যা ঘটে সেটাই দেখাবে ‘চিনি’। মা-মেয়ের সম্পর্ক, গার্হস্থ্য হিংসা, কমিটমেন্ট ফোবিয়া। এই সমস্তই সবার ভীষণ জানা।’’

তাই ত্রয়ীর দাবি, ২৫ ডিসেম্বর সত্যিই চিনির মতো মিষ্টি উপহার পেতে চলেছেন দর্শক। যে ‘চিনি’ তাঁদের হাসাবে, কাঁদাবে, ভাবাবেও।

Advertisement