নাটক ও যাত্রায় অভিনয় করতে একাধিক বার কোচবিহারে গিয়েছেন সুপ্রিয়া দেবী। তাই কোচবিহারের নাট্যমহলে শোকের ছায়া নামে। শনিবার সকাল থেকে দিনভর তা নিয়ে স্মৃতিচারণ চলে নাট্যমহলে। নাট্য ব্যক্তিত্বদের অনেকের স্মৃতিতে থাকা ঘটনা উঠে আসে।

আশির দশকে ‘সব ঠিক হ্যায়’ নাটকে অভিনয় করতে কোচবিহারে যান সুপ্রিয়া দেবী। রামভোলা স্কুলের মাঠে ওই নাটক হয়েছিল। আগে যাত্রা করতেও জেলায় গিয়েছেন তিনি।

কোচবিহারের নাট্য ব্যক্তিত্ব দীপায়ন ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘সম্ভবত ১৯৮৪-৮৫ সালে ওই নাটক হয়েছিল। তার আগে একটি যাত্রা করতেও উনি এসেছিলেন।’’

সুপ্রিয়ার জনপ্রিয়তা তখন তুঙ্গে। সেই সময়ে গিফট এবং ট্রাভেলার্স চেকের চল ছিল। এক বার সাগরদিঘি পাড়ে একটি ব্যাঙ্কে তিনি তেমনই একটি চেক ভাঙাতে যান। তাঁকে এক বার দেখতে তখন ব্যাঙ্কের সামনে ভিড় উপচে পড়ে, বলছিলেন প্রবীণরা।

কোচবিহার কম্পাস নাট্য সংস্থার দেবব্রত আচার্য জানান, ঘটনাটা তাঁর স্পষ্ট মনে আছে। বছর আঠারো বয়স ছিল দেবব্রতের। অভিনেত্রীকে কাছ থেকে দেখার জন্য তিনিও হুড়োহুড়ি করেন। পরে সে সুযোগ এসে যায় কলকাতায় একটি স্টুডিওয় গিয়ে। দেবব্রতবাবু বলেন, ‘‘খুব কাছ থেকে দেখেছিলাম সে দিন। পাশে দাঁড়িয়ে শুনেছিলাম, পরিচিত এক জনের সঙ্গে তিনি সিনেমা নিয়েই আলোচনা করছিলেন।’’