×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

টিআরপি তালিকায় ‘কে আপন কে পর’-কে পিছনে ফেলল ‘শ্রীময়ী’

মৌসুমী বিলকিস
কলকাতা ২৪ অক্টোবর ২০১৯ ১৬:৪৭
পল্লবী শর্মা এবং বিশ্বজিৎ ঘোষ

পল্লবী শর্মা এবং বিশ্বজিৎ ঘোষ

‘কে আপন কে পর’ ধারাবাহিকে জবার জীবন শুরু হয়েছিল খুবই সাধারণ এক মেয়ে হিসেবে। ধীরে ধীরে মেধার জোরে নিজের অবস্থা পাল্টায় সে। সাধারণ মেয়ে থেকে অসাধারণ হয়ে ওঠে। জবা এই মুহূর্তে কী করছে? তার জীবনে পরমের অবস্থানই বা কী?

জবার ভূমিকায় পল্লবী শর্মা বললেন, “জবা আগে ছিল উকিল। এখন সে বিচারপতি হয়েছে। তন্দ্রা (খলনায়িকা) অন্য পরিচয়ে জবার বাড়িতে এত দিন ছিল বন্ধু সেজে। জবা সেটা আঁচ করতে পেরেছে। আমাদের গল্পে দুর্গাপুজো শুরু হচ্ছে। পুজোর দিনগুলোতে তন্দ্রাকে ধরে ফেলবে জবা এবং পুজোর পর জবা অ্যাজ আ জাজ, হাইকোর্টে জয়েন করবে। জবার জীবনে এখন একটাই লক্ষ্য, তন্দ্রাকে শাস্তি পাইয়ে দেওয়া আর হাইকোর্টের জাজ হিসেবে ভাল ভাবে নিজের দায়িত্ব পালন করা।”

পরম কী করছে গল্পে? পরমের ভূমিকায় বিশ্বজিৎ ঘোষ বললেন, “পরম কোনও দিনই কিছু করেনি। যা করার জবা করেছে। পরম শুধু সাপোর্ট করে গিয়েছে।”

Advertisement

আরও পড়ুন: ৫ কোটির প্রতারণা! কোরিওগ্রাফার রেমো ডিসুজার বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি



জবার ভূমিকায় পল্লবী শর্মা

টেলিভিশনের প্রায় সব গল্পে মেয়েরাই প্রোটাগনিস্ট। কী মনে হয়? বিশ্বজিৎ অভিব্যক্তিহীন, “মনে হওয়ার কিছু নেই। সিরিয়ালের গল্প মা-মাসি-পিসিদের জন্য। এদের বেশি প্রাধান্য দিয়ে গল্প হবে, সেটাই ন্যাচারাল। মাধ্যমটাই তাঁদের স্বপ্ন দেখানোর। জবার মধ্যেও তাঁরা সেই স্বপ্নটা দেখেন। প্রায় প্রত্যেকটা সিরিয়ালে সে জন্য মেয়েরাই প্রোটাগনিস্ট। সিনেমায় আবার ব্যাপারটা পুরো উল্টো।”

পল্লবীর জীবন কেমন চলছে? পল্লবী বললেন, “পল্লবীর জীবন খুব ভাল চলছে। যেমন চলছিল তেমনই চলছে। ‘কে আপন কে পর’-ই চলছে। এটা শেষ না হলে পল্লবীর জীবনে চেঞ্জ হওয়ার তেমন কিছু নেই। একটা সিরিয়াল এত দিন চলছে এবং এত ভাল টিআরপি... সেটা তো অবভিয়াসলি ভীষণ গর্বের কথা।”



স্টার জলসায় টিআরপি তালিকায় প্রথম স্থানে ‘শ্রীময়ী’

আরও পড়ুন: বলিউডে হাতেখড়ি আমির খানের দিদি নিখতের, প্রথম ছবির মুক্তি আসন্ন

Advertisement