• স্বরলিপি ভট্টাচার্য
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

লোকনাথ কে? ‘উনি ধ্যান করতেন’, উত্তর পর্দার লোকনাথের

Loknath
শুটিং ব্রেকে অরণ্য।

গায়ে সাদা ফতুয়া, সাদা ধুতি। মাথায় উইগ। বছর আটেকের খুদে দৌড়চ্ছে শুটিং সেটে। কখনও ক্যাচ প্র্যাকটিস। কখনও বা বেস্ট ফ্রেন্ড বেণীর সঙ্গে খেলা। তবে শটের জন্য ডাকলেই সে সিরিয়াস। তখন সে যেন সত্যি সত্যিই ‘বাবা লোকনাথ’।

সে, অর্থাত্ অরণ্য রায়চৌধুরী। এই মুহূর্তে টেলিভিশনের জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘জয় বাবা লোকনাথ’-এর খুদে লোকনাথ।

লোকনাথ কে?
বাবা লোকনাথের চরিত্রে অরণ্য অভিনয় করছে এ কথা ঠিক। কিন্তু বাবা লোকনাথ কে, সে বিষয়ে খুব একটা ধারণা নেই তার। লোকনাথ কে, জানতে চাইলে অরণ্যর কাছ থেকে উত্তর এল, ‘‘উনি ধ্যান করতেন। মহাযোগী ছিলেন। সাধনা করতেন।’’

আরও পড়ুন, ‘আমাকে শুনতে হয়েছিল, কীর্তন? কী হবে এটা করে?’

আইডিয়া ছিল না
আট বছর বয়সে ইতিমধ্যেই একটা সিনেমা এবং একটি বিজ্ঞাপনে কাজ করেছে অরণ্য। তবে শুটিং জিনিসটা কী, জানতে চাইলে সে বলল, ‘‘আগে জানতাম না। এখানে এসে দেখেছি। কোনও আইডিয়া ছিল না।’’ এই উত্তর শুনে হাসতে শুরু করলেন টিমের বাকি সদস্যরা।

শুটিংয়ের ফাঁকে পড়া
অরণ্য ক্লাস থ্রি-র পড়ুয়া। কৃষ্ণনগরের এমটিএম সেন্ট্রাল মর্ডান স্কুলের ছাত্র। এই মুহূর্তে শুটিংয়ে ব্যস্ত থাকার জন্য কৃষ্ণনগর ছেড়ে কুঁদঘাটে মায়ের সঙ্গে থাকছে অরণ্য। স্কুলেও যাওয়া হচ্ছে না। তবে শুটিংয়ের ফাঁকে মা নাকি অরণ্যকে পড়াচ্ছেন নিয়ম করে।


অরণ্যর মায়ের ভূমিকায় অভিনয় করছেন সৌমিলি।

ফেভারিট ড্রয়িং
কোন সাবজেক্ট ভাল লাগে? ক্লাস থ্রি-র ঝটিতি জবাব, ‘‘সায়েন্স।’’ তবে তার থেকেও ভাল লাগে ড্রয়িং। আর খেলা অরণ্যর অল টাইম ফেভারিট। ‘জয় বাবা লোকনাথ’-এর টিমের এক সদস্য বললেন, ‘‘প্রত্যেকটা শটের মাঝে বাইরে গিয়ে খেলে আসে অরণ্য। ওর অফুরন্ত এনার্জি। কিন্তু কাজের ব্যাপারে ও খুব সিরিয়াস।’’

আরও পড়ুন, নচিকেতার গানটা কি আপনাকে নিয়ে লেখা? রাজশ্রী বললেন...

ভাল হচ্ছে, আরও ভাল হবে
অরণ্য ডিরেক্টরের বাধ্য ছাত্র। তাঁর কথামতো সব কাজ করে অনস্ক্রিনের লোকনাথ। তোমাকে কী বলেন পরিচালক? ‘‘পজিশন ঠিক করতে বলে। আস্তে আস্তে ডায়লগ ঠিক করতে বলে। আর বলে, ভাল হচ্ছে, আরও ভাল হবে,’’ খুব গম্ভীর মুখে বলল অরণ্য।

খুদে অভিনেতার পছন্দ চিজ স্যান্ডউইচ। ‘জয় বাবা লোকনাথ’-এর সেট দিনভর মাতিয়ে রেখেছে সে। অনস্ক্রিন তাকে যেমন পছন্দ করছেন দর্শক, অফস্ক্রিনেও সে সকলের প্রিয়। স্কুলের বন্ধুরা দেখে বলেছে, ভাল হচ্ছে। ব্যস, আর কিছু চাই না অরণ্যর। এর থেকে আর বেশি কিছু ভাবতেও চায় না সে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন