Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

অস্কার মঞ্চে সকলের মন জয় করল সানি

সংবাদ সংস্থা
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ১৮:৫৯

বয়স আট। ছাপোষা চেহারায় আলাদা করে চিনিয়ে দেয় হাসিটা। সেই হাসি দিয়েই সে জয় করে নিল অস্কারের মঞ্চ। সে অর্থাত্ মুম্বইয়ের একরত্তি অভিনেতা সানি পওয়ার। গার্থ ডেভিস পরিচালিত ‘লায়ন’ ছবির সারু। এই ছবির হাত ধরেই সানির অস্কার যাত্রা।

আরও পড়ুন, ইশারায় সাড়া দিয়ে একরত্তি ছেলের অস্কার যাত্রা

Advertisement

স্নিকার্সের সঙ্গে ব্লেজার অভিনেতা অ্যান্ড্রু গারফিল্ডের হাত ধরে সানি যখন অস্কারের রেড কার্পেটে গিয়ে দাঁড়াল তখন সব ক্যামেরার ফোকাস ছিল তার দিকেই। অথচ কেবল কানেকশনের সমস্যার জন্য ছেলেকে টিভিতে বাড়ির লোকেরা দেখতেই পাননি! তবে সোমবার সকালে ফোনে ছেলের সঙ্গে কথা হয়েছিল মা বাসু পওয়ার। ছেলে জানিয়েছিল রেড কার্পেটে যাওয়ার আগে সে একটুও নার্ভাস নয়। বাসুর কথায় ‘‘সানির বাবা আমাকে বলে দিয়েছিলেন কোন চ্যানেলে ছেলেকে দেখা যাবে। কিন্তু কেবল কানেকশন ছিল না। আমরা দেখতে পাইনি। তবে আশা করছি খুব তাড়াতাড়ি সকলে একসঙ্গে বসে ওকে টিভিতে দেখব।’’ বাড়ি বলতে মুম্বইয়ের সান্তাক্রুজ এলাকার এক বস্তি। সেখানেই সানিদের দু’কামরার ঘর। বাবামা দুই ঠাকুমা কাকা খুড়তুতো ভাইবোনেদের নিয়ে ভরা সংসার। গত কাল সারা দিন ধরেই ফোন বেজে চলেছে। ঘরের ছেলে তো এখন সেলিব্রিটি। সানির বাবা দিলীপ বললেন ‘‘সারা পৃথিবী ওকে সেলিব্রিটি বলছে। কিন্তু আমার কাছে সানি আমার ছেলেই। এত ফোন আসছে আজ! ওকে খুব মিস করছি। যখন শেষ বার কথা হল বেশ উত্তেজিত মনে হল ওকে। ছবির প্রোমশনে বাড়ির বাইরে অনেক দিন রয়েছে। আমি নিশ্চিত এ বার বাড়ির জন্য ওরও মন কেমন করবে!’’ অস্কারমঞ্চে পৌঁছে তাবড় তাবড় সেলেবদের প্রশংসা পেয়েছে সানি। তাকে রেড কার্পেটে দেখে জড়িয়ে ধরেছেন ক্রিসি তেইগান। স্যামুয়েল জ্যাকসন সানির সঙ্গে ছবি পোস্ট করে লিখেছিলেন সানিরই সেরা অভিনেতার পুরস্কার পাওয়া উচিত।

বাড়ি বলতে মুম্বইয়ের সান্তাক্রুজ এলাকার এক বস্তি। সেখানেই সানিদের দু’কামরার ঘর। বাবামা দুই ঠাকুমা কাকা খুড়তুতো ভাইবোনেদের নিয়ে ভরা সংসার। গত কাল সারা দিন ধরেই ফোন বেজে চলেছে। ঘরের ছেলে তো এখন সেলিব্রিটি। সানির বাবা দিলীপ বললেন ‘‘সারা পৃথিবী ওকে সেলিব্রিটি বলছে। কিন্তু আমার কাছে সানি আমার ছেলেই। এত ফোন আসছে আজ! ওকে খুব মিস করছি। যখন শেষ বার কথা হল বেশ উত্তেজিত মনে হল ওকে। ছবির প্রোমশনে বাড়ির বাইরে অনেক দিন রয়েছে। আমি নিশ্চিত এ বার বাড়ির জন্য ওরও মন কেমন করবে!’’

অস্কারমঞ্চে পৌঁছে তাবড় তাবড় সেলেবদের প্রশংসা পেয়েছে সানি। তাকে রেড কার্পেটে দেখে জড়িয়ে ধরেছেন ক্রিসি তেইগান। স্যামুয়েল জ্যাকসন সানির সঙ্গে ছবি পোস্ট করে লিখেছিলেন সানিরই সেরা অভিনেতার পুরস্কার পাওয়া উচিত।


স্নিকার্সের সঙ্গে ব্লেজার অভিনেতা অ্যান্ড্রু গারফিল্ডের হাত ধরে সানি যখন অস্কারের রেড কার্পেটে গিয়ে দাঁড়াল তখন সব ক্যামেরার ফোকাস ছিল তার দিকেই। অথচ কেবল কানেকশনের সমস্যার জন্য ছেলেকে টিভিতে বাড়ির লোকেরা দেখতেই পাননি! তবে সোমবার সকালে ফোনে ছেলের সঙ্গে কথা হয়েছিল মা বাসু পওয়ার। ছেলে জানিয়েছিল রেড কার্পেটে যাওয়ার আগে সে একটুও নার্ভাস নয়। বাসুর কথায় ‘‘সানির বাবা আমাকে বলে দিয়েছিলেন কোন চ্যানেলে ছেলেকে দেখা যাবে। কিন্তু কেবল কানেকশন ছিল না। আমরা দেখতে পাইনি। তবে আশা করছি খুব তাড়াতাড়ি সকলে একসঙ্গে বসে ওকে টিভিতে দেখব।’’ বাড়ি বলতে মুম্বইয়ের সান্তাক্রুজ এলাকার এক বস্তি। সেখানেই সানিদের দু’কামরার ঘর। বাবামা দুই ঠাকুমা কাকা খুড়তুতো ভাইবোনেদের নিয়ে ভরা সংসার। গত কাল সারা দিন ধরেই ফোন বেজে চলেছে। ঘরের ছেলে তো এখন সেলিব্রিটি। সানির বাবা দিলীপ বললেন ‘‘সারা পৃথিবী ওকে সেলিব্রিটি বলছে। কিন্তু আমার কাছে সানি আমার ছেলেই। এত ফোন আসছে আজ! ওকে খুব মিস করছি। যখন শেষ বার কথা হল বেশ উত্তেজিত মনে হল ওকে। ছবির প্রোমশনে বাড়ির বাইরে অনেক দিন রয়েছে। আমি নিশ্চিত এ বার বাড়ির জন্য ওরও মন কেমন করবে!’’

স্নিকার্সের সঙ্গে ব্লেজার অভিনেতা অ্যান্ড্রু গারফিল্ডের হাত ধরে সানি যখন অস্কারের রেড কার্পেটে গিয়ে দাঁড়াল তখন সব ক্যামেরার ফোকাস ছিল তার দিকেই। অথচ কেবল কানেকশনের সমস্যার জন্য ছেলেকে টিভিতে বাড়ির লোকেরা দেখতেই পাননি! তবে সোমবার সকালে ফোনে ছেলের সঙ্গে কথা হয়েছিল মা বাসু পওয়ার। ছেলে জানিয়েছিল রেড কার্পেটে যাওয়ার আগে সে একটুও নার্ভাস নয়। বাসুর কথায় ‘‘সানির বাবা আমাকে বলে দিয়েছিলেন কোন চ্যানেলে ছেলেকে দেখা যাবে। কিন্তু কেবল কানেকশন ছিল না। আমরা দেখতে পাইনি। তবে আশা করছি খুব তাড়াতাড়ি সকলে একসঙ্গে বসে ওকে টিভিতে দেখব।’’ বাড়ি বলতে মুম্বইয়ের সান্তাক্রুজ এলাকার এক বস্তি। সেখানেই সানিদের দু’কামরার ঘর। বাবামা দুই ঠাকুমা কাকা খুড়তুতো ভাইবোনেদের নিয়ে ভরা সংসার। গত কাল সারা দিন ধরেই ফোন বেজে চলেছে। ঘরের ছেলে তো এখন সেলিব্রিটি। সানির বাবা দিলীপ বললেন ‘‘সারা পৃথিবী ওকে সেলিব্রিটি বলছে। কিন্তু আমার কাছে সানি আমার ছেলেই। এত ফোন আসছে আজ! ওকে খুব মিস করছি। যখন শেষ বার কথা হল বেশ উত্তেজিত মনে হল ওকে। ছবির প্রোমশনে বাড়ির বাইরে অনেক দিন রয়েছে। আমি নিশ্চিত এ বার বাড়ির জন্য ওরও মন কেমন করবে!’’ অস্কারমঞ্চে পৌঁছে তাবড় তাবড় সেলেবদের প্রশংসা পেয়েছে সানি। তাকে রেড কার্পেটে দেখে জড়িয়ে ধরেছেন ক্রিসি তেইগান। স্যামুয়েল জ্যাকসন সানির সঙ্গে ছবি পোস্ট করে লিখেছিলেন সানিরই সেরা অভিনেতার পুরস্কার পাওয়া উচিত।

বাড়ি বলতে মুম্বইয়ের সান্তাক্রুজ এলাকার এক বস্তি। সেখানেই সানিদের দু’কামরার ঘর। বাবামা দুই ঠাকুমা কাকা খুড়তুতো ভাইবোনেদের নিয়ে ভরা সংসার। গত কাল সারা দিন ধরেই ফোন বেজে চলেছে। ঘরের ছেলে তো এখন সেলিব্রিটি। সানির বাবা দিলীপ বললেন ‘‘সারা পৃথিবী ওকে সেলিব্রিটি বলছে। কিন্তু আমার কাছে সানি আমার ছেলেই। এত ফোন আসছে আজ! ওকে খুব মিস করছি। যখন শেষ বার কথা হল বেশ উত্তেজিত মনে হল ওকে। ছবির প্রোমশনে বাড়ির বাইরে অনেক দিন রয়েছে। আমি নিশ্চিত এ বার বাড়ির জন্য ওরও মন কেমন করবে!’’

অস্কারমঞ্চে পৌঁছে তাবড় তাবড় সেলেবদের প্রশংসা পেয়েছে সানি। তাকে রেড কার্পেটে দেখে জড়িয়ে ধরেছেন ক্রিসি তেইগান। স্যামুয়েল জ্যাকসন সানির সঙ্গে ছবি পোস্ট করে লিখেছিলেন সানিরই সেরা অভিনেতার পুরস্কার পাওয়া উচিত।

গোল্ডেন গ্লোবের রেড কার্পেটে এর আগেই দেব পটেলের হাত ধরে হেঁটেছে সানি। অস্কারের মঞ্চও তাকে ভরিয়ে দিয়েছে। তবে, তার স্বপ্নপূরণে হয়নি। তাতেও খুশি সানি। সে বলেছে, ‘‘এই ছবিতে অভিনয় না করলে, আমি হয়তো পুলিশ অফিসার হওয়ার স্বপ্নই দেখে যেতাম।’’

অস্কার মঞ্চে দেবের সঙ্গে সানি। ছবি: এএফপি।



আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement