Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৭ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

সেলেবদের ঘরে কেন করোনা হানা? সাবধানতায় ফাঁক রয়ে যাচ্ছে কি?

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১৩ জুলাই ২০২০ ০১:২১
ঐশ্বর্যা, অমিতাভ, কোয়েল।

ঐশ্বর্যা, অমিতাভ, কোয়েল।

সেলেব্রিটি হোক বা সাধারণ মানুষ, রোগের হাত থেকে কারও নিস্তার নেই। গত চার মাস ধরে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস যে প্রলয়নৃত্য শুরু করেছে, তার কবলে এ বার বলিউড-টলিউডের সেলেব্রিটিরা। শনিবার টুইট করে করোনা আক্রান্ত হওয়ার কথা জানিয়েছেন অমিতাভ বচ্চন। ওই রাতে করোনা-পজ়িটিভ বলে টুইট করেছেন মডেল-অভিনেত্রী রেচেল হোয়াইট। কোয়েল মল্লিক, তাঁর বাবা-মা ও স্বামী নিসপাল সিংহের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর জানা গিয়েছিল শুক্রবার।

করোনাভাইরাসের ক্ষেত্রে উপসর্গহীন বহনকারীর দৃষ্টান্ত দিনে দিনে বেড়েছে। কোয়েল, তাঁর বাবা ও মায়ের উদাহরণটি তেমনই। সে ক্ষেত্রে রিপোর্ট হাতে না আসা পর্যন্ত রোগীর পক্ষে বোঝা সম্ভব নয়। কিন্তু সেলেব্রিটিরা যে ভাবে করোনার বিরুদ্ধে সতর্কতামূলক প্রচার চালিয়েছেন, ব্যক্তিজীবনে কি তাঁরা তা আদৌ পালন করছেন? টলিউডের কয়েকটি ঘটনা অবশ্য তা বলছে না।

ইন্ডাস্ট্রির অন্দরের খবর, নেটফ্লিক্স ছবি ‘বুলবুল’-এর ‘সাকসেস পার্টি’ নিজের বাড়িতে দিয়েছিলেন পাওলি দাম। যদিও সেখানে পাওলির পরিবারের লোকজনই বেশি ছিলেন বলে শোনা গিয়েছে। ইন্ডাস্ট্রির দু’-তিনজনই ওই পার্টিতে উপস্থিত ছিলেন। এই বিষয়ে অভিনেত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাঁকে ফোনে পাওয়া যায়নি। এক বন্ধুর জন্মদিন সেলিব্রেশনের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় দিয়েছেন রুদ্রনীল ঘোষ। মাস্ক বা ফেসশিল্ড থাকলেও এই জমায়েত কি করার কথা?

Advertisement

আরও পড়ুন: বচ্চন পরিবারের করোনার খবরে চিন্তিত টলিপাড়াও

আরও পড়ুন: নানাবতী থেকে অমিতাভের এই ভিডিয়ো বার্তা শনিবারের নয়

আবার হইচই-এর সিরিজ় ‘মিসম্যাচ সিজ়ন থ্রি’-এর শুট শেষ হওয়ার পরে সিরিজ়ের মুখ্য অভিনেতারা একসঙ্গে পার্টি করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এই সিরিজ়ের জন্যই রেচেল মুম্বই থেকে এসেছিলেন কলকাতায়। ডায়মন্ড হারবারে ন’দিনের আউটডোর শুট ছিল তাঁদের। শহরের বাইরে থেকে আসায় র‌্যাচেলের সংক্রমিত হওয়ার প্রবণতা অন্যদের তুলনায় বেশি, তা বলাই যায়। অভিনেত্রী নিজে বললেন, ‘‘আমার অ্যান্টিবায়োটিকের কোর্স চলছিল। মুম্বইয়ের চিকিৎসক বলেন, এখানে টেস্ট করিয়ে নিতে। তাই টেস্ট করাই। শুটিংয়ে কোনও শরীর খারাপ হয়নি।’’ পার্টি করেছিলেন কি? সেই প্রশ্নের উত্তরে তাঁর পাশ-কাটানো জবাব, ‘‘আমি এত অসুস্থ... এখনও শকের মধ্যে রয়েছি।’’

সিরিজ়ের অন্য অভিনেতা রাজদীপ গুপ্তের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। পার্টি করার প্রশ্নে তাঁর জবাব, ‘‘শেষ দিন আমরা পাঁচ জন (রেচেল, রাজদীপ, পায়েল সরকার, প্রিয়ঙ্কা পাল, অভিষেক সিংহ) একসঙ্গে মেকআপ রুমে ডিনার করেছিলাম। সেটাকে পার্টি বলা হচ্ছে কেন, জানি না।’’ সিরিজ়ের পরিচালক সৌমিক চট্টোপাধ্যায়ের হালকা উপসর্গ রয়েছে বলে শোনা গিয়েছে। বললেন, ‘‘আমার ঠান্ডা লেগেছিল। কিন্তু সেরে গিয়েছে। কোনও পার্টির কথা জানি না।’’ শোনা গিয়েছে, ডিজ়াইনার অভিষেক দত্তের বাড়ির ছাদে সেই পার্টি হয়েছিল। তবে তিনিও তা মানতে অস্বীকার করেন। পেশার খাতিরে অভিনেতাদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ছে। যদি তাঁরা নিজেরা সতর্ক না থাকেন, বিপদ বাড়বে বই কমবে না!

এর বিপরীতে আরও একটি ছবিও রয়েছে। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পরে যে তৎপরতার সঙ্গে সেলেবরা স্বাস্থ্যকর্মী, পুরসভা, প্রশাসনের সঙ্গে সহযোগিতা করছেন, তা-ও প্রশংসার দাবি রাখে। এ ক্ষেত্রে অমিতাভের কথাই সর্বাগ্রে বলা যায়। তাঁর সংস্পর্শে গত দশ দিনে যাঁরা যাঁরা এসেছেন, সকলকেই টেস্ট করানোর আহ্বান জানিয়েছেন অভিনেতা।

কোয়েল মল্লিক টুইট করে নিজের ও পরিবারের অসুস্থতার কথা জানিয়েছেন। তাঁদের আক্রান্ত হওয়ার খবর সাধারণ মানুষের কাছে উদ্বেগের বিষয়। আবার তাঁদের এগিয়ে এসে নিজেদের রোগের কথা বলা সামাজিক দায়িত্ববোধ ও সচেতনতা গড়ে তোলার ক্ষেত্রে আদর্শ স্থাপন করছে।

আরও পড়ুন

Advertisement