জীবন এক রকম। আর তার ভিন্ন আঙ্গিক যাপন। আমাদের বেঁচে থাকাটা তো এই যাপনেরই নামান্তর। কখনও সেই যাপনে জড়িয়ে থাকে মহত্ব, কখনও বা তার ফাঁকফোকর দিয়ে বেরিয়ে আসে ভিতরে লুকিয়ে থাকা সেই সুপ্ত আমি। যার প্রকাশ চকিতে। কখনও বা অজান্তেই।

এই সব ভাবনার মিশেল ‘হেনরিক ইবসেন’-এর ‘আ ডলস্ হাউজ’। তার অবলম্বনে ‘খেলাঘর’ নাটকটি লিখেছেন রতন কুমার দাস। নির্দেশনার দায়িত্বে বিপ্লব বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করছেন চৈতী ঘোষাল এবং দেবশঙ্কর হালদার। তা ছাড়া অঞ্জনা বসু, শান্তনু চট্টোপাধ্যায় ছাড়াও এই নাটকে অভিনয় করছেন বিপ্লব নিজেও।

কেমন করে ভেবেছেন এই নাটক? বিপ্লব বললেন, ‘‘আমাদের বাঁচার মধ্যে কতটা সত্যি, কতটা হিপোক্র্যাসি…। আসলে বিমূর্ত অবস্থান থেকে আমরা বাঁচি। জীবনযাপনের নানা রকম ফাঁকফোকর এবং মহত্ব, দুটো সম্পর্কের ভিতর অনেক অধরা বিষয় থাকে। এই নাটক আসলে কতগুলো মানুষের আত্মানুসন্ধান। মধ্যবিত্ত জীবনযাপনের খোঁজ। আমাদের বেঁচে থাকার প্রাসঙ্গিকতা, অপ্রাসঙ্গিকতা, রাজনীতি, সমাজ, অর্থনীতির প্রেক্ষিতে— বলতে পারেন, বাঙালির মধ্যবিত্ত জীবনপ্রণালীর ইতিবৃত্ত।’’

আরও পড়ুন, ‘বিনি সুতোয়’ প্রকাশ্যে এলেন ঋত্বিক-জয়া

মধ্যবিত্ত জীবনের সম্পর্ক, রসায়ন, পুরুষ, মহিলার ক্ষমতায়ন, তার মধ্যে একটা রাজনীতি আছে। তা প্রতিফলিত হবে ‘খেলাঘর’-এর দম্পতির যাপনে। বিপ্লব এই দম্পতিকে নিয়ে গিয়েছেন শান্তিনিকেতনে। মঞ্চে এই দু’টি চরিত্র গেঁথেছেন দেবশঙ্কর এবং চৈতি।


মঞ্চে অঞ্জনা, বিপ্লব এবং চৈতি।

ইতিমধ্যেই দর্শকের প্রশংসা আদায় করে নিয়েছে ‘খেলাঘর’, জানালেন চৈতি। দেবশঙ্কর বললেন, ‘‘পৃথিবীর সব উল্লেখযোগ্য ভাষাতেই অভিনয় হয়েছে ‘ডলস্ হাউজ’। যে সময়ে লেখা হয়েছে, তার পরে সভ্যতা, সংস্কৃতি, সম্পর্ক সব কিছুরই নানা স্তর দেখা দিয়েছে। তবুও এই নাটককে মনে হয় সব সময়েই প্রাসঙ্গিক এবং জীবন্ত। এর মধ্যে একটা পুরুষতান্ত্রিক ঘটনা থাকে। এই নাটকে এমন ভাবে সেটা নির্মাণ করা হয়েছে, অভিনয়ের খুব সুবিধে হয়।’’ দেবশঙ্করের কথায়: ‘‘কেন্দ্রীয় পুরুষ চরিত্র, তার যে দর্শন, ভাব, শাসনভঙ্গিমা তা ভীষণ চেনা এক পুরুষের ভঙ্গিমা। একে চিনতে পারি আমাকে দিয়ে, চার পাশের মানুষকে দিয়ে। যে পরস্পর বিরোধী মানুকে ভিতরে লালন করি, চরম সময়ে দাঁত নখ নিয়ে বেরিয়ে আসে যে, তেমন একটি চরিত্র নির্মাণের চেষ্টা করেছি। তবে ভঙ্গিমা অনেক সফিস্টিকেটেড।’’

(হলিউড, বলিউড বা টলিউড - টিনসেল টাউনের টাটকা বাংলা খবর পড়তে চোখ রাখুন আমাদের বিনোদনের সব খবর বিভাগে।) 

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।