• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘বাবার জন্যই আজ এখানে, সুবিধা পাই, এ আমার কর্মফল’, বিস্ফোরক সোনম কপূর 

sonam
সোনম কপূর

বলিউডে স্বজনপোষণ প্রথা নিয়ে বাদানুবাদ অব্যাহত। এরই মধ্যে আগুনে ঘি ঢাললেন অভিনেত্রী সোনম কপূর। ইনস্টাগ্রামে নেটাগরিকদের একের পর এক হেট মেসেজ শেয়ার করে সোনমের নেপোটিজম প্রসঙ্গে তাঁর সোজাসাপ্টা জবাব, “হ্যাঁ, আমি আমার বাবার মেয়ে। আজ আমি বাবার জন্যই এখানে। বাবার জন্যই সুবিধে পাই। এটা কোনও অপমান নয়। আমার বাবা দিন-রাত এক করে খেটেছে।” এখানেই শেষ নয়। সোনম আরও যোগ করেন, “এ আমার কর্মফলযে এই রকম একটি পরিবারে আমি জন্মেছি। আমি সে জন্য গর্বিত।”

গত ১৪ জুন সুশান্তের আত্মহত্যার খবর প্রকাশ্যে আসতেই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে স্টারকিডদের অনায়াসে কাজ মেলার ঘটনায় সরব হয়েছেন নেটাগরিকদের একটা বড় অংশ। সোশ্যাল মিডিয়ায় উগরে দিচ্ছেন ক্ষোভ। শুধু তাই নয়, স্টারকিডদের কমেন্ট বক্সেও দেখতে পাওয়া যাচ্ছে সেই রাগেরই প্রতিফলন।

সোনম নিজেও একজন স্টারকিড। তিনি অনিল কপূরের কন্যা। তাই সেই ক্ষোভের আগুন থেকে মুক্তি মেলেনি তাঁরও।ক্রমাগত কমেন্ট বক্সে পরিবার-বাবা-মা’কে নিয়ে ব্যক্তিগত আক্রমণ উড়ে আসায় দিন কয়েক আগেই নিজের ইনস্টাগ্রাম কমেন্ট বক্স বন্ধ করেছেন তিনি। যদিও এতেই হাল ছাড়েননি নেটাগরিকরা। সোনমের কমেন্ট বক্স বন্ধ দেখে তাঁকে ব্যক্তিগত ভাবে মেসেজ করে অশ্লীল ভাষায় আক্রমণ করেছেন বেশ কয়েকজন। যেখানে সোনমের মৃত্যুকামনা থেকে শুরু করে তাঁর ভাবী সন্তানেরও মৃত্যুকামনা করা হয়েছে। সেই সব মেসেজরই বেশ কয়েকটি স্ক্রিনশট শেয়ার করে রবিবার সোনম লেখেন, “হ্যাঁ, আমি আমার এবং বাবা-মায়ের কমেন্ট সেকশন বন্ধ করেছি,কারণ আমি চাই না আমার ৬৪ বছরের বাবা এই সব খারাপ কথা শুনুক। ওঁদের এগুলো প্রাপ্য নয়। আমার ভাবী সন্তানের মৃত্যুকামনা করছে মানুষ, আমায় গালাগালি দিচ্ছে অকথ্য ভাষায়, আজ আমরা এখানে আমাদের কর্মের জন্য। যারা ঘৃণা ছড়াচ্ছ তারা আজ সে জায়গায় তাদের নিজেদের কর্মের জন্য। এ সব করে তোমরা শুধুমাত্র নিজেদের জীবন নষ্ট করছ।”

সুশান্তের মৃত্যুর পরেই একটি ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব ভাইরাল হয়। সেই ভিডিয়োতে দেখা যায় পরিচালক কর্ণ জোহরের টক শো ‘কফি উইথ করণ’-এ সোনমকে যখন জিজ্ঞাসা করা হয় সুশান্ত সিংহ রাজপুত কি হট? তখন সোনম খানিক ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে বলেন, “জানিনা , হটই হবে।” অর্থাৎ, তিনি যে সুশান্তকে চেনেন না সে কথাই পরোক্ষে বলেছিলেন সোনম। সুশান্তের আত্মহত্যায় যখন ‘বহিরাগত তত্ত্ব’ বারেবারেই উঠে আসছিল, তখন একই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেও সুশান্তকে না চেনার প্রসঙ্গে সোনমকে একহাত নেন নেটাগরিকরা।

আরও পড়ুন- ‘একাই ১০০!’ চাপে থাকা বাবাকে প্রশংসায় ভরালেন আলিয়া 

সেই প্রসঙ্গে সোনম লেখেন, “সাত বছরের পুরনো একটি ভিডিয়ো ওটা। সুশান্তের তখন একটি মাত্র ছবি মুক্তি পেয়েছিল।হ্যাঁ, সে সময়ে ওঁকে আমি চিনতাম না। এরকম অনেক এপিসোড রয়েছে যেখানে আমার সহকর্মীরাও আমার সম্পর্কে একটি বাক্যও বলেননি। আমি স্পিরিট হিসেবে নিয়েছি সব সময়। এত ঘৃণা! ভগবান যেন আপনাদের ক্ষমা করেন।”

এ দিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্রমাগত হেট মেসেজ পেয়ে টুইটারকে বিদায় জানিয়েছেন আর এক স্টারকিড সোনাক্ষী সিংহও। তিনি শত্রুঘ্ন সিংহের মেয়ে। এখানেই শেষ নয়, টুইটারকে ‘টাটা’ করেছেন সলমন খানের ভগ্নীপতি আয়ুষ শর্মাও।

সোনাক্ষীর পোস্ট 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Aag lage basti mein... mein apni masti mein! Bye Twitter 👋🏼

A post shared by Sonakshi Sinha (@aslisona) on

 

সব মিলিয়ে সুশান্তের মৃত্যু যে বলিউডের চাকচিক্যের ভেতর লুকিয়ে থাকা অন্ধকারকে যে সামনে এনে রেখে দিয়েছে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন