Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

কৃষকদের সমর্থন করায় পপ গায়িকা রিহানাকে ‘পর্ন গায়িকা’ আখ্যা কঙ্গনার

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৬:২৭
কঙ্গনা রানাউত ও রিহানা

কঙ্গনা রানাউত ও রিহানা

ফের শিরোনাম দখল করলেন কঙ্গনা রানাউত। এ বারে সীমানা পেরিয়ে টুইট যুদ্ধে নামলেন ‘কু‌ইন’ কঙ্গনা। বিশ্ববিখ্যাত মার্কিন গায়িকা রিহানাকে তুলোধনা করলেন। রিহানার ‘অপরাধ’, তিনি কৃষক আন্দোলনের পক্ষে কথা বলেছেন। রিহানাকে ‘পপ গায়িকা’-র বদলে ‘পর্ন গায়িকা’ বলে সম্বোধন করলেন কঙ্গনা রানাউত।
গত ৩ মাস ধরে কৃষক আন্দোলনের বিপক্ষে লড়াই করে চলেছেন কঙ্গনা রানাউত। দিলজিৎ দোশাঞ্জ, স্বরা ভাস্কর, রিচা চা়ড্ডা থেকে শুরু করে বলিউডের একাধিক তারকার সঙ্গে দ্বন্দ্বে নেমেছিলেন তিনি। এ বারে আন্তর্জাতিক স্তরে চলে গিয়েছেন অভিনেত্রী। না সেলুলয়েডে নয়, টুইট যুদ্ধের মাধ্যমে।
টুইটারে একটি পোস্ট রিটুইট করেন কঙ্গনা। দেখা যাচ্ছে, সেই পোস্টটি যিনি করেছেন, সেই নেটাগরিক লিখেছেন, ‘জগমিত সিংহর সঙ্গে রিহানার বন্ধুত্ব। যে জগমিতের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল, সে সন্ত্রাসবাদীদের টাকা পাঠায়।’ পোস্টে একটি ভিডিয়ো রয়েছে। বোঝা যায়, তিনি রিহানা জগমিতকে টুইটারে ফলো করেছেন, আর তাই নিয়ে তাঁর প্রতিক্রিয়ার কথা জানতে চাওয়া হচ্ছে।
পোস্টটিকে শেয়ার করে কঙ্গনা লিখেছেন, ‘পর্ন গায়িকা রিহানার সঙ্গে বন্ধুত্ব রয়েছে এই সন্ত্রাসবাদীর।’

Advertisement

কঙ্গনার আরও দাবি, রিহানা যৌনতার সাহায্য নিয়ে নিজের গান বিক্রি করেন। ব্যক্তিগত আক্রমণে নেমে পড়লেন অভিনেত্রী, ‘প্রকৃত সঙ্গীতশিল্পী ও শাস্ত্রীয় সঙ্গীতশিল্পীরা ছাড়া এই ধরনের মধ্যমেধার গায়ক-গায়িকারা মানুষের কাছে নিজেদের গান বিক্রি করার মাংসল শরীরের উপর নির্ভর করে। শরীরের ব্যক্তিগত অংশ দেখিয়ে জনপ্রিয়তা লাভ করে এরা।’


ঘটনার সূচনা হয় মঙ্গলবার। পপ গায়িকা রিহানা কৃষক আন্দোলনের পক্ষে টুইট করেন। আন্তর্জাতিক সংবাদসংস্থার খবর শেয়ার করে লেখেন, ‘এই বিষয়টি নিয়ে কেউ কোনও কথা কেন বলছে না।’ পাশে হ্যাশট্যাগ দিয়ে লেখা, ‘কৃষক আন্দোলন’। টুইটটি ভাইরাল হয়ে পড়ে নিমেষে।
সে দিনই রাতের বেলা মাঠে নামেন কঙ্গনা রানাউত। রিহানাকে সোজাসুজি ‘বোকা’ এবং ‘নির্বোধ’ বলে অপমান করলেন অভিনেত্রী। লিখলেন, ‘কেউ কোনও কথা বলছে কারণ এরা কৃষক নয়, এরা সন্ত্রাসবাদী। এই দেশকে বিভক্ত করার চেষ্টা চলছে। যাতে চীন এসে এই ভগ্ন ও সংবেদনশীল দেশটাকে হস্তগত করে নিতে পারে। ঠিক যেমন আমেরিকায় হয়েছে। তাই বলছি, চুপ করে বসে থাকো বোকা, তোমাদের মতো নির্বোধরা যে ভাবে নিজেদের দেশটাকে বিক্রি করে দিয়েছ, সেটা আমরা করব না।’


ব্যস, আন্তর্জাতিক পপ গায়িকার সঙ্গে দ্বন্দ্বে নামার পরেই নেটাগরিকরা জড়ো হলেন কঙ্গনার বিরুদ্ধে। কেউ স্পষ্ট ক্ষোভ প্রকাশ করলেন, কেউ আবার মিম বানিয়ে মশকরা করলেন। লেখা হল ‘কঙ্গনা ভাগ্যিস রিহানাকে কর্ণ জোহরের চামচি বলে দেয়নি!’, ‘রিহানা সারা দুনিয়ায় খ্যাতি লাভ করেছেন। আর কঙ্গনা ক্যাঙ্গারুর মতো লম্ফঝম্প করে যাচ্ছেন খ্যাতি পাওয়ার আশায়।’



আরও পড়ুন

Advertisement