• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘চপ্পল ছোড়ার অধিকার কে দিয়েছিল?’ মহেশের হয়ে মুখ খুলতেই পূজাকে বিঁধলেন কঙ্গনা

pooja kangana
বাবা মহেশ ভট্টের স্বপক্ষে যুক্তি খাড়া করতেই কঙ্গনার তোপের মুখে পড়তে হল পূজাকে। ছবি টুইটার থেকে নেওয়া।

স্বজনপোষণ নিয়ে বলিউডি তরজা চলছেই। সেই আগুনে যেন নতুন করে ধুনো দিলেন পূজা ভট্ট, কঙ্গনা রানাউত। টুইট করে বাবা মহেশ ভট্টের স্বপক্ষে যুক্তি খাড়া করতেই কঙ্গনার তোপের মুখে পড়তে হল তাঁকে।

টুইটে বাবার হয়ে কী বলেছেন পূজা? ‘সড়ক’ নায়িকার দাবি, সুশান্ত সিংহ রাজপুত এবং স্বজনপোষণ নিয়ে মহেশ ভট্টকে যা নয় তাই বলছেন সবাই। একটু খেয়াল করলেই দেখা যাবে, মহেশ ভট্ট কোম্পানি এবং ভট্ট হাউসের প্রযোজনা সংস্থা ‘বিশেষ ফিল্মস’ কিন্তু বছরের পর বছর ধরে নতুনদেরই বেশি সুযোগ দিয়ে এসেছে। অভিনয়, সঙ্গীত জগতের বহু নামী দামি তারকা এই হাউসের হাত ধরেই আজ প্রতিষ্ঠিত।

পূজার দাবি, সমস্ত বলিউড জানে, মহেশ আর মুকেশ ভট্ট কেমন করে নতুনদের জায়গা করে দিয়ে আসছেন। তার পরেও সবাই একজোট হয়ে ভট্টদের বিরুদ্ধে বার বার ‘নেপোটিজম’ শব্দ ব্যবহার করছেন। ফলে, এত দুঃখেও হাসি পাচ্ছে তাঁর।

পূজা উদাহরণ হিসেবে উচ্চারণ করেন কঙ্গনার নামও। তিনি বলেন, “কঙ্গনার প্রতিভা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। অবশ্যই কঙ্গনা পরিচালক অনুরাগ বসুর আবিষ্কার। কিন্তু ‘বিশেষ ফিল্মস’ যদি ‘গ্যাংস্টার’ প্রযোজনা না করত, তা হলে আজ কঙ্গনাকে কেউ চিনতেন?”

পরিচালক-অভিনেত্রীর যুক্তি, কঙ্গনার মতো আরও বহু তারকা আছেন যাঁদের ভিত গড়ে দিয়েছে ভট্ট কোম্পানি। মহেশ বা মুকেশের বিরুদ্ধে এর পরেও কি স্বজনপোষণের অভিযোগ করা যায়? বলিউডের যাঁরা আজ মহেশের বিপক্ষে, তাঁদের সবার কাছে অভিনেত্রীর অনুরোধ, দয়া করে স্বজনপোষণ শব্দের মানে গুগল সার্চ করে দেখে নিলে ভাল হয়।

পূজা তাঁর টুইটে কঙ্গনার নাম নিতেই তেড়েফুঁড়ে উঠেছে অভিনেত্রীর টিম। কঙ্গনার হয়ে পূজার প্রতিটি টুইটের ধরে ধরে জবাব দিয়েছে তারা। তাদের দাবি, কঙ্গনার প্রথম ছবি ‘গ্যাংস্টার’ যেমন প্রযোজনা করেছে ভট্ট সংস্থা তেমনই মহেশ চপ্পল ছুড়েছেন তাঁর দিকে। এই অধিকার কে দিয়েছে তাঁকে?

আরও পড়ুন: ‘শোলে’-এর সুরমা ভোপালীর প্রয়াণে শোকের ছায়া বলিউডে

এখানেই শেষ নয়। টিমের আরও জোরালো সওয়াল, মহেশ-মুকেশের কাছে কাজ চাইতে গিয়েছিলেন সুশান্ত সিংহ রাজপুত। বদলে তাঁরা সুশান্তকে পরভীন ববির মতোই ‘অবসাদগ্রস্ত’ তকমা দিয়েছিলেন। শুধু তাই নয়, সুশান্ত-রিয়া চক্রবর্তীর সম্পর্কেও নাক গলিয়েছিলেন মহেশ। রিয়াকে সরে আসতে বলেছিলেন সুশান্তের থেকে।

পূজাকে এর পরেই পাল্টা প্রশ্নে ব্যঙ্গ করে টিম কঙ্গনা, নতুনদের জায়গা করে দেন বলে কি অন্যের ব্যক্তিগত সম্পর্কে নাক গলানোর অধিকারও রয়েছে ভট্টদের?

আরও পড়ুন: ‘নেপোটিজ়ম’-এর প্রতিফলন কিন্তু ইন্ডাস্ট্রিতে একমুখী নয়

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন