• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কর্মহীন লোকেরাই সেলেবদের ট্রোল করে, মন্তব্য করিনার

Kareena Kapoor
করিনা কপূর।

সাফ জানিয়ে দিলেন করিনা কপূর, যারা অনলাইনে সেলিব্রিটিদের ট্রোল করে, তারা বাস্তবে কর্মহীন হয়ে বাড়িতে বসে আছে। কোনও কাজ না পেয়েই তারা এ ভাবে নিজেদের মতামত জানায়।

মুম্বইয়ের সংবাদমাধ্যমকে এক সাক্ষাৎকারে করিনা জানিয়েছেন, “এই অতিমারি এবং লকডাউন মানুষের মনকে এলোমেলো করে দিয়েছে। আমাদের হাতে এখন অনেক ফাঁকা সময়। তাই মানুষ সব কিছু নিয়ে বেশি ভাবছেন, বেশি আলোচনা করছেন এবং তার সঙ্গে ট্রোলও বেশি করছেন। সবাই বাড়িতে বসে আছেন, অনেক মানুষের হাতে কাজও নেই। তাঁদের মন্তব্যগুলিকে ট্রোলিং হিসাবে ধরাও উচিত নয়। তাঁরা আসলে বোর হচ্ছেন এবং প্রত্যেকেরই কিছু না কিছু বলার আছে।”

করিনা মনে করেন, প্রত্যেকেরই অন্য কারও জীবনে নাক না গলিয়ে নিজের জায়গায় নিজের মতো করে খুশি থাকা উচিত। যদি কেউ ট্রোল করে খুশি থাকেন তা হলে তাঁকে তাই করেই খুশি থাকার উপদেশ দিলেন অভিনেত্রী।

আরও পড়ুন: অপেক্ষা আর কয়েক দিনের, অনির্বাণ ও মিমিকে নিয়ে আসছে ‘ড্রাকুলা স্যার’

এর আগে অন্য আর একটি সাক্ষাৎকারে নেপোটিজম প্রসঙ্গে কথা বলেছিলেন করিনা। অভিনেত্রীর মতে, শুধুমাত্র প্রভাবশালী পরিবারের জোরে ২১ বছর ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করা সম্ভব নয়। পাশাপাশি তিনি এমন অনেক ‘স্টারকিড’-দের কথাও মনে করিয়ে দিয়েছেন যাঁরা বলিউডে সফল হতে পারেননি। অর্থাৎ, ইন্ডাস্ট্রিতে টিকে থাকতে গেলে যে নিজস্ব প্রতিভার প্রয়োজন সেই কথাই আকারে ইঙ্গিতে বুঝিয়েছিলেন অভিনেত্রী।

আরও পড়ুন: ঘোড়ায় চড়ে পুলিশের নজরে মীর! জুটল নেতিবাচক মন্তব্য

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর পরে স্বজনপোষণ নিয়ে নতুন তরজা শুরু হলে সেই আঁচ এসে লাগে করিনার গায়েও। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভয়ঙ্কর ট্রোলের মুখে পড়তে হয় নবাব-পত্নীকে। তবে এ সব নিয়ে মাথা ঘামাতে তিনি নারাজ। আপাতত ‘লাল সিং চড্ডা’র কাজ শেষ করে তিনি অপেক্ষা করছেন দ্বিতীয় বারের মাতৃত্বের জন্য।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন