Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Kaushik Ganguly

Kothamrito: নীরবে এক ‘নায়িকা’র প্রেমে পড়েছেন কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়! কে তিনি?

প্রেমে পড়েছেন কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়! নীরব প্রেম। মুখে কথা নেই। শুধুই শরীরী ভঙ্গিতে বলবেন, ওগো, তুমি যে আমার! ‘কথামৃত’য় ঝরবে সেই অমৃত।

কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় এ বার বড় পর্দায় প্রেম করবেন অপরাজিতা আঢ্যর সঙ্গে

কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় এ বার বড় পর্দায় প্রেম করবেন অপরাজিতা আঢ্যর সঙ্গে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৮ জুলাই ২০২২ ১৬:৫৮
Share: Save:

অভিনয় করতে গিয়ে এ কী গেরো! বিস্ময়ে থই পাচ্ছেন না কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়। বড়পর্দায় তিনি প্রেম করবেন অপরাজিতা আঢ্যর সঙ্গে! সেই প্রেম নাকি সবাই দেখবেন! শোনার পরেই পরিচালক জিৎ চক্রবর্তীকে তাঁর পাল্টা প্রশ্ন, ‘‘আমি আর অপা প্রেম করব। দর্শক টিকিট কেটে দেখতে আসবে?’’ সদ্য মুক্তি পেয়েছে জালান প্রযোজনা সংস্থার আগামী ছবি ‘কথামৃত’-র প্রথম ঝলক। ছবিতে কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় ‘সনাতন গঙ্গোপাধ্যায়’-এর ভূমিকায়। তাকেই দর্শকের কাছে পৌঁছে দিল প্রযোজনা সংস্থা।

চরিত্রের নাম শুনেই পয়লা হোঁচট। হতবাক অভিনেতার কথায়, ‘‘আবার আমি সনাতন! এই নামে এর আগেও ছবিতে অভিনয় করছি।’’ তার পরেই রসিকতা, পর্দায় অমিতাভ বচ্চনের ‘বিজয়’ নাম বাঁধা ছিল। তাঁর ক্ষেত্রে বোধহয় ‘সনাতন’। ছবিতে কৌশিকের মুখে একটিও কথা নেই! সঙ্গে সঙ্গে আর একপ্রস্ত হোঁচট। পরিচালক যদিও আশ্বস্ত করেছেন, অভিনয়ের সুযোগ প্রচুর। অভিনেতার সে সবে থোড়াই কেয়ার! তত ক্ষণে তিনি জিতের সঙ্গে চুক্তিতে ব্যস্ত, এর জন্য তিনি অর্ধেক পারিশ্রমিক পাবেন না তো! তবে অপরাজিতার সঙ্গে প্রেম করার সুযোগ পেয়ে দারুণ খুশি ‘শঙ্কর মুদি’।

দুই অভিজ্ঞ অভিনেতা-তারকার ভালবাসা ক্যামেরায় ধরতে পেরে কতটা খুশি পরিচালক? প্রশ্ন রেখেছিল আনন্দবাজার অনলাইন। জিৎ এর আগে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়-মমতাশঙ্করের রসায়ন ক্যানবন্দি করেছিলেন তাঁর প্রথম ছবি ‘শেষের কবিতা’য়। পরিচালকের দাবি, ‘‘এই রসায়ন আরও গাঢ়, আরও মাখোমাখো। ছবি দেখে দর্শকেরাও দু’বার ভাববেন, এঁরা সত্যিই প্রেম করছেন, না অভিনয়!’’ তারকা পরিচালক কি অভিনেতা হয়ে ছবির খুঁটিনাটি সামলেছেন? জিতের কথায়, এটাই নাকি কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের মুন্সিয়ানা। তিনি যখন পরিচালক, কেবল তখনই ছবি নিয়ে মাথা ঘামান। বাকি সময়ে তিনি ‘পরিচালকের অভিনেতা’। অভিনয়ে ডুবে থাকেন।

ছবিতে কথা বলার সুযোগ নেই। শ্যুটের অবসরেও কি ‘সনাতন’ মৌনব্রত রেখেছিলেন? শুনেই হো হো হাসি। পরিচালকের দাবি, শ্যুটে একটাও কথা বলতে পারছেন না। অবসরে সবটা পুষিয়ে নিচ্ছেন। কথায় কথায় শ্যুটিং, ডাবিংয়ের সময়গুলো যেন ডানা মেলে উড়ে গিয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE