• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সুশান্তের মৃত্যুর দিন রিয়াকে হোয়াটসঅ্যাপে কী লিখেছিলেন মহেশ? প্রকাশ্যে চ্যাট

rhea
মহেশ-রিয়া।

সুশান্তের মৃত্যুর দিনেও রিয়ার সঙ্গে কথা হয়েছিল মহেশ ভট্টর। সুশান্ত মারা যাওয়ার খবর প্রকাশ্যে আসার পরেও রিয়াকে মেসেজ করেছিলেন পরিচালক মহেশ ভট্ট। কী লিখেছিলেন তিনি? প্রকাশ্যে এল মহেশ-রিয়ার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট।

‘ইন্ডিয়া টুডে’-র একটি এক্সক্লুসিভ রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে, গত১৪ জুন,অর্থাৎ সুশান্তের মৃত্যুর দিন সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ রিয়াই প্রথম মহেশকে মেসেজ করেন। তিনি লেখেন, “সুপ্রভাত স্যর। আপনার পাঠানো মর্নিং উইশগুলোতে যে পরিমাণ এনার্জি থাকে আমি শুধু সেগুলোই চাই। ব্যস। আর কিচ্ছু না। লাভ ইউ।” এর কিছুক্ষণ পরেই রিয়াকে পাল্টা মহেশ লেখেন, “লাভ ইউ মাই চাইল্ড।” রিয়াও জবাব দেন তাঁকে। লেখেন, “আমিও আপনাকে ভালবাসি স্যর। আমার এঞ্জেল।’’এর পরেই এক দীর্ঘ নীরবতা।

ঘড়ির কাঁটায় তখন দুপুর ২টো বেজে ৩৫ মিনিট। ইতিমধ্যেই সারা বিশ্ব জেনে গিয়েছে সুশান্ত আর নেই। মহেশের ফোন থেকে আরও একটি মেসেজ যায় রিয়ার কাছে। তাতে লেখা, “আমায় ফোন কর।” রিয়া ফোন করেছিলেন কিনা তা জানা না গেলেও মহেশ করেছিলেন। বিকেল ৪টে এবং বিকেল ৫টা ১৩-তে রিয়াকে দু’বার ফোন করেছিলেন এই পরিচালক। কিন্তু হোয়াটসঅ্যাপ বলছে, দু’বারই রিয়ার সঙ্গে কথা হয়নি মহেশের। রিয়া ফোন ধরেননি।

আরও পড়ুন- ‘ওই শেষ ফোনটি আমার কাছে ওয়েক আপ কল’, মহেশ-রিয়ার ব্যক্তিগত চ্যাট প্রকাশ্যে

আরও পড়ুন-রাঁধুনিকে জেরা, সুশান্তের তিনটি ফোন-ল্যাপটপ নিজেদের হেফাজতে নিল সিবিআই

 

বৃহস্পতিবারই রিয়া এবং মহেশের ৮ জুনের চ্যাট প্রকাশ্যে এসেছিল। ৮ জুন, অর্থাৎ যে দিন রিয়া সুশান্তের বাড়ি থেকে বেরিয়ে নিজের বাড়িতে চলে এসেছিলেন। মহেশকে তিনি লিখেছিলেন, তিনি মুভ অন করে গিয়েছেন। রিয়ার প্রশংসা করেমহেশবলেছিলেন, এ বার রিয়ার বাবা খুব খুশি হবেন। তার মানে রিয়া-সুশান্তের সম্পর্কে খুশি ছিলেন না রিয়ার বাবা? সিবিআই তাদের তদন্তে এই দিকটিও খতিয়ে দেখছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন