Advertisement
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Rakhi Sawant

হাজতবাসের সম্ভাবনায় নড়বড়ে রাখি, গ্রেফতারির হাত থেকে বাঁচতে এ বার হাইকোর্টে টেলি তারকা

চলতি বছরে দাম্পত্য কলহের কারণে ধারাবাহিক ভাবে বিতর্কের কেন্দ্রে থেকেছেন টেলিভিশন তারকা রাখি সবন্ত। এমনকি, তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে জেলে যেতে হয়েছিল প্রাক্তন স্বামী আদিল খান দুরানিকে।

Rakhi Sawant.

রাখি সবন্ত। ছবি: সংগৃহীত।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৫ ডিসেম্বর ২০২৩ ১৫:২৬
Share: Save:

বছর শেষের পথে, অথচ এখনও রাখি সবন্তের দাম্পত্যকলহ শেষ হতে গিয়েও শেষ হচ্ছে না। চলতি বছরের প্রথম থেকে ক্রমাগত শিরোনামে থেকেছেন টেলিভিশনের অন্যতম বিতর্কিত তারকা। গত বছর চুপিসারে আদিল খান দুরানির সঙ্গে বিয়ে সারেন রাখি। চলতি বছরের প্রথম দিকে সেই খবর প্রকাশ্যে আসে। তার কয়েক মাস পরেই বিবাহবিচ্ছেদ ঘোষণা। সম্পর্কের টানাপড়েন ও সেই সংক্রান্ত ঝুটঝামেলা নিয়ে বরাবর আলোচনার কেন্দ্রে তাঁদের দাম্পত্যকলহ। রাখির অভিযোগের ভিত্তিতে কয়েক মাস হাজতবাসও হয়েছে আদিলের। জুলাই মাসে জেল থেকে ছাড়া পেয়েই রাখিকে শায়েস্তা করার হুঙ্কার দিয়েছিলেন তিনি। সম্প্রতি প্রাক্তন স্ত্রীর বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ নিয়ে থানাতেও গিয়েছেন আদিল। এ বার রাখির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের তাঁরই এক মডেল সহকর্মীর। টেলি তারকার বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেছেন অভিযোগকারিণী। সেই অভিযোগ খারিজ করতে এ বার বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ রাখি।

হেনস্থা ও মানহানির যে অভিযোগ করেছিলেন রাখির মডেল সহকর্মী, তা খারিজের জন্য আদালতে আর্জি জানিয়েছেন রাখি। টেলি তারকার দাবি, প্রতিশোধ নিতে ও তাঁর সফল কেরিয়ার নষ্ট করতেই নাকি তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন ওই মডেল। রাখির বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪(এ), ৫০০, ৫০৪, ৫০৯, ৩৪ ধারায় এবং তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৬৭(এ) ধারায় দায়ের হয়েছে অভিযোগ।

অন্য দিকে, একাধিক ব্যক্তিগত ভিডিয়ো ফাঁস করার অভিযোগ তুলে রাখির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন তাঁর প্রাক্তন স্বামী আদিলও। খবর, আদিলের অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেফতার করা হতে পারে— এই আশঙ্কা থেকে নাকি আগেভাগেই আদালতের দ্বারস্থও হয়েছেন টেলি তারকা। ‘বিগ বস্’ খ্যাত তারকার বিরুদ্ধে তাঁর গোপন ভিডিয়ো ফাঁসের অভিযোগ তুলে অম্বোলী থানায় এফআইআর দায়ের করেছিলেন আদিল। সেই মামলাতেই আদালতের কাছে অন্তর্বর্তী সুরক্ষা চেয়ে আর্জি জানিয়েছিলেন তিনি। খবর, সেই আর্জিমাফিক রাখিকে অন্তর্বর্তীকালীন সুরক্ষা দিতে রাজি হয়েছে আদালত।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE