• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ধর্ষণ-খুনের হুমকিতে আর চুপ নয়, থানায় গেলেন সুশান্তের বান্ধবী রিয়া

Rhea Chakraborty
ছবি: সংগৃহীত।

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর জন্য তাঁকেই কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন নেটিজেনদের একাংশ। কটূক্তি তো বটেই, সোশ্যাল মিডিয়ায় ধর্ষণ বা খুনের হুমকিও পেয়েছেন। তা নিয়ে ইনস্টাগ্রামে আগেই সরব হয়েছিলেন সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী। এমনকি সাইবার অপরাধদমন শাখা-সহ খোদ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকেও এ নিয়ে হস্তক্ষেপের আর্জি জানিয়েছিলেন তিনি। তবে এ বার আর সোশ্যাল মিডিয়ায় নয়, একেবারে থানায় গিয়ে অভিযোগ জানালেন রিয়া।

শনিবার মুম্বইয়ের সান্তাক্রুজ থানায় গিয়ে দু’জন ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীর বিরুদ্ধে এফআইআর করেছেন রিয়া। ওই দু’জনের বিরুদ্ধে কুরুচিকর মেসেজ পাঠানো-সহ ধর্ষণের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। সান্তাক্রুজ থানার এক আধিকারিক বলেন, ‘‘রিয়া চক্রবর্তীর অভিযোগের ভিত্তিতে দু’জনের বিরুদ্ধে  এফআইআর করা হয়েছে।’’ ওই আধিকারিক আরও জানিয়েছেন, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি ৫০৭ ধারা-সহ আইটি অ্যাক্টের ৬৬ ধারায় তাঁদের বিরুদ্ধে এফআইআর করেছে মুম্বই পুলিশ। ওই দু’জনের বিরুদ্ধে বেনামে ভয় দেখানো ছাড়া মহিলাদের প্রতি অপমানজনক আচরণের অভিযোগ আনা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, গত কাল থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করার সময় ওই দু’জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ এবং খুনের হুমকির খুঁটিনাটি বর্ণনা দিয়েছেন রিয়া। মুম্বই পুলিশ জানিয়েছে, ওই দু’জনের পরিচয় জানতে পেরেছেন তাঁরা। তদন্তকারীদের আশ্বাস, শীঘ্রই অভিযুক্তদের পাকড়াও করা হবে।

আরও পড়ুন: সেরে উঠুন ঐশ্বর্যা! এমনটাই কি প্রার্থনা জন সেনার?

আরও পড়ুন: সুশান্ত-কাণ্ডের তদন্তে চার ঘণ্টা জেরা আদিত্য চোপড়াকে

আরও পড়ুন: অনলাইন গেমিং স্টেশনের ফাঁদ, লক্ষাধিক টাকা প্রতারণার শিকার অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়

মাসখানেক আগে সুশান্তের আত্মহত্যার পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ার রিয়ার বিরুদ্ধে একের পর এক বিরূপ মন্তব্য ভেসে এসেছে। সুশান্তের মৃত্যুর এক মাসের মাথায় তাঁর ইনস্টা-পোস্টের পর থেকে তা যেন তুঙ্গে ওঠে। প্রায় সকলেই সুশান্তের মৃত্যুর জন্য রিয়াকে দায়ী করতে থাকেন। প্রথম চুপ থাকলেও অবশেষে তা নিয়ে মুখ খোলেন রিয়া। তবে ধর্ষণের হুমকি পাওয়ার পর  ইনস্টাগ্রামে নিজের পোস্টে এক অভিযুক্তের নাম করে একেবারে ফুঁসে উঠেন। তিনি লিখেছিলেন, ‘‘আমাকে অর্থলোভী বলা হয়েছে... আমি চুপ করে ছিলাম। আমাকে খুনি বলা হয়েছে... আমি চুপ করে রইলাম... আমাকে দেহব্যবসায়ী বলা হল... তা-ও চুপ থাকলাম। কিন্তু আমার নীরবতা আপনাকে কী ভাবে এই অধিকার দেয় মান্নু রাউত, যাতে আপনি বলতে পারেন,আত্মহত্যা না করলে আমাকে ধর্ষণ করিয়ে দেবেন বা খুন করাবেন?’’ এতেই থেমে থাকেননি রিয়া। হুমকি প্রদানকারী মান্নু রাউতের বিরুদ্ধে তাঁর মন্তব্য, ‘‘আপনি জানেন, কী গুরুতর কথা বলেছেন? এগুলো অপরাধ। এবং আইনের চোখে কোনও ব্যক্তি, আমি ফের বলছি, কোনও ব্যক্তিকেই এ ধরনের বিষাক্ত মন্তব্য ও হয়রানির শিকার করা যেতে পারে না।’’ এর পর সাইবার ক্রাইম বিভাগেও এ নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করার আর্জি জানান রিয়া।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন