Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

এ সব সেক্সিস্ট কমেন্ট কিন্তু কর্ণ বা আদিত্যকে হজম করতে হয়নি: রেহা

২১ বছরেই রেহা ঠিক করে নেন, দিদির মতো অভিনেত্রী নয়, প্রযোজক হবেন তিনি।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১৭ এপ্রিল ২০২০ ১৪:১৩
বাবা অনিল কপূরের সঙ্গে রেহা।

বাবা অনিল কপূরের সঙ্গে রেহা।

বাবা অনিল কপূর, দিদি সোনম— জন্ম থেকেই কপূর খানদানের ট্যাগ রয়েছে রেহা কপূরের সঙ্গে। কিন্তু জানেন কি ‘সোনার চামচ’ মুখে নিয়ে জন্মানো রেহাও হয়েছেন লিঙ্গবৈষম্যের শিকার! করিনা কপূরের চ্যাট শো-তে এসে বিস্ফোরক তিনি।

রেহা জানান, ২১ বছরেই তিনি ঠিক করে নেন, দিদির মতো অভিনেত্রী নয়, প্রযোজক হবেন তিনি। কিন্তু মেয়ে হয়ে তিনি কেন প্রযোজনায় আসবেন, মানতে অসুবিধে হয়েছিল অনেকেরই।

“যখন কাজ করতে শুরু করি, তখন অনেকেই অদ্ভুত দাম্ভিকতা নিয়ে কথা বলতে শুরু করে। সামনে-পিছনে অনেকেই বলতে থাকে, ‘ও তো সিনেমা-সিনেমা খেলতে এসেছে’। আমি কাজের ব্যাপারে একেবারেই সিরিয়াস নই, এমন মন্তব্যও করেছিলেন অনেকে। আমি অনিল কপূরের মেয়ে। আমাকেই যদি এ সব শুনতে হয়, তা হলে অন্যান্য মহিলাদের কী অবস্থার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়, তা ভাবতেই পারছি না”, উদ্বেগের সঙ্গে বলেন রেহা।

Advertisement

আরও পড়ুন- লকডাউনে ধুঁকছে টলিউড, ক্ষতির শঙ্কা ২০০ থেকে ৩০০ কোটির

এখানেই শেষ নয়, পুরুষ অভিনেতা, ম্যানেজার, পিআরএজেন্ট সবার থেকেও অনেক সময়েই সেক্সিস্ট কমেন্ট উড়ে এসেছে রেহার উদ্দেশে। ছাড় পায়নি বোর্ডরুমও। সেখানেও হতে হয়েছে লিঙ্গ বৈষম্যের শিকার। শুধু পুরুষ অভিনেতাই নয়, মহিলা অভিনেতার থেকেও উড়ে এসেছে নানা সেক্সিস্ট মন্তব্য।

পুরুষ প্রযোজকের থেকে এক জন মহিলা প্রযোজকের জার্নি এই ইন্ডাস্ট্রিতে ঠিক কতটা আলাদা? কতটা চ্যালেঞ্জিং?

রেহার কথায়, “কর্ণ জোহর, আদিত্য চোপড়া সহ পুরুষ প্রযোজকদেরও কেরিয়ারের শুরুতে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয়েছিল। কিন্তু আর যাই হোক, সবাই তাঁদেরকে পাত্তা দিয়েছিল। তাঁদের ফেসভ্যালুর কিছু দাম ছিল। এই সব সেক্সিস্ট কমেন্ট উড়ে আসেনি তাঁদের কাছে। হজম করতে হয়নি লিঙ্গবৈষম্য। কিন্তু আমার ক্ষেত্রে হয়েছিল ঠিক তার উল্টো। একজন সৃষ্টিশীল মানুষের পক্ষে এর থেকে খারাপ হয়তো আর কিছু হতে পারে না। ”

আরও পড়ুন: ‘সাম্প্রদায়িক পোস্ট’, টুইটার থেকে সাসপেন্ড কঙ্গনার দিদি রঙ্গোলি

রেহার মতে পুরুষশাসিত ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে মেয়েদের বার বার পরীক্ষা দিতে হয়। প্রমাণ করতে হয়, সে-ও কোনও অংশে কম নয়।

ভয় পাননি তিনি। ঘুরে দাঁড়িয়েছেন। নিজেকে প্রমাণ করেছেন। আজ যদিও সেই সব সমালোচনা, ভ্রুকুঞ্চন অতীত। ‘আয়েশা’, ‘খুবসুরত’, ‘বীরা দি ওয়েডিং’ সহ বেশ কিছু সফল ছবি প্রযোজনা করে খ্যাতি অর্জন করছেন তিনি ইতিমধ্যেই।

আরও পড়ুন

Advertisement