ইনস্টাগ্রামে ডিজ়াইনার সব্যসাচী মুখোপাধ্যায় একটি পোস্ট করেছিলেন সম্প্রতি। সেখানে লেখা ছিল, ‘‘যে মহিলারা অতিরিক্ত সাজেন, মেকআপ করেন, গয়না পরেন, বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায়, তাঁরা ভিতরে ভিতরে রক্তাক্ত... তাঁদের সঙ্গ দিন, সারিয়ে তুলুন। কারণ সহানুভূতি যে কোনও বহুমূল্য গয়নার চেয়েও বেশি দামি।’’

ডিজ়াইনার আসলে মানসিক অবসাদগ্রস্তদের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে পোস্টটি করেছিলেন। কিন্তু সেটি পড়ে অনলাইনে অনেকেরই মনে হয়েছে, সব্যসাচী একটি মেয়ের ব্যক্তিস্বাধীনতার কথা ভুলে গিয়ে এমন মন্তব্য করেছেন। কেউ লিখেছেন, ‘আমরা কোন শতাব্দীতে বাস করছি? এমনও তো হতে পারে, মেয়েটির মনে হয়েছে সে বেশি সাজবে, বেশি করে লিপস্টিক লাগাবে! তার জন্য তাকে মানসিক অবসাদগ্রস্ত কেন হতে হবে!’

আবার কেউ লিখেছেন, ‘সব্যসাচী যা বলছেন, সেই হিসেব মতো ওঁর সমস্ত ‘ব্রাইড’ই মানসিক অবসাদগ্রস্ত!’ এই সমালোচনার মুখে পড়ে সব্যসাচী চটজলদি ইনস্টাগ্রামে ক্ষমাপ্রার্থনা করে আর একটি পোস্ট দেন। সেখানে লেখেন, ‘আমি ভালবাসা এবং সহানুভূতির কথাই বলতে চেয়েছিলাম। বলতে চেয়েছিলাম, বাহ্যিক সাজপোশাকের বাইরেও মানুষের একটি ব্যক্তিত্ব থাকে। কিন্তু যে ভাবে পোস্টটি লেখা হয়েছিল, সেটা ঠিক নয়। এর জন্য শর্তহীন ভাবে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।’