স্বপ্ন পূরণের জন্য আপনি কী কী করতে পারেন? ভাল কেরিয়ার, ভাল জীবনের জন্য কী কী বিসর্জন দিতে পারেন? ‘শব’ ছবিতে দিল্লির পটভূমিতে তারই গল্প বলেছেন বাঙালি পরিচালক ওনির। কিন্তু জটিল সম্পর্কের টানাপড়েন ও সাব-প্লটের ঠেলায় ছবি শেষ পর্যন্ত জমেনি।

বাস্তবে মডেলিং জগতে হাতেখড়ি আশিস বিস্তের। ছবিতেও রয়েছেন এক মডেলের ভূমিকায়। ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রির এক গুরুত্বপূর্ণ সদস্যের সঙ্গে জটিল সম্পর্কে বাঁধা তিনি। এই চরিত্রে দেখা যাবে রবিনা টন্ডনকে। এখানে বলে রাখা দরকার, রবিনা কিন্তু তাঁর ফিল্মি কেরিয়ারের দ্বিতীয় ইনিংসে যথেষ্ট প্রশংসা পাওয়ার যোগ্য। স্ক্রিন প্রেজেন্স ও ফিগার সাইজ নিয়ে যদি মাথা না ঘামান, তবে ‘লুক অ্যান্ড ফিল’-এও সেই পুরনো ‘র‌্যাভিশিং’ রবিনাকেই আপনি পাবেন।

এই ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়কে কাস্ট করেছেন ওনির। বাংলার মেয়ে অর্পিতাকে বেশ অন্যরকম দেখতে লেগেছে ছবিতে। অভিনয়ও খারাপ করেননি। বলিউড ডেবিউ ছবি অনুযায়ী ভাল মার্কস তাঁকে দিতেই হচ্ছে। ছবিতে একটি কফিশপ চালাতে দেখা গেল অর্পিতাকে। এ ছাড়াও এক ফরাসি ভাষার শিক্ষিকার ভূমিকায় রয়েছেন সাইমন ফ্রিনে। তাঁর অভিনয়ও বেশ ভাল লাগবে।

আরও পড়ুন, মন জয় করলেন রণবীর ‘জগ্গা’ কপূর, চমকে দিলেন শাশ্বতও

উর্দু ভাষায় ‘শব’ শব্দের অর্থ রাত্রি। এ ছবিতে বিভিন্ন ইমোশনকে লেন্সে ধরেছেন পরিচালক ওনির। কিন্তু ইমোশনগুলো দর্শককে ঠিক ঠিক জায়গায় ছুঁতে পারেনি। কখনও মনে হয়েছে, খাপছাড়া। আবার কখনও ‘ওভার অ্যাক্ট’।

‘শব’-এর একটি দৃশ্যে অর্পিতা ও আশিস। ছবি: ইউটিউবের সৌজন্যে।

তবে প্রশংসা করার মতো ছবির সিনেম্যাটোগ্রাফি। দিল্লিকে নানা রূপে তুলে ধরতে দারুণ দারুণ ফ্রেম ব্যবহার করেছেন পরিচালক। সমলিঙ্গ  বিবাহ বা একক মাতৃত্বের বিষয়ে অভিনেতাদের মুখে ডায়ালগ থাকলেও, প্রসঙ্গ খুব একটা যুক্তিযুক্ত হয়নি।