Advertisement
০১ ডিসেম্বর ২০২২
miss jojo

Miss Jojo: আমি বিয়ে করেছি ঝুম্পাকে! সাধারণ জ্ঞানও নেই গুগলের? উইকিপিডিয়ার ভুলে তিতিবিরক্ত জোজো

মুম্বইবাসী তাঁর এক সুরকার বন্ধু এ দিন তাঁকে একটি স্ক্রিনশট পাঠান। সেটা দেখার পর থেকে যারপরনাই ক্ষুব্ধ শিল্পী। কী রয়েছে সেখানে? উইকিপিয়ার সৌজন্যে মুম্বইয়ের পুরুষ কণ্ঠশিল্পী জোজো এবং কলকাতার গায়িকা জোজো মিলেমিশে ‘হাঁসজারু’! সেই অনুযায়ী কলকাতার জোজোর ‘বউ’ রয়েছে!

উইকিপিডিয়ার উপর বেজায় চটেছেন মিস জোজো!

উইকিপিডিয়ার উপর বেজায় চটেছেন মিস জোজো!

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২০ এপ্রিল ২০২২ ১৮:১৪
Share: Save:

মঙ্গলবার থেকে আক্কেলগুড়ুম গায়িকা জোজো মুখোপাধ্যায়ের। যিনি গানের দুনিয়ায় মিস জোজো নামে খ্যাত।

মুম্বইবাসী তাঁর এক সুরকার বন্ধু এ দিন তাঁকে একটি স্ক্রিনশট পাঠান। সেটা দেখার পর থেকে যারপরনাই ক্ষুব্ধ তিনি। কী রয়েছে সেখানে? উইকিপিয়ার সৌজন্যে মুম্বইয়ের পুরুষ কণ্ঠশিল্পী জোজো এবং কলকাতার গায়িকা জোজো মিলেমিশে ‘হাঁসজারু’! সেই অনুযায়ী কলকাতার জোজোর ‘বউ’ রয়েছে! তিনি বিয়ে করেছেন ঝুম্পাকে! বিষয়টি জানতে আনন্দবাজার অনলাইন যোগাযোগ করেছিল গায়িকার সঙ্গে। বিরক্ত জোজো বলেন, ‘‘গুগল বা উইকিপিডিয়ার কী সামান্য সাধারণ জ্ঞানটুকুও নেই? বাকি সব বাদ দিন। আমি মেয়ে, এ দিকে আমার বউ ঝুম্পা! আমার ছবিটি তো ঠিক দিয়েছে। সেটা দেখেও তো বোঝা উচিত ছিল আমি মেয়ে!’’

Advertisement
ভুলে ভরা উইকিপিডিয়া পেজ!

ভুলে ভরা উইকিপিডিয়া পেজ!

শুধু এই একটি ভ্রান্তিই নয়। জন্মসাল থেকে স্বামী, সন্তানদের নাম— সবটাই ভুলে ভরা। জোজোর বাবা জনপ্রিয় অভিনেতা মৃণাল মুখোপাধ্যায়। তাঁদের পৈতৃক ভিটে জামশেদপুরে। সেখানে তাঁর ঠাকুর্দা থাকতেন। বাবাও ছোটবেলা কাটিয়েছেন সেখানেই। কিন্তু গায়িকা কখনও জামশেদপুরে বড় হননি। অথচ উইকিপিডিয়ায় জ্বলজ্বল করছে জোজোর জন্ম এবং বেড়ে ওঠা জামশেদপুরে! একই ভাবে জোজোর স্বামী কিংশুক মুখোপাধ্যায়। জোজোর কথায়, ‘‘গানের দুনিয়া তাঁকে চেনে বাবলু নামে। আমার মেয়ের নাম বাজো। ভাল নাম মেহেকা মুখোপাধ্যায়। ছেলের নাম জিজো নয়, আদীপ্ত। ওকে ২০১৯-এ দত্তক নিয়েছি।’’

আপাতত এই ভ্রান্তিবিলাসে নাজেহাল গায়িকা। তাঁর যুক্তি, প্রবাসে অনেকেই আমন্ত্রণ জানানোর আগে উইকিপিডিয়া দেখে শিল্পীকে জানার চেষ্টা করেন। এ বার তাঁরা মিস জোজোকে চিনতে গিয়ে কাকে চিনবেন? গায়িকা এটাও জানেন না, কোথায়, কী ভাবে যোগাযোগ করলে এই ভুল সংশোধন সম্ভব। অথবা আদৌ এই ভ্রম সংশোধন সম্ভব কি না! আপাতত তাই মনের বিরক্তি উগরে দিয়েছেন ফেসবুকেই!

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.