• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘সেক্স রিহ্যাবে যান’, #মিটু বিতর্কে আবারও অনু মালিককে এক হাত দিলেন সোনা

sona and ANU
সোনা মহাপাত্র এবং অনু মালিক।

Advertisement

অনু মালিক, তাঁর উপর একগুচ্ছ #মিটু-র অভিযোগ। কখনও উঠতি গায়িকাকে স্টুডিওতে ডেকে অশালীন আচরণ আবার কখনও বা সোনা মহাপাত্র-র মতো পরিচিত গায়িকার সঙ্গে ন্যক্কারজনক যৌন হেনস্থা... এত দিন এই সমস্ত অভিযোগ নিয়ে চুপ থাকলেও, অবশেষে দু’দিন আগে টুইটারে আত্মপক্ষ সমর্থন করে একটি পোস্ট দেন অনু। আর এর পরই অনুকে ‘সেক্স রিহ্যাব’-এ যেতে বলে নতুন করে তোপ দাগলেন সোনা।

পোস্টে অনু লিখেছিলেন, “এক বছর ধরে এই সমস্ত মিথ্যা অভিযোগ চুপ করে শুনে যাচ্ছিলাম। এখন মনে হচ্ছে চুপ করে ছিলাম বলেই লোকে যা ইচ্ছে তাই ভেবে নিয়েছে। দুই কন্যার বাবা আমি। আমি কোনওদিন স্বপ্নেও এরকম ঘৃণ্য কাজ করতে পারব না।” তার জবাবে সোনা টুইটারে লেখেন, “আপনি দয়া করে সেক্স রিহ্যাবে যান।  আপনার সন্তানদের বলুন আপনার পরিবারের জন্য টাকা কামাতে।”

বর্তমানে অনু এক রিয়েলিটি শো-র পরিচালকের ভূমিকায় রয়েছেন। সেই প্রসঙ্গ টেনে এনেও সোনা লেখেন, “আপনার কোনও অধিকার নেই বিচারক হওয়ার। আপনি কখনওই রোল-মডেল হতে পারেন না। আপনার সেই যোগ্যতা নেই। আপনি দুই মেয়ের বাবা বলেই যে আপনি ওরকম ঘৃণ্য কাজ করতে করেননি তা প্রমাণিত হয়না। ‘কিছু’ পুরুষ এ রকমই। এর বিচার ঠিক হবে।”

আরও পড়ুন-প্রকাশ পেল অপুর লুকে অর্জুন, অপর্ণার লুকে দিতিপ্রিয়া-র ফার্স্টলুক, কেয়ার অব ‘অভিযাত্রিক’

 

দেখুন অনু মালিকের টুইট 

 

সাল ২০১৮। ওড়িশার সঙ্গীতশিল্পী সোনা মহাপাত্র এবং যশরাজের নাতনি শ্বেতা পণ্ডিত  প্রথম গীতিকার-সুরকার অনু মালিকের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছিলেন। শুধু ওঁরাই নন, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরও এক মহিলা এক সংবাদমাধ্যমকে বলেছিলেন, “আমি অনু মালিকের বাড়িতে গিয়ে কুৎসিত পরিস্থিতির মুখোমুখি হই। একটি সোফাতে আমার খুব কাছে এসে বসেছিলেন তিনি। ওঁর পরিবারের কেউ বাড়িতে নেই, এটা জানার পরেই বুঝতে পারি আমি ফাঁদে পড়ে গিয়েছি। উনি আমাকে জোর করে চেপে ধরে আমার স্কার্ট টেনে নামিয়ে দিয়েছিলেন। তার পর নিজের প্যান্টের চেন খুলে আমাকে চেপে ধরেছিলেন অনু মালিক। সৌভাগ্যবশত, সেই সময়ই দরজায় বেল বেজে ওঠে। আমি বেঁচে যাই।’’ এই সব অভিযোগের কারণেই গত বছর অনুকে ‘ইন্ডিয়ান আইডল’-এর বিচারকের পদ থেকে ছেঁটে ফেলা হয়। কিন্তু এ বছর আবার তাঁকে সেই পদে পুনর্বহাল করা হলে সোনা প্রতিবাদ জানান। শুধু সোনাই নন, নিজের তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা ভাগ করে নেন আর এক গায়িকা নেহা ভাসিনও। ২১ বছর বয়সে এক স্টুডিয়োতে অনুর সঙ্গে ‘অস্বস্তিকর সাক্ষাতের অভিজ্ঞতা’ টুইটারে শেয়ার করেছেন নেহা। তাঁর সামনে সোফায় শুয়ে অনু যে ধরনের কথা বলছিলেন, তা তাঁকে প্রবল অস্বস্তিতে ফেলেছিল বলে জানান নেহা।

আরও পড়ুন-একটা সুযোগ দিয়ে দেখুন, ভাল লাগলে হাততালি দেবেন, না হলে গালাগালি: টোটা

দেখুন নেহার পাল্টা টুইট 

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন