Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৫ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Sourav-Darshana: শুধু দর্শনা কেন! অনিন্দিতা, মধুমিতার সঙ্গেও অনায়াসে পর্দা ভাগ করব: সৌরভ

সৌরভের কথায়, ‘‘এক ছবিতে মধুমিতা-আমি-অনিন্দিতাকে পরিচালক দেখতে চাইলে আমার কোনও আপত্তি নেই। পেশার জন্য আমি সব সময় অনায়াস।’’

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৫ এপ্রিল ২০২২ ২৩:৪০
Save
Something isn't right! Please refresh.
সৌরভ-দর্শনার তৃতীয় ছবি ‘হৃদয়পুর’।

সৌরভ-দর্শনার তৃতীয় ছবি ‘হৃদয়পুর’।
নিজস্ব চিত্র।

Popup Close

সৌরভ দাস আর দর্শনা বণিকের মধ্যে বিশেষ কিছু আছে? টলিপাড়া বলছে, গন্ধটা সত্যিই সন্দেহজনক।

এই নিয়ে তিনটি ছবিতে জুটি বেঁধে ফেললেন তাঁরা। ক্যামেরার সামনে দাঁড়ালেই নাকি জুটির চোখ-মুখ থেকে বাড়তি জৌলুস ঠিকরে পড়ে! ইতিমধ্যেই জুটির প্রথম কাজ ‘অল্প হলেও সত্যি’ দর্শক প্রশংসিত। সেই রেশ কাটার আগেই প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেতে চলেছে প্রীতম মুখোপাধ্যায়ের ‘রিষ’। এই ভৌতিক ছবিতে সৌরভ-দর্শনার বছর ছয়েকের এক মেয়েও রয়েছে। পয়লা বৈশাখের দিন ঘোষণা হল তাঁদের তৃতীয় ছবি ‘হৃদয়পুর’-এর কথা।

ছবিতে উলটে পালটে প্রেম করবেন নায়ক-নায়িকা। এর পরেও টালিগঞ্জ বলবে না, সৌরভ আর দর্শনার মধ্যে বিশেষ কিছু আছে! আনন্দবাজার অনলাইন এই প্রশ্ন রাখতেই এক বাক্যে সায় দিয়েছেন সৌরভও। তাঁর বক্তব্য, ‘‘দর্শনা কেন জানি বলতে চায় না, ওর প্রথম ছবির নায়ক আমি। ছোট পর্দাতেও এক সঙ্গে কাজ করেছি। আমার পরিচালনায় দর্শনা নায়িকার ভূমিকায় অভিনয় করেছে। ফলে, আমাদের মধ্যে যোগাযোগ কিন্তু রয়েই গিয়েছে।’’ সেটাই নাকি পোক্ত হয়েছে সৌম্যজিৎ আদকের ‘অল্প হলেও সত্যি’-তে। অভিনেতার কথায়, তিন মাথা এক মানেই বড় কিছু ঘটতে চলেছে।

Advertisement

সৌরভের বিশুদ্ধ প্রেমিক রূপ কিন্তু কোনও পর্দাই কখনও দেখতে পায়নি। সে দিক থেকেও ‘হৃদয়পুর’ ব্যতিক্রম। সঙ্গে সঙ্গে এই তত্ত্ব নাকচ করেছেন সৌরভ স্বয়ং। তাঁর কথায়, ‘‘যে কোনও মাধ্যমেই শুধু প্রেম আমি কখনও করব না। আমার অভিনীত চরিত্রে একাধিক স্তর থাকতে হবে। পরিচালকেরাও এই ধরনের চরিত্রেই আমায় পছন্দ করেন। আগামী ছবিও এর ব্যতিক্রম নয়।’’ পর্দার ‘মন্টু পাইলট’-এর মতে, এই ধারা নাকি ‘চরিত্রহীন ১’ থেকে শুরু হয়েছে। দেবালয় ভট্টাচার্য পরিচালিত ওই সিরিজে তাঁর অভিনয় দেখে নাকি ভূয়সী প্রশংসা করেছিলেন সৃজিত মুখোপাধ্যায় স্বয়ং। তার পর থেকেই পরিচালকেরা তাঁকে এই ধারার চরিত্রেই ডাকছেন তাঁকে। এবং সৌরভও তাতে খুশি।


ফাইল চিত্র।


সৌম্যজিতের আগামী ছবিতে প্রেম পটভূমিকা। তাকে ঘিরে থাকে রহস্য, খুন। শহুরে ছেলে সৌরভ পেশার তাগিদে পৌঁছে যাবেন গ্রামে। সেখানকার গ্রাম প্রধানের মেয়ে দর্শনা। প্রথম দর্শনেই প্রেম। আদতে কি সত্যিই উপার্জনের কারণে গ্রামে পা রাখা নাকি আচমকা ঘটে যাওয়া এক খুনের বদলা নিতেই সৌরভের এই পদক্ষেপ? পরিচালক এর বেশি আর ভাঙতে রাজি নন কিছুতেই। ছবিতে সৌরভ-দর্শনা ছাড়াও থাকবেন অর্ণ মুখোপাধ্যায়-ঐশ্বর্য সেন। সৌরভের বোনের ভূমিকায় দেখা যাবে ঐশ্বর্যকে। কলকাতা শহরে হবে ছবির শ্যুটিং। হৃদয়পুর মুক্তি পাবে "হোয়াইটস ফেদারস প্রোডাকশন ও কলকাতা ফিল্মস" এর ছাতার নীচে। প্রযোজক প্রদীপ বাজাজ ও অরিজিৎ বোস।

পর্দার ঘন ঘন প্রেম পর্দার বাইরেও সত্যি হলে? সৌরভের দাবি, বন্ধুত্বেও এক ধরনের ভালবাসা জন্মায়। সেটা তাঁর মধ্যে আছে। তাই পর্দায় তাঁর সঙ্গে সবাই অনায়াস। তিনি ভাল বন্ধুত্ব করে নিতে জানেন। একই ভাবে কোনও দিন তাঁর বিপরীতে অনিন্দিতা বসু আর মধুমিতা সরকারকে কোনও পরিচালক বাছলে? ওঁদের কেন সৌরভের বিপরীতে বেশি দেখা যায় না? প্রশ্ন শুনে আগে হো হো হেসেছেন তিনি। হাসতে হাসতেই জবাব এসেছে, ‘‘এক ছবিতে মধুমিতা-আমি-অনিন্দিতাকে পরিচালক দেখতে চাইলে আমার কোনও আপত্তি নেই। পেশার জন্য আমি সব সময় অনায়াস। আর মধুমিতা বা অনিন্দিতার সঙ্গে কেন আমায় বেশি দেখা যায় না সেটা পরিচালকেরা বেশি ভাল বলতে পারবেন।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement