Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Rathjatra Special 2022: জ্যান্ত জগন্নাথ-বলরাম-সুভদ্রা! জিমন্যাস্টিক ভুলে রথযাত্রায় মত্ত ‘ফড়িং’

কাঁসর-ঘণ্টা, শাঁখ-উলু ধ্বনির মধ্যে দিয়েই রথের রশিতে টান।উদ্‌যাপন শেষে তারকা খচিত জলসা পরিবারে রথযাত্রার জমাটি ভুরিভোজ।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৮ জুন ২০২২ ০৯:৪৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

ধূপের ধোঁয়া, দীপের আলোয় আচ্ছন্ন নিউ থিয়েটার্স স্টুডিয়োর চার নম্বর ফ্লোর। বাইরে ঝমঝমে বৃষ্টি। তার মধ্যেই রথযাত্রার আয়োজন সারা। পরিবারের গিন্নির তত্ত্বাবধানে কীর্তন থেকে জগন্নাথ-বলরাম-সুভদ্রার মঙ্গলারতি, উদ্‌যাপনে কোনও খামতি নেই। স্টুডিয়োর এক পাশে সাজানো গোছানো রথ। আলোয়, ফুলে ঝলমল করছে সেট। সেখানেই হাজির স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিকের নায়ক-নায়িকারা। সেই শ্যুটে হাজির আনন্দবাজার অনলাইন। আপ্যায়নে ধারাবাহিক ‘আলতা ফড়িং’-এর কর্ত্রী ‘সুচিত্রা’ ওরফে তুলিকা বসু।

চওড়া লাল পাড় সাদা শাড়ি। পুজো উপলক্ষে আপাদমস্তক গয়নার সাজ। বনেদি গিন্নির মতোই তুলিকা এ দিন নিজে দাঁড়িয়ে তদারক করেছেন আয়োজনের। প্রথমে কীর্তন। তার পর তিন দেবতাকে ভোগ নিবেদন। পর্দায় নিজের পরিবারের পাশাপাশি উপস্থিত ধারাবাহিক ‘খুকুমণি হোম ডেলিভারি’র রাহুল মজুমদার-দীপান্বিতা রক্ষিত, ‘গ্রামের রানি বীণাপানি’র হানি বাফনা, ‘বৌমা একঘর’-এর সুস্মিতা দে প্রমুখ। ছিলেন ‘মহাপীঠ তারাপীঠ’ খ্যাত ‘তারা মা’ নবনীতা দাস। এবং শেষে মঙ্গলারতি। শ্যুটের ফাঁকেই ‘ফড়িং’ ওরফে খেয়ালি মণ্ডল এবং তাঁর পর্দার স্বামী ‘অভ্র’ অর্ণব বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, যে কোনও বাঙালি পরিবার যে ভাবে রথযাত্রায় মেতে ওঠে সে ভাবেই মাতবে জলসা পরিবারও। রথের রশি টানবেন সবাই। পুজোর পরে ভোগ, পাঁপড়ভাজা, তেলেভাজা থাকবে সবার পাতে। বসবে গানবাজনার আসরও।

Advertisement

ধ্রুব, ফড়িংয়ের মতোই এ দিন অন্য পুরুষেরা সুপুরুষ পাঞ্জাবি-পাজামায়। মেয়েরা শাড়িতে সুন্দর। এর মধ্যেই চমক জ্যান্ত জগন্নাথ-বলরাম-সুভদ্রা। সার্বিক পাল, সম্প্রীতি পাল, সুমন মণ্ডল। চিত্রনাট্য অনুযায়ী তিন শিশুশিল্পী জীবন্ত দেবতা রূপে দেখা দেবে। আনন্দবাজার অনলাইনের মুখোমুখি হতেই উচ্ছ্বাসিত তিন জনেই, ‘‘এত দিন আমরা রথ টেনেছি। এ বার সবাই আমাদের দেবতা হিসেবে দেখবে। কল্পনায় রথে বসিয়ে টানবে। দারুণ মজা লাগছে।’’ দেবতার মতোই হাত তুলে আশীর্বাদ করতেও দেখা যাবে এদের।

বেশ কিছু সময়ের পরে আবার ‘আলতা ফড়িং’ রেটিং চার্টে বাংলা সেরা। সেই জন্যই কি ধুমধাম করে পুজোর আয়োজন? তুলিকা বসুর কথায়, ‘‘সারা বছর এক সঙ্গে আমরা পরিবারের মতোই কাটাই। এই বিশেষ অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে সেই অনুভূতিকেই উস্কে দেওয়ার চেষ্টা।’’ অভিনেত্রীর আরও দাবি, মাঝের কিছুটা সময় হয়তো ‘টিম আলতা ফড়িং’ কোনও এক দিক থেকে দুর্বল হয়ে পড়েছিল। হতে পারে সেটা গল্প, চিত্রনাট্য বা অভিনয়। তাই রেটিং চার্টে পিছিয়ে গিয়েছিল ধারাবাহিকটি। গত সপ্তাহের ফলাফল দেখে সবাই উদ্দীপিত। আশা, ফের হারানো জায়গা ধরে রাখতে পারবে টিম।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Tags:
Something isn't right! Please refresh.

Advertisement