Advertisement
০৫ অক্টোবর ২০২২
Sunny Leone

sunny leone: এক সময় পর্ন তারকা ছিলাম ভেবে সন্তানরা আমায় ঘৃণা করবে না তো: সানি

প্রত্যকের জীবনেই একটা অতীত থাকে, কখনও তা সুখের, আবার কখনও তা আশঙ্কার, অতীতের সেই কালো ছায়াই তাড়া করে বেড়ায় সানিকে।

 সানি লিওনি।

 সানি লিওনি।

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই শেষ আপডেট: ০৮ জুন ২০২২ ১৯:৪৩
Share: Save:

সানি লিওনি নামে সার্চ করলেই গুগলে আসে ‘পর্ন অ্যান্ড এক্সএক্সএক্স’ ভিডিয়ো বা নিষিদ্ধ ভিডিয়ো। মোহময়ী, লাস্যময়ী রূপে তাঁকে দেখতেই অভ্যস্ত আমদুনিয়া। গুগল-এ তাঁর পর্ন ভিডিয়ো দেখে কামসুখ মেটানো দর্শকরা সানিকে অভিনেত্রী হিসেবে দেখার থেকে রতিক্রিয়া পটিয়সী হিসাবে দেখতেই পছন্দ করেন। যদিও মুম্বইয়ে ছবির জগতে তিনি এখন পরিচিত নাম। সেখানেও উত্তেজক দৃশ্যে তিনি শরীর পুড়িয়েছেন দর্শকের। মডেলিং, ফটোশ্যুটেও ইন্ডাস্ট্রিতে পাকাপাকি জায়গা করে নিয়েছেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা সানির রিলও যথেষ্ট জনপ্রিয়। সেখানে কখনও মজার ভিডিয়ো, কখনও শ্যুটিংয়ের দৃশ্য আবার কথনও পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোর মুহূর্ত থাকে। তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা নেহাত কম নয়। আর এই সবের মধ্যে দিয়েই পর্ন তারকার তকমা ঝেড়ে ফেলতে চান তিনি।

প্রত্যেকের জীবনেই একটা অতীত থাকে, কখনও তা সুখের, আবার কখনও তা আশঙ্কার, সে ক্ষেত্রে সেই অতীতের কালো ছায়াই তাড়া করে বেড়ায় জীবন। বিশেষ করে পরিবারের কাছে কখনও জবাবদিহিও করতে হয়। কেউ কি তাঁর অতীত নিয়ে প্রশ্ন করবে? এই ভয়ই মাঝেমাঝে আচ্ছন্ন করে রাখে তাঁকে। মুম্বই ছবির জগতে পরিচিতি পেলেও নিজের অতীতকে কখনও অস্বীকার করেননি তিনি। ড্যানিয়েল ওয়েবারের সঙ্গে ২০১১-এ বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন সানি। তিন সন্তানকে নিয়ে তার সুখের সংসার। কিন্তু অতীতের স্মৃতি এখনও তাকে তাড়িয়ে বেড়ায়। সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যকে এমনই আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন সানি।

এখনও তো গুগলে ক্লিক করলেই সানিকে একাধিক পুরুষের সঙ্গে রগরগে শয্যাদৃশ্যে দেখা যায়। সারা পৃথিবী দেখছে এই ছবি। কোনও একদিন হয়তো সানির সন্তানরাও দেখবে এই দৃশ্য। এই ভেবেই আতঙ্কিত সানি। তাঁর অবচেতন মন মনে করে এই কারণেই তাঁর সন্তানরা বড় হয়ে তাঁকে অপছন্দ করবেন, তাঁর অতীতের জন্য।

‘‘আমার সন্তানরা বড় হয়ে আমাকে পছন্দ করতে নাও পারে, আমার অতীতই তার কারণ হতে পারে। আমাকে নিয়ে বাইরের জগতে যত রটনা রয়েছে, তার উত্তর দিতে হলে তাদের সঙ্গে কথা বলে সব জানাতে হবে, যাতে সব প্রশ্নের উত্তর তারা দিতে পারে। ওরা যেন বুঝতে পারে আমার যে কাজ ভাল লাগে আমি সেটাই করেছি। ওরাও ভবিষ্যতে ওদের পছন্দমতো কাজ করতে পারে।’’

সন্তানকে বড় করে তোলার জন্য একজন মাকেই ঝক্কি পোহাতে হয় সবথেকে বেশি। এই নিয়মেই এখনও বাঁধা সমাজ। মা পেশার সঙ্গে যুক্ত থাকুন না কেন, বাচ্চাকে সময় তাকেই দিতে হয়। সন্তানের ওপর মার প্রভাব কিছু কম নয়। তাই লাস্যময়ী পর্ন তারকার তকমা কাটিয়ে স্নেহময়ী মা হয়ে উঠতে পারবেন তো? ভাবাচ্ছে সানিকে।

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তেফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ

Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.