• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘কেউ আমাকে শেষ করে দিতে চাইছে’, মৃত্যুর আগাম গন্ধ পেয়েছিলেন সুশান্ত?

main
সুশান্ত সিংহ রাজপুত

এই ভাবনা কি স্কিৎজোফ্রেনিয়া থেকে? না, সত্যিই মৃত্যুর আগাম গন্ধ পেয়েছিলেন সুশান্ত সিংহ রাজপুত? অপমৃত্যুর ঠিক ১৪ দিন পরে এই প্রশ্ন মন থেকে কিছুতেই সরাতে পারছেন না অভিনেতার অনুরাগীরা। বিশেষ করে সুশান্তের ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা। কারণ, তাঁদের নাকি প্রায়ই সুশান্ত বলতেন, কেউ তাঁকে সমূলে বিনাশ করতে চাইছে!

তদন্তে নেমে মহারাষ্ট্র পুলিশ জানতে পেরেছে, মৃত্যুর মাস তিনেক আগে থেকেই নাকি এই ধরনের কথা বন্ধুদের প্রায়ই বলতেন তিনি। নির্দিষ্ট কারও নাম না বললেও তিনি নাকি টের পেয়েছিলেন, ইন্ডাস্ট্রির কিছু মানুষ তাঁকে 'টার্গেট' বানিয়েছেন। তাঁরাই অকারণে মিথ্যে রটনা ছড়িয়ে তাঁর কেরিয়ার নষ্ট করতে উঠেপড়ে লেগেছিলেন বলে মনে করেছিলেন সুশান্ত।

সুশান্তের কথা অনুযায়ী, তাঁর উপস্থিতি কেউ কেউ সহ্য করতে পারতেন না। অনেকেই নাকি চাননি, তিনি ইন্ডাস্ট্রিতে টিকে থাকুন, অভিনয় করুন। যদিও এর সঠিক কারণ তিনিও গুছিয়ে বলতে পারেননি বলেই তদন্তে উঠে এসেছে।

আরও পড়ুন- স্বজনপোষণ নিয়ে কথা বলার সময় এটা নয়: প্রসেনজিৎ



তাঁর ঘনিষ্ঠ সুত্রে খবর, সুশান্তকে চেপে দেওয়ার চেষ্টা করেছিল যশরাজ ফিল্মস। চুক্তির অজুহাতে বাইরের একাধিক ছবিতে কাজ করতে দেয়নি। অথচ চুক্তিমতো তিনটি ছবি করার ব্যাপারে গড়িমসি করছিল। দুটি ছবির প্রযোজনা করলেও তৃতীয়টি তৈরির কোনও চেষ্টাই করেনি আদিত্য চোপড়ার সংস্থা। উপরন্তু এই চুক্তির জেরেই অভিনেতার হাত থেকে বেরিয়ে গিয়েছিল ‘রাম লীলা’ এবং ‘বেফিকরে’র মতো ছবি। যাতে চুক্তিতে থাকা অবস্থায় অভিনয় করেছিলেন রণবীর সিংহ।

শুধু এই দুটোই নয়, ছয় মাসে সাতটি ছবি হাতছাড়া হয়েছিল অভিনেতা। এটাও ষড়যন্ত্র? নাকি, মানসিক অবসাদে ভোগার ফলে আচরণে পরিবর্তনের কারণ কাজ চলে যায় হাত থেকে? ভাবাচ্ছে বান্দ্রা পুলিশকে।

যেহেতু সুশান্তের মৃত্যুর পরে স্বজনপোষণের দুর্নীতি মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে এবং সুশান্ত ছিলেন বলিপাড়ায় ‘বহিরাগত’ তাই এদিকটা একেবারে এড়িয়ে যাচ্ছেন না ডিসিপি অভিষেক ত্রিমুখ। এক ভিডিয়ো বার্তায় তিনি জানিয়েছেন অভিনেতার বন্ধুমহল থেকে সুশান্তের এই কথা জানার পরে বিষয়টির উপর আরও জোর দিচ্ছেন তাঁরা।

ইতিমধ্যেই জেরা করা হয়েছে ২৭ জনকে। তাঁদের আবারও ডাকা হতে পারে বলে জানিয়েছে মুম্বই পুলিশ।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন