Advertisement
০২ মার্চ ২০২৪
Sushant Singh Rajput

ফেসবুক লাইভে আত্মহত্যার ইঙ্গিত, দেহ মিলল সুশান্তের সহ-অভিনেতার

ফেসবুক লাইভে নিজের স্ত্রীর সঙ্গে কিছু অশান্তির কথা বলেছেন তিনি।

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের সঙ্গে সন্দীপ নাহার (ডানদিকে)

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের সঙ্গে সন্দীপ নাহার (ডানদিকে)

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ২৩:৩৬
Share: Save:

মৃত্যু হল আরও এক বলিউড অভিনেতার। নাম, সন্দীপ নাহার। মুম্বইয়ের গোরেগাঁও এলাকায় নিজের বাড়ি থেকে তাঁর দেহ উদ্ধার হয়। দেহটি ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, এটি আত্মহত্যা। প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুতের সঙ্গে ‘এমএস ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’-তে অভিনয় করেছিলেন সন্দীপ। এ ছাড়া অক্ষয় কুমারের ‘কেসরি’-তেও দেখা গিয়েছিল তাঁকে।

সোমবার রাতে অভিনেতার বাড়ি থেকে তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে মুম্বই পুলিশ। সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় সন্দীপকে। কিন্তু চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। মামলা রুজু হয়ে গিয়েছে বলে জানিয়েছে মুম্বই পুলিশ। তদন্ত চলছে।

ঘটনার কয়েক ঘণ্টা আগে সন্দীপের ফেসবুক প্রোফাইল থেকে একটি লাইভ করা হয়েছিল। অভিনেতা খোদ এই ভিডিয়োটিকে ‘সুইসাইড নোট’ বলে দাবি করেছেন। সেখান থেকে জানা যায়, তিনি মানসিক সমস্যায় ভুগছিলেন। পেশাগত ও পারিবারিক চাপানউতরের কথাও বলা হয়েছে ওই লাইভে।

সেই লাইভে তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘‘আমি অনেক চেষ্টা করেছি। জানি যে আত্মহত্যা করা অনুচিত। কিন্তু আর পারলাম না। আমার মৃত্যুর পরে দয়া করে আমার পরিবারকে হেনস্থা করবেন না।’’

নিজের স্ত্রীর সঙ্গে কিছু অশান্তির কথাও বলেছেন তিনি। জানিয়েছেন, তাঁরা দুই মেরুর মানুষ বলে তাঁদের মিল হত না। নিজের শাশুড়িকে নিয়েও অভিযোগ করেছেন অভিনেতা। বলেছেন, অনেক চেষ্টা করেও দাম্পত্যে শান্তি আনতে পারেননি। মুম্বইয়ে থাকাকালীন অনেক অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয়েছে তাঁকে। তবে শেষ কয়েকটা দিন একটু বেশিই ঝড় বয়ে গিয়েছে। তার থেকেই মুক্তি চান বলে দাবি করেছেন সন্দীপ।

শেষে অবশ্য জানিয়েছেন, ‘‘আমার স্ত্রী-কে কেউ কিছু বলবেন না। তবে পারলে ওঁর মাথার চিকিৎসা করাবেন।’’

সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, সন্দীপের বন্ধু বলজিৎ জানিয়েছেন, সন্দীপ দীর্ঘ দিন ধরেই মুম্বইয়ে ছিলেন। কিন্তু কখনও নিজের পরিবারের সমস্যার কথা খোলসা করেননি বলজিৎ বা অন্য বন্ধুদের কাছে। তাঁর কাছেই জানা যায়, প্রয়াত অভিনেতার পরিবার থাকে চণ্ডীগড়ে। সেখানেই তাঁর মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হবে সৎকারের জন্য।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE