Advertisement
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

বাংলা ছবিতে শ্বেতার হাতেখড়ি

আবির্ভাবে তোলপাড়। তার পরই জীবনের অন্ধকার গলিপথে নিরুদ্দেশ। আদালতে অবশ্য শেষ পর্যন্ত সে সব অন্ধকার অধ্যায় থেকে নিষ্কৃতি মিলেছে তাঁর। মিডিয়ার স্পটলাইট থেকে এ বার পর্দার আলোয় ফিরছেন শ্বেতা বসু প্রসাদ। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, ছবিটি বাংলা।

সংবাদ সংস্থা
শেষ আপডেট: ২০ জুলাই ২০১৫ ০০:০০
Share: Save:

আবির্ভাবে তোলপাড়। তার পরই জীবনের অন্ধকার গলিপথে নিরুদ্দেশ। আদালতে অবশ্য শেষ পর্যন্ত সে সব অন্ধকার অধ্যায় থেকে নিষ্কৃতি মিলেছে তাঁর। মিডিয়ার স্পটলাইট থেকে এ বার পর্দার আলোয় ফিরছেন শ্বেতা বসু প্রসাদ। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, ছবিটি বাংলা। নাম, ‘এক নদীর গল্প : টেল অফ এ রিভার’। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের একটি ছোট গল্প অবলম্বনে ছবিটি তৈরি করা হয়েছিল। ‘মকড়ি’-র সেই কিশোরীর জীবন গত ১২ বছরে নানা খাতে বয়েছে। কিন্তু সেই সব পর্ব শুরুর আগেই এই ছবিটিতে অভিনয় করেছিলেন শ্বেতা। ‘মকড়ি’-র সাফল্যের পর তাঁকে এই ছবিটির জন্য সই করিয়েছিলেন পরিচালক সমীর চন্দ। শ্বেতা যখন ১৫-র কিশোরী, তখনই ছবিটি তৈরি হয়ে যায়। ৯ বছর বন্দি থাকার পর অবশেষে ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে।

শ্বেতা জানিয়েছেন, ২০০৬ সালে ছবিটি হয়েছিল। এত দিন পর সেটি মুক্তি পাচ্ছে, তার চেয়ে খুশির খবর কিছু থাকতেই পারে না। শুধু পরিচালক সমীর চন্দ, শ্বেতার ‘সমীর আঙ্কল’ই আজ নেই। সেই শূন্যতা কুরে-কুরে খাচ্ছে শ্বেতাকে। তবে আপাতত কোনও ছবি করছেন না শ্বেতা। মুম্বইয়ের একটি প্রোডাকশন হাউসে স্ক্রিপ্ট কনসালট্যান্ট হিসেবে কাজ করছেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.