×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৩ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

দেবলীনা এবং অনিন্দ্যর বিরুদ্ধে এফআইআর, দেবলীনার স্বামী বললেন, ‘কোর্টে দেখা হবে’

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৯ জানুয়ারি ২০২১ ২০:২৩
দেবলীনা দত্ত এবং  অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়।

দেবলীনা দত্ত এবং অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়।

অভিনেত্রী দেবলীনা দত্ত এবং পরিচালক অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায় নবমীতে গরুর মাংস খাওয়া এবং রান্না করা বিষয়ে একটি চ্যানেলের চ্যাট শোতে যে মতামত জানিয়েছিলেন। তাঁদের বিরুদ্ধে বিজেপি কর্মী আইনজ্ঞ তরুণজ্যোতি তেওয়ারি ১৯ জানুয়ারি বাগুইহাটি থানায় এফআইআর দায়ের করলেন। তিনি লেখেন, " আমি কলকাতা হাইকোর্টে নিয়মিত প্র্যাকটিস করি। আমি একজন শান্তিপ্রিয় নাগরিক হিন্দু।দেবী দুর্গার উপাসক। গরুকে পুজো করি। গরুকে যে কাটবে তাঁর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে সংবিধানের ৪৮ ধারায় নির্দেশ আছে। এই ধারা মেনে উত্তর প্রদেশ, গুজরাটে গরু খাওয়া বন্ধ হলেও পশ্চিমবঙ্গে হয়নি।" এই প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন, পরিচালক অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়ের নবমীর দিন গরু খাওয়া এবং দেবলীনা দত্তের মিডিয়া তথা জনসমক্ষে নবমীর দিন গরুর মাংস রান্না করার বিষয় আইনত অপরাধ।

কলকাতা পুলিশকে লক্ষ্য করেও তিনি বলেন, "দেখা যাক পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য পুলিশ পদক্ষেপ নেয় কিনা। আইনের ছাত্র হিসেবে আইনি পথে প্রতিবাদ করতে ভালবাসি। সেটা চালিয়ে যাব। সবাইকে অনুরোধ করব শালীনতার মাত্রা রেখে আইনি পথে পদক্ষেপ নেওয়ার । পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ পদক্ষেপ না নিলে বুঝতে হবে তারাও দুর্গা পুজোর সময় গরু মাংস খাওয়া প্রমোট করে।বুদ্ধিজীবী হওয়া মানে হিন্দু ধর্মকে আক্রমণ করার লাইসেন্স পাওয়া নয়। এটা মনে হয় বোঝানোর সময় এসেছে।"

আনন্দবাজার ডিজিটাল দেবলীনা দত্তের স্বামী তথাগত মুখোপাধ্যায়কে যোগাযোগ করলে তিনি জানান বাগুইহাটি থানায় তরুণজ্যোতির এফআইআর গৃহীত হয়নি। তিনি বলেন, "কোর্টেই ওনার সঙ্গে দেখা হবে। বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য বিষয়টা দেখছেন। তবে বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে এলে ৬ থেকে ৬০ কোনও মহিলার নিরাপত্তা বলে আর কিছু থাকবে না তা স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে। হিন্দুত্বের আড়ালে এই দল কট্টরপন্থী উগ্র মুসলমানদের মতোই।"

Advertisement
Advertisement