ব্যাঙ্ক থেকে নেওয়া ঋণ সময়মতো শোধ না করায় মামলা দায়ের হল বলিউড অভিনেতা অর্জুন রামপালের বিরুদ্ধে। ওয়াই টি এন্টারটেনমেন্ট নামে একটি সংস্থা অর্জুনের বিরুদ্ধে বম্বে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছে।

ওই সংস্থার আইনজীবী জানিয়েছেন, ২০১৮ সালের মে মাসে ওই সংস্থার কাছ থেকে ১ কোটি টাকা ঋণ নিয়েছিলেন অর্জুন। শর্ত ছিল, তিন মাসের মধ্যে তাঁকে এই লোন পরিশোধ করতে হবে ও প্রতি বছর সুদ দিতে হবে ১২ শতাংশ হারে। কিন্তু ঋণ নিয়ে এই শর্ত পূরণ করতে পারেননি তিনি। তাই বাধ্য হয়েই তাঁর বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ করেছে ওই সংস্থা। সূত্রের খবর, অর্জুনের সঙ্গে বিশেষ পরিচিতির কারণে এ ধরনের প্রতিষ্ঠান সাধারণত ঋণের জন্য যে সুদ নেয়, তার চেয়ে বেশ কম সুদে ঋণ দিয়েছিল। অর্জুন যে ঋণ শোধে ব্যর্থ হবেন, তা তাঁদের কাছে আশাতীত ছিল।

ওই সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে যে অর্জুন এক কোটি টাকার যে চেকটি দেন, তার তারিখ ছিল পুরনো। ফলে সেই চেক বাউন্স হয়ে যায়। এরপরেই অভিনেতাকে আইনি নোটিশ পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। গত অক্টোবরে ‘নেগোশিয়েবেল ইনস্ট্রুমেন্টস অ্যাক্ট ১৮৮১’-এর ১৩৮ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে রামপালের বিরুদ্ধে। তখনই তাঁকে আগামী সুদসহ সম্পূর্ণ টাকা শোধ করতে বলা হয়। মামলা চলাকালীন ১৪ দিনের সময়সীমা দেওয়া হয়েছিল অর্জুন রামপালকে। কিন্তু তারপর থেকে বেশ কয়েকমাস কেটে গেলেও, এখনও অবধি কোনও টাকা তিনি শোধ করেননি বলে দাবি করেছে ওই সংস্থা। যদিও অর্জুন বলেছেন তিনি সাড়ে সাত লাখ টাকা শোধ করে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: মুক্তি পেল ‘সোয়েটার’-এর ফার্স্ট লুক

এই প্রসঙ্গে অর্জুন জানিয়েছেন যে, ছোট একটি সমস্যা হয়েছিল, তবে তা মিটে গিয়েছে। বাকি ব্যাপারে আদালতের বিচারাধীন বলে মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি।

আরও পড়ুন: অনুপমের সুরে গান গাইলেন স্ত্রী পিয়া