Advertisement
২০ জুন ২০২৪
June Aunty

Sreemoyee: শ্রীময়ী শেষ, কিন্তু আমার মধ্যে জুন আন্টি থেকে গিয়েছে তাই আর এখন ছোট পর্দা নয়

ঊষসীর মতে অভিনয় দিয়ে টোটা-ইন্দ্রাণী রেখে গেলেন, নজির গড়লেন লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ও। ধারাবাহিক যে মিলনান্তক নাও হতে পারে, দেখিয়ে দিলেন তিনি।’’

জুন আন্টি ওরফে ঊষসী

জুন আন্টি ওরফে ঊষসী

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৫ ডিসেম্বর ২০২১ ২৩:০২
Share: Save:

বুধবার ‘শ্রীময়ী’র সেটে সবার মুখে হাসি থাকলেও মনে জল। দাসানি স্টুডিয়োয় এক দিকে ধারাবাহিকের শেষ শ্যুট চলছে। অন্য দিকে, সমস্ত অভিনেতা, কলাকুশলীদের জন্য বিরিয়ানি-সহ নানা খাবারের আয়োজন করেছেন ‘শ্রীময়ী’ ওরফে ইন্দ্রাণী হালদার এবং দলের সবাই। ১৯ ডিসেম্বর ধারাবাহিকের শেষ সম্প্রচার। ২০ ডিসেম্বর থেকে ওই সময়ে দেখা যাবে অ্যাক্রোপলিস এন্টারটেনমেন্টের নতুন ধারাবাহিক ‘গাঁটছড়া’। ১৪ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার সম্প্রচারিত হয়েছে রোহিত সেনের মৃত্যু দৃশ্য। সেই দৃশ্য দেখার পরে দর্শকদের মতোই ভারাক্রান্ত প্রত্যেক অভিনেতা-কলাকুশলী। আনন্দবাজার অনলাইনের কাছে এ দিন রাতে মন খারাপের কথা জানিয়েছেন স্বয়ং ‘জুন আন্টি’ ওরফে ঊষসী চক্রবর্তী। তাঁর কথায়, ‘‘রোহিতের মৃত্যু মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে। খারাপ লাগছে শ্রীময়ীর জন্য। এত ধুমধাম করে রোহিত-শ্রীময়ীর বিয়ে। বেচারি যে ভাবে রোহিতকে জড়িয়ে কাঁদছিল!” হোক অভিনয়, সব জেনেও চোখ ভিজেছে ইউনিটের সবার। ঊষসীর মতে অভিনয় দিয়ে টোটা রায়চৌধুরী-ইন্দ্রাণী দৃষ্টান্ত রেখে গেলেন, নজির গড়লেন লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ও। কোনও ধারাবাহিক যে মিলনান্তক নাও হতে পারে, দেখিয়ে দিলেন তিনি।’’

ধারাবাহিকের মূল তিন স্তম্ভ, শ্রীময়ী-রোহিত-জুন। রোহিত যদিও পরে এসেছে। তবু এই তিন জনকে ঘিরেই আবর্তিত প্রতিটি চরিত্র। এই প্রসঙ্গে ‘জুন’-এর কটাক্ষ, ধারাবাহিকের শুরুতে সবার ব্যঙ্গোক্তি, ‘‘বুড়োদের সিরিয়াল কে দেখবে? আমরা বুড়ো হাড়েই ভেল্কি দেখালাম। শেষ দিন পর্যন্ত ধারাবাহিক রেটিং চার্টে ষষ্ঠ স্থানে। চ্যানেল কার্ডে দ্বিতীয়।’’ তাই ‘রোহিত’ ওরফে টোটার পর্দায় মৃত্যু দেখতে দেখতে চোখ মুছেছেন তাঁদের ছেলে, মেয়ে, বউমা সবাই। ঐশী দে ওরফে ‘দিঠি’ (শ্রীময়ীর মেয়ে), ‘ডিঙ্কা’ ওরফে সপ্তর্ষি মৌলিক, ‘অর্ণা’ ওরফে রুষা চট্টোপাধ্যায়ের দাবি, রোহিত সেনের মৃত্যু দৃশ্য বুক খালি করে দিয়ে যাওয়ার মতোই।

গল্পের বাঁধুনি, টানটান চিত্রনাট্য, প্রত্যেকের দুর্দান্ত অভিনয় ‘শ্রীময়ী’কে সমৃদ্ধ করেছে। তেমনই জনপ্রিয়তার চূড়ায় পৌঁছে দিয়েছে দাপুটে খলনায়িকা জুন আন্টিকে। তাঁর মুখভঙ্গি আট থেকে আশির অনুকরণের বিষয়! কথা তুলতেই সায় দিয়েছেন ঊষসীও। বলেছেন, ‘‘জুনকে নিয়ে মিমের বন্যা। এখন খারাপের উদাহরণ মানেই জুন! যদি তিনি অমিত শাহ-ই হোন বা ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’ ধারাবাহিকের খল চরিত্র ‘রিনি’। সবার একটাই কথা, ‘‘জুন আন্টির মতোই খারাপ!’’ বা ‘‘জুন আন্টিকে পেয়ে গিয়েছি।“ সেই দাপুটে খলনায়িকার চোখেও জল চির প্রতিদ্বন্দ্বী শ্রীময়ীর ব্যথায়!

১৯ ডিসেম্বর কি বদলে যাবেন জুন? উত্তর দিতে গিয়ে ম্লান হাসি জুনের গলায়, ‘‘সবাই সেটাই জানতে চাইছেন। বলছেন, প্রতি বার জুনকে শ্রীময়ী ফিরিয়েছেন। এ বার কি জুন হাত ধরে ঘরে ফেরাবে শ্রীময়ীকে? তবে আমি কিছুই বলতে পারব না। লীনাদি যা লিখবেন সেটাই হবে।’’

এর পর অবশ্য আর কোনও ধারাবাহিকে ফিরবেন না ঊষসী। তাঁর দাবি, জুন তাঁকে এখনও ছেড়ে যায়নি। তিনি সেটে হাসতেন, কাঁদতেন, চেঁচাতেন সত্যিকারের জুন হয়ে। সেই অনুভূতিতেই এখনও আচ্ছন্ন তিনি। তাই কিছু দিন অভিনয় থেকে দূরে থাকবেন। বাড়ি বদলাচ্ছেন। সেই কাজ শেষ করবেন। তার পর বড় পর্দা বা সিরিজে অভিনয় করবেন। এ ভাবেই বেশ কিছুটা সময় কাটিয়ে আবার ফিরবেন তাঁদের চেনা ঘরে, ছোট পর্দার দুনিয়ায়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE