Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

Bengal Polls: ইনস্টাগ্রামে মমতার ছবি বিকৃত করে তাঁকে ‘রাক্ষসী’ আখ্যা কঙ্গনার, অভিযোগ দায়ের অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৭ মে ২০২১ ২০:২৭
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ কঙ্গনার।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ কঙ্গনার।

টুইটারে ‘মন কি বাত’ বলার রাস্তা পাকাপাকি ভাবে বন্ধ হয়ে গিয়েছে কঙ্গনা রানাউতের। অগত্যা ইনস্টাগ্রামকে হাতিয়ার করেই সব ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন বলিউডে বিজেপি ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত অভিনেত্রী। গত বৃহস্পতিবার রাতে ফের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করেন তিনি। এ বার আরও বেশি আক্রমণাত্মক। মমতার একাধিক ছবি বিকৃত করে, কুরুচিকর কথা লিখে নিজের ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্ট থেকে স্টোরি পোস্ট করেন কঙ্গনা। সরাসরি তাঁকে ‘রাক্ষসী’ আখ্যা দেন অভিনেত্রী। তাঁর অভিযোগ, মমতার রাজত্বে হিন্দুদের গণহত্যা হচ্ছে।

নেটমাধ্যমে কঙ্গনার এই সব কীর্তিকলাপ চোখ এড়ায়নি কারওরই। মুখ্যমন্ত্রীকে আবারও এমন কুরুচিকর আক্রমণ করায় শুরু হয়েছে নিন্দার ঝড়। এর পরেই কঙ্গনার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিয়েছেন তৃণমূলের মুখপাত্র ঋজু দত্ত। গত বৃহস্পতিবার বিধাননগর থানায় সাম্প্রদায়িক বিভেদ সৃষ্টির অভিযোগে অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন তিনি। পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল শুরু থেকেই মেনে নিতে পারেননি অভিনেত্রী। তৃণমূলের জয় ঘোষণার পর থেকেই একাধিক মমতা-বিরোধী পোস্ট ভেসে উঠেছিল কঙ্গনার টুইটারের দেওয়ালে। বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে ‘রাবণ’-এর সঙ্গে তুলনা করেছিলেন তখনই। এ বার মমতার ছবি বিকৃত করে তাঁকে রাক্ষসের রূপ দেওয়ায় গর্জে উঠলেন ঋজু। তিনি বললেন, “কঙ্গনা রানাউত একজন জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী। পদ্মশ্রী সম্মান পেয়েছেন। এমন কাজ করা ওঁর শোভা পায় না। আমাদের দলের মতাদর্শ উনি না-ই মানতে পারেন। কিন্তু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে এ ভাবে অসম্মান করতে পারেন না।” ঋজু মনে করেন, কঙ্গনার এ ধরনের পোস্ট পশ্চিমবঙ্গে সাম্প্রদায়িক অশান্তি উস্কে দিতে পারে যে কোনও সময়। কিন্তু শাসক দলের প্রতি নিজের আনুগত্য দেখাতেই অবিরত এ কাজ করে চলেছেন কঙ্গনা। তাঁর কথায়, “নির্বাচনের ফলাফল বেরনোর পর কয়েকটি জায়গায় অশান্তি হয়েছে। তবে তার দ্রুত সমাধানও করা হয়েছে। কিন্তু কঙ্গনার এ ধরনের পোস্ট বাংলায় আবার আগুন জ্বালিয়ে দিতে পারে।” তিনি মনে করেন, সাধারণ মানুষের টাকায় তাঁকে শাসক দলের দেওয়া ওয়াই প্লাস নিরাপত্তার ঋণ শোধ করতেই অতি সক্রিয় হয়ে বাংলার বদনাম করছেন কঙ্গনা।

ধর্মীয় উত্তেজনা সৃষ্টির অভিযোগে আগেও এফআইআর করা হয়েছে কঙ্গনার বিরুদ্ধে। সুতরাং ঋজুর পদক্ষেপে স্তম্ভিত নন অভিনেত্রী। ঘণ্টা খানেক আগেই তৃণমূলের মুখপাত্রের লিখিত এফআইআর-এর কপির ছবি নিজের ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে পোস্ট করেছেন অভিনেত্রী। আবার একই ভাবে মমতাকে কটাক্ষ করে লিখেছেন, ‘রক্ত পিপাসু রাক্ষসী মমতা নিজের শক্তি দিয়ে আমাকে চুপ করাতে চাইছে’।

Advertisement

কঙ্গনার ইনস্টাগ্রাম স্টোরি।

কঙ্গনার ইনস্টাগ্রাম স্টোরি।


অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগ, আইনি পদক্ষেপ— মাত্র কয়েকদিনেই বাংলার রাজনীতিতে জড়িয়ে গিয়েছে বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনার নাম। ক্ষমতায় আসা সরকারকে ইনস্টাগ্রাম পোস্টের জোরে কতটা চিন্তায় ফেলবেন কঙ্গনা? কোথায় গিয়েই বা থামবে এই কাজিয়া? এখন সেটাই দেখার।

আরও পড়ুন

Advertisement