Advertisement
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Monsoon Health care Tips

বর্ষা হল সর্দি-কাশি, পেটখারাপের মরসুম, সুরক্ষিত থাকতে কী কী নিয়ম মেনে চলবেন?

বর্ষায় সুস্থ থাকা সহজ নয়। নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে বর্ষায় কিছু নিয়ম মেনে চলা জরুরি। এ মরসুমে কী ভাবে নিজেকে সুস্থ রাখা সম্ভব?

Symbolic Image.

বর্ষায় সর্দি-কাশির সমস্যা লেগেই রয়েছে। প্রতীকী ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৫ জুলাই ২০২৩ ১৩:৪৯
Share: Save:

বর্ষাকাল মানেই রোগবালাইয়ের অন্ত নেই। সর্দি-কাশি থেকে পেটখারাপ, নানা রকম শারীরিক সমস্যা লেগেই আছে। অন্য মরসুমেও যে এ ধরনের সমস্যা থেকে দূরে থাকা যায়, তা কিন্তু নয়। তবে বর্ষায় যেন জীবাণু সংক্রমণের ঝুঁকি তুলনায় বেশি। সুস্থ থাকতে তাই সতর্ক এবং সচেতন থাকা জরুরি। বর্ষাকাল এলেও এখনও গরমের অস্বস্তি একেবারে চলে যায়নি। ফলে প্রকৃতির দোলাচলতা প্রভাব ফেলছে শরীরের উপর। আবহাওয়ার খামখেয়ালির কারণে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন অনেকেই। এ প্রসঙ্গে চিকিৎসক সুবর্ণ গোস্বামী বলেন, ‘‘এখন ‘ইন্টারমিটেন্ট রেনফল’ হচ্ছে। অর্থাৎ, অল্প অল্প করে বৃষ্টি হয়ে চলেছে। ভারী বর্ষণ হচ্ছে না বলেই নানা সমস্যা দেখা দিচ্ছে। জ্বর, সর্দি-কাশি তো হচ্ছেই, সঙ্গে ডায়েরিয়ার সমস্যা নিয়েও প্রচুর মানুষ আমার কাছে আসছেন। তবে সব জ্বর যে ঠান্ডা লেগে হচ্ছে, তা নয়। রক্ত পরীক্ষার পর জানা যাচ্ছে অনেকেই ডেঙ্গি, ম্যালেরিয়ায় ভুগছেন। শিশু থেকে প্রাপ্তবয়স্ক, বিভিন্ন বয়সের মানুষ অসুস্থ হচ্ছেন। তবে শিশুদের মধ্যে জ্বর, সর্দি-কাশির সমস্যা বেশি দেখা যাচ্ছে।’’ বর্ষায় সুস্থ থাকা সহজ নয়। নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে বর্ষায় কিছু নিয়ম মেনে চলা জরুরি। এ মরসুমে নিজেকে সুস্থ রাখার উপায়গুলি কী?

জল ফুটিয়ে খাওয়া

জলবাহিত ব্যাক্টেরিয়া সংক্রমণের ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। তাই এই মরসুমে সব সময়ে জল ফুটিয়ে খাওয়া ভাল। জল ফুটিয়ে খেলে পেট খারাপের আশঙ্কা অনেক কম থাকে। বিশেষ করে বাড়িতে শিশু এবং বয়স্ক কোনও সদস্য থাকলে জল ফুটিয়ে খাওয়ানোই ভাল।

হাত ধুয়ে খাওয়া

অফিসে হোক কিংবা বাড়িতে খেতে বসার আগে সব সময়ে হাত ধুয়ে নেওয়া জরুরি। হাতে লেগে থাকা জীবাণু খাবারের মাধ্যমে পেটে চলে গেলে মুশকিলে পড়তে হতে পারে। তাই সব সময় হাত পরিষ্কার রাখা জরুরি। প্রয়োজনে সঙ্গে স্যানিটাইজ়ার রাখুন। কিছু সময় অন্তর হাতে মেখে নিন।

টাটকা খাবার খাওয়া

ঠান্ডা ঠান্ডা ভাব থাকলেও এ সময়ে বাতাসে আর্দ্রতা বেশি। ফলে খাবার বেশি ক্ষণ ভাল থাকছে না। তাই এই মরসুমে বাসি খাবার না খাওয়াই ভাল। সব সময় চেষ্টা করুন টাটকা খাবার খাওয়ার। খাওয়ার আগে খাবার গরম করে নিন। ঠান্ডা খাবারে ব্যাক্টেরিয়া বাসা বাঁধার আশঙ্কা বেশি।

জল জমতে না দেওয়া

বর্ষায় যত্রতত্র জল জমে যায়। জমা জলে ডিম পাড়ে মশা। সেখান থেকেই বর্ষায় ডেঙ্গির ঝুঁকি বেড়ে যায়। তাই বাড়ির আশেপাশে, ছাদে, এসি, ট্যাঙ্ক কোথাও জল জমতে দেবেন না। জীবাণুনাশক স্প্রে পাওয়া যায়, ঝুঁকি এ়ড়াতে সেগুলি ব্যবহার করুন।

বৃষ্টিতে না ভেজা

গ্রীষ্মের অস্বস্তির পর ঝিরিঝিরি বৃষ্টিতে ভিজতে অনেকেরই ভাল লাগে। কিন্তু তাই বলে সব সময়ে নয়। বিশেষ করে ঠান্ডা লাগার ধাত থাকলে বৃষ্টির জল গায়ে পড়লেই জ্বরে ভুগতে হতে পারে। সঙ্গে বর্ষার জল থেকে ত্বকের নানা রকম সমস্যা তো রয়েছেই। তাই বাইরে বেরোনোর সময় অবশ্যই ছাতা সঙ্গে রাখুন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE