Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৬ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Diabetic Retinopathy: দীর্ঘদিন ডায়াবিটিসে আক্রান্ত? সামান্য গাফিলতি ছিনিয়ে নিতে পারে দৃষ্টিশক্তি

আপনার ডায়াবিটিস থাকলে চোখের রেটিনা গুরুতর ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। যা ডেকে আনে ডায়াবিটিস রেটিনোপ‌্যাথির মতো অসুখ।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ১০:৩১
Save
Something isn't right! Please refresh.
এই রোগের ক্ষেত্রে প্রাথমিক পর্যায়ে চোখের রেটিনার অংশে রক্তবাহী সরু ধমনীগুলি দুর্বল হয়ে পড়ে।

এই রোগের ক্ষেত্রে প্রাথমিক পর্যায়ে চোখের রেটিনার অংশে রক্তবাহী সরু ধমনীগুলি দুর্বল হয়ে পড়ে।
ছবি: সংগৃহীত

Popup Close

ডায়াবিটিস রোগটি বড়ই ভয়ঙ্কর। আপনার অজান্তেই এই রোগ শরীরের অন্দরে নানা সমস্যা তৈরি করতে পারে। এর প্রভাব পড়তে পারে চোখেও। বৃদ্ধ বয়সে অনেকেই চোখে ঝপসা দেখেন। সে ক্ষেত্রে মনে হতেই পারে হয়েতো চোখে ছানি পড়েছে। সাবধান! আপনার ডায়াবিটিস থাকলে চোখের রেটিনা গুরুতর ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। যা ডেকে আনে ডায়াবেটিক রেটিনোপ‌্যাথির মতো অসুখ। তাই ডায়াবিটিসের চিকিৎসার সঙ্গে নিয়মিত চোখের পরীক্ষা করাও জরুরি।

এই রোগের ক্ষেত্রে প্রাথমিক পর্যায়ে চোখের রেটিনার অংশে রক্তবাহী সরু ধমনীগুলি দুর্বল হয়ে পড়ে। ফলে এক প্রকার ফ্লুইডের ক্ষরণ শুরু হয়। দৃষ্টিশক্তি কমে যায়। এর পরবর্তী পর্যায়ে ধমনীতে রক্ত চলাচলের সমস‌্যা আরও বাড়ে। রেটিনার বিভিন্ন অংশে ঠিকমতো অক্সিজেন পৌঁছতে পারে না। চোখে রক্তক্ষরণ শুরু হয়, ডাক্তারি পরিভাষায় এই সমস‌্যাকে বলা হয় ভিট্রিয়াস হেমারেজ। এর থেকে চোখে অন্ধত্ব আসতে পারে।

Advertisement
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি


কী কী লক্ষণ দেখা দেয়

  • এ ক্ষেত্রে অনেক ডায়াবিটিস রোগীর ধীরে ধীরে চোখের দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে যায়।
  • এই সমস্যায় আক্রান্তদের কিছু পড়তে বা দূরের জিনিস দেখতে সমস্যা হয়। তাই হঠাৎ করে এমনটা হলে অবশ্যই চিকিৎসকের নজরে আনুন।
  • ডায়াবিটিক রেটিনোপ্যাথির সমস্যা বাড়তে শুরু করলে অনেকের রং দেখতেও সমস্যা হয়।
  • চোখে স্বাভাবিক দেখতে দেখতে হঠাত্ করেই চার দিকটা অন্ধকার দেখায়। আবার কেউ কেউ নির্দিষ্ট কোনও অংশ দেখতে পান না।
  • চোখের সামনে পোকার মতো কিছু ঘুরে বেড়াচ্ছে মনে হওয়া বা আচমকা আলোর ঝলকানিও এই রোগের লক্ষণ।

কী করবেন?

এই ধরনের লক্ষণ দেখা দিলেই দেরি না করে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। রোগ কতটা থাবা বসিয়েছে তা বিচার করেই চিকিৎসা শুরু হবে। এ ক্ষেত্রে রেটিনা সার্জনরা সাধারণত বেশ কয়েকটি পরীক্ষা করান। এগুলির মধ্যে রয়েছে অ‌্যাঞ্জিওগ্রাফি , চোখের স্ক‌্যান। লেজার থেরাপি, চোখের ইঞ্জেকশন বা স্টেরয়েড ইঞ্জেকশন দিয়ে দৃষ্টিশক্তি আবার আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা হয়।

চিকিত্সকদের মতে, যে সব ডায়াবিটিস রোগীরা রক্তে, রেনাল প্রোফাইল (ইউরিয়া ও ক্রিয়েটিনিন), রক্তচাপ ও কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখেন, তাঁদের চোখের সম‌স‌্যা অনেক কম হয়। খাওয়াদাওয়া নিয়ন্ত্রণ আর এক্সারসাইজ করলে এগুলি ঠিক রাখা সম্ভব। সেই সঙ্গে নিয়মিত চোখ পরীক্ষা করাতেও ভুলবেন না। সামান্য গাফিলতি বড় বিপদ ডেকে আনতে পারে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement