Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

kashmir terrorist attack: অমিত শাহর সফরের মধ্যেই ফের জঙ্গি হামলা কাশ্মীরে, নিহত এক, আহত তিন নিরাপত্তা রক্ষী

সংবাদ সংস্থা
শ্রীনগর ২৪ অক্টোবর ২০২১ ১৫:৫৭
ভারতে প্রবেশকারী পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিদের খোঁজে গত ১৪ দিন ধরে পুঞ্চ এবং সংলগ্ন এলাকায় তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ এবং সেনার যৌথবাহিনী।

ভারতে প্রবেশকারী পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিদের খোঁজে গত ১৪ দিন ধরে পুঞ্চ এবং সংলগ্ন এলাকায় তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ এবং সেনার যৌথবাহিনী।
ছবি সংগৃহীত

কয়েক ঘণ্টা আগে কাশ্মীরে বসে সন্ত্রাসকে গোড়া থেকে উপড়ে ফেলার ডাক দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তিন দিনের সফরে এখনও তিনি কাশ্মীরে। রবিবার তাঁর উপস্থিতিতেই পর পর দু’টি জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটে গেল উপত্যকায়।

দু’টি ঘটনার একটিতে একজন সাধারণ নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। অন্যটিতে গুরুতর জখম হয়েছেন এক সেনাকর্মী এবং দু’জন পুলিশ বাহিনীর সদস্য। পুলিশ এবং সেনার ওই যৌথ দলটি জঙ্গিদের ঘাঁটি খুঁজতে পুঞ্চে তল্লাশি অভিযানে গিয়েছিল। জঙ্গিদের গুলির সামনে টিকতে না পেরে তারা ফিরে আসতে বাধ্য হয়। জঙ্গিদের গুলিতে জখম হন তিন নিরাপত্তাকর্মী।

দ্বিতীয় ঘটনাটি ঘটে শোপিয়ানের বাবাপোরা এলাকার। সেনাজঙ্গ সংঘর্ষের মাঝে পড়ে নিহত হন স্থানীয় এক বাসিন্দা। নাম শাহিদ আহমেদ। বিজে বেহরার বাসিন্দা শাহিদ পেশায় দুধের ব্যবসায়ী। তাঁর বাবার নাম আজাদ আহমেদ। শাহিদের মৃত্যুর খবর দিয়ে কেন্দ্রীয় আধা সামরিক বাহিনী একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘রবিবার সকাল সাড়ে ১০টার সময় কিছু জঙ্গি সিআরপিএফের ১৭৮ নম্বর ব্যাটালিয়নের নাকা পার্টির উপর হামলা চালায়। পাল্টা জবাব দেয় কেন্দ্রীয় আধা সামরিক বাহিনী। দু’পক্ষের গুলি সংঘর্ষের মাঝে পড়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।’ এই নিয়ে অক্টোবরের শুরু থেরে জম্মু ও কাশ্মীরে মোট ১২ জন সাধারণ নাগরিক প্রাণ হারালেন।

তবে স্বয়ং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জম্মু ও কাশ্মীরে থাকাকালীন পর পর দু’টি জঙ্গি মলার ঘটনায় কিছুটা বিব্রত নয়াদিল্লি। রবিবার জম্মুতে জনসভা ছিল শাহর। তার আগে শনিবার সন্ধ্যায় তিনি শ্রীনগরের ইউথ ক্লাবের অনুষ্ঠানে বক্তৃতা দিয়েছেন। জম্মু-কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা রদ হওয়ার পর এই প্রথম কাশ্মীরে এসেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এসেই জম্মু এবং কাশ্মীরকে তিন ধাপে পূর্ণ রাজ্যের মর্যাদা দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন। শনিবার ইয়ুথ ক্লাবের অনুষ্ঠানে অমিত বলেছিলেন, জম্মু ও কাশ্মীর পূর্ণরাজ্যের মর্যাদা পাবে, তবে সন্ত্রাসকে নির্মূল করতে এগিয়ে আসতে হবে কাশ্মীরের যুব সম্প্রদায়কে। অমিতের সেই বক্তৃার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কাশ্মীরে সন্ত্রাস হামলার শিকার হয়েছেন এক সাধারণ নাগরিক এবং তিন নিরাপত্তাকর্মী।

Advertisement

রবিবার পুঞ্চে সেনা জঙ্গি সংঘর্ষের সময় এক লস্কর-ই-তৈবার এক সদস্যও ছিল বাহিনীর সঙ্গে। তার নাম জিয়া মুস্তাফা। জেলে থেকে জিয়া ফোনে যোগাযোগ রাখছিলেন জঙ্গিদের সঙ্গে। তাকে চিহ্নিত করে হেফজতে নেয় পুলিশ। পরে রবিবার তাকে নিয়েই জঙ্গিদের ঘাঁটি চিহ্নিত করতে গিয়েছিল। কিন্তু জঙ্গিদের পাল্টা হামলায় দলটি ফিরে আসতে বাধ্য হয়। গুলিতে জিয়াও গুরুতর জখম হয়েছিল বলে সেনা বাহিনীসূত্রে খবর। এঁদের মধ্যে যৌথবাহিনীর তিন সদস্যকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও জিয়াকে ফেরানো যায়নি। একটি বিবৃতিতে সেনা জানিয়েছে, জঙ্গিদের গুলি থেকে বাঁচতে জখম জিয়াকে জঙ্গলে ফেলেই চলে আসতে হয় তাঁদের।

রবিবার কাশ্মীরে পর পর দু’টি জঙ্গি হামলার ঘটনার পরও অবশ্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর তরফে অনুষ্ঠান বাতিলের কোনও ঘোষণা করা হয়নি। তবে জম্মুতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সভার আগে আরও বেড়েছে নিরাপত্তা। কাশ্মীরে আত্মগোপনকারী পাক মদতে পুষ্ট জঙ্গিদের মোকাবিলায় গত ১৪ দিন ধরে অভিযান চালাচ্ছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। ইতিমধ্যে সেনা জঙ্গি সংঘর্ষে ন’জন সেনাকর্মীর মৃত্যুও হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে কাশ্মীরে শাহ-র সফর ভারতীয় বাহিনীর মনোবল বাড়াবে বলে অনুমান করা হয়েছিল। সূত্রের খবর এই সফরে তিনি জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক ডাকতে পারেন। সেই বৈঠকে মূল আলোচ্য হবে অনুপ্রবেশ।

আরও পড়ুন

Advertisement